রাবিতে বান্ধবীকে উত্যক্তের প্রতিবাদ করায় ছুরিকাঘাত ছাত্রলীগকর্মী আটক

আপডেট: মে ১৭, ২০১৮, ১২:২৯ পূর্বাহ্ণ

রাবি প্রতিবেদক


রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ে (রাবি) বান্ধবীকে উত্যক্তের প্রতিবাদ করায় সাইফুল ইসলাম হৃদয় নামের এক শিক্ষার্থীকে ছুরিকাঘাত করেছে ছাত্রলীগের এক কর্মী। এ ঘটনায় অভিযুক্ত ছাত্রলীগকর্মী হামজাকে আটক করেছে পুলিশ।
ছুরিকাহত সাইফুল ইসলাম হৃদয় বিশ্ববিদ্যালয়ের মার্কেটিং বিভাগ থেকে মাস্টার্স শেষ করেছে। তার বাড়ি খুলনায়। অন্যদিকে আটক ছাত্রলীগকর্মী হামজা গণিত বিভাগের প্রথম বর্ষের শিক্ষার্থী। হামজা রাবি ছাত্রলীগের সহসভাপতি সাদ্দাম হোসেনের অনুসারী বলে ছাত্রলীগের কয়েকজন নেতাকর্মী নিশ্চিত করেছে।
নগরীর মতিহার থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি, তদন্ত) মাহবুব আলম বলেন, বুধবার সন্ধ্যা সোয়া ৭টার দিকে ছুরিকাহত সাইফুল ইসলাম তৃতীয় বিজ্ঞান ভবনের সামনে বান্ধবী নিয়ে বসে ছিলেন। এসময় ছাত্রলীগ কর্মী হামজাসহ আরো কয়েকজন তার বান্ধবীকে উত্যক্ত করে। সাইফুর এর প্রতিবাদ করলে তাদের মধ্যে কথাকাটাকাটি হয় এবং তারা চলে যায়। এর আধা ঘণ্টা পর সাইফুল তার বান্ধবীকে রোকেয়া হলে পৌঁছে দিয়ে ফেরার পথে হামজা ও তার সহযোগীরা তার পথরোধ করে। কথাকাটাকাটির একপর্যায়ে হামজা সাইফুলের পেটে ছুরিকাঘাত করে। এসময় আশেপাশে থাকা কয়েকজন শিক্ষার্থী এগিয়ে গেলে হামজা ও তার সহযোগীরা পালিয়ে যেতে চেষ্টা করে। কিন্তু শিক্ষার্থীরা হামজাকে আটক করতে সক্ষম হয় এবং মারধর করে।
এরপর পুলিশে খবর হাতে তুলে দেয়া হলে হামজাকে আটক এবং সাইফুল ইসলামকে উদ্ধার করে রাজশাহী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের অপারেশন থিয়েটারে নেয়া হয়েছে। তাৎক্ষণিকভাবে এখনো কোন অভিযোগ দায়ের করা হয় নি। তবে তার বিরুদ্ধে আইনগত ব্যবস্থা নেয়া হবে।
ছাত্রলীগের রাবি শাখার সহসভাপতি সাদ্দাম হোসেন বলেন, ছেলেটার নাম হামজা আমি শুধু এটুকু জানি। সে আমার কর্মী নয়।
হামজা ছাত্রলীগকর্মী বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন ছাত্রলীগের রাবি শাখার সাধারণ সম্পাদক ফয়সাল আহমেদ রুনু। তিনি বলেন, ঘটনাটি শুনলাম। আমি ক্যাম্পাসের বাইরে আছি। এ ঘটনায় সে জড়িত থাকলে বিশ্ববিদ্যালয়ে ফিরে তার বিরুদ্ধে ব্যাবস্থা নেয়া হবে।