রাণীনগরে গৃহবধূ নিপালীর মৃত্যু নিয়ে রহস্য

আপডেট: অক্টোবর ২৭, ২০১৬, ১১:৫৬ অপরাহ্ণ

নওগাঁ ও রাণীনগর প্রতিনিধি
নওগাঁর রাণীনগরে দুই সন্তানের মা নিপালী বেগম (২৬) এর মৃত্যু নিয়ে এলাকায় ব্যাপক গুনঞ্জন চলছে। প্রতিবেশিরা বলছে তার স্বামীর নির্যাতনে সে অসুস্থ হয়ে পড়লে নওগাঁ সদর হাসপাতালে গত মঙ্গলবার রাতে মৃত্যুর কোলে ঢলে পড়ে। এনিয়ে স্থানীয় কিছু প্রভাবশালী মহলের হস্তক্ষেপে বুধবার দিনভর ঘরোয়া মিটিং-সিটিং শেষে ২ বিঘা জমি কবলানামা রেজিস্ট্রিরি ও নগদ কিছু টাকা ক্ষতিগ্রস্ত পরিবারকে দিয়ে অবশেষে বুধবার রাতে ওই গৃহবধূর বাবার বাড়ির পারিবারিক কবরস্থানে দাফন সম্পূর্ণ করা হয়। মৃত্যুর খবর থানা পুলিশ বিভিন্ন সূত্রে জানলেও কোন পক্ষ তাদের কাছে লিখিত অভিযোগ না দেওয়ার অজুহাতে গৃহবধূ নিপালীর মৃত্যুর গুনঞ্জন নিয়ে তারাও নিরব। এনিয়ে পুলিশের বিরুদ্ধেও প্রকৃত ঘটনা উৎঘাটনে গরিমসির অভিযোগ উঠছে।
জানা গেছে, উপজেলার কালীগ্রাম ইউপি’র রাতোয়াল দক্ষিণপাড়া গ্রামের ইয়াদ আলী মন্ডলের ছেলে আবুল কালামের সাথে চক-পারইল গ্রামের মৃত জনাব আলীর মেয়ে নিপালীর প্রায় দশ বছর আগে বিয়ে হয়। বিয়ের পর থেকে কালাম তার স্ত্রী নিপালীকে বিভিন্ন অজুহাতে শারীরিক মানসিক নির্যাতন করত। এর মধ্যেই নিপালীর দম্পত্তির ঘরে আসে মেয়ে বৈশাখী (৮) ও ছেলে আবু কাওছার (৫)। গত মঙ্গলবার কালাম তার স্ত্রীকে এলোপাতাড়ি মারধর করার এক পর্যায়ে নিপালী গুরুত্ব অসুস্থ হয়ে পড়লে অচেতন অবস্থায় তাকে একটি ভ্যান গাড়িতে তুলে দিয়ে কালাম তার শ্বশুর বাড়িতে খবর দেয় নিপালী হঠাৎ করে অসুস্থ হয়ে পড়েছে। এমন সংবাদ পেয়ে ভাই উজ্জ্বল তার বোনকে দেখতে রাতোয়াল গ্রামে আসার পথে আবাদপুকুর বাজারে আশঙ্কাজনক অবস্থায় পেয়ে তার বোনকে চিকিৎসার জন্য বগুড়া জেলার আদমদীঘি হাসপাতালে ভর্তি করালে অবস্থা বেগতিক দেখে চিকিৎসকদের পরামর্শে উন্নত চিকিৎসার জন্য নওগাঁ সদর হাসপাতালে নিলে সেখানে চিকিৎসাধীন অবস্থায় রাত আড়াইটার দিকে নিপালী মৃত্যুর কোলে ঢলে পড়ে। নিপালীর মৃত্যুর খবর ছড়িয়ে পড়লে তার শ্বশুর বাড়ি রাতোয়াল গ্রামে ও বাবার বাড়ি চক-পারইলে মৃত্যুর কারণ নিয়ে বিভিন্ন রকমের গুনঞ্জন চলতে থাকে। শারীরিক নির্যাতন করার কারণে নিপালীর মৃত্যু হয়েছে এই অভিযোগে তার বাবার বাড়ির স্বজনরা ও স্থাণীয় মোড়লদের কয়েক দফা বৈঠকের পর রাণীনগর সাব- রেজিষ্ট্রেরি অফিসে মৃত নিপালীর স্বামী আবু কালামের বাবা ইয়াদ আলী মন্ডল গত ২৬ অক্টোবর তারিখে ৪৩৮৭ নাম্বার দলিল মূলে ৬৫ শতক জমি ও নগদ কিছু টাকা দিয়ে নিপালীর মৃত্যুর রহস্য ধামাচাপা দিয়ে চক-পারইল গ্রামে গত বুধবার রাতে কিছুটা চুপিসারে তার দাফন সম্পূর্ণ করা হয়।
নিপালীর শ্বশুর ইয়াদ আলী মন্ডল জানান, আমার ছেলের বউ মৃত্যুর আগে অসুস্থ ছিলো না। গত মঙ্গলবার বউ বাবার বাড়িতে যাবে বলে আমরা একটি ভ্যান গাড়ী ভাড়া করে তাকে একা পাঠিয়ে দিই। কিন্তু রাস্তার মাঝে হঠাৎ করে অসুস্থ হয়ে পড়লে সে নওগাঁ সদর হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় মারা যায়। আবুল কালামের সঙ্গে দেখা করতে চাইলে তার পরিবারের লোকজন বলে সে ঘুমাচ্ছে এখন দেখা করা যাবে না।
রাণীনগর থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) মো. মোস্তাফিজুর রহমান জানান, বিষয়টি আমি বিভিন্ন ভাবে শুনেছি। থানায় উভয় পক্ষের কেউ অভিযোগ নিয়ে আসে নি। অভিযোগ পেলে প্রয়োজনীয় তদন্ত স্বাপেক্ষে আইনগত ব্যবস্থা গ্রহণ করা যেত।

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ