রাসিকের স্বাস্থ্য স্বাস্থ্যকর্মী ও ওয়ার্ড সচিবদের সাথে মেয়র লিটনের মতবিনিময়

আপডেট: June 29, 2020, 10:21 pm

নিজস্ব প্রতিবেদক:


মতবিনিময় সভায় বক্তব্য দেন সিটি মেয়র এএইচএম খায়রুজ্জামান লিটন- সোনার দেশ

রাজশাহী নগরীতে করোনা ভাইরাসজনিত প্রাদুর্ভাব বৃদ্ধি পাওয়ায় করণীয় বিষয়ে স্বাস্থ্য স্থায়ী কমিটি, ওয়ার্ড সচিব ও স্বাস্থ্যকর্মীদের সঙ্গে মতবিনিময় করেছেন সিটি মেয়র এএইচএম খায়রুজ্জামান লিটন। সোমবার (২৯ জুন) বিকেলে নগর ভবনের সিটি হল সভাকক্ষে মেয়রের সভাপতিত্বে এই সভা অনুষ্ঠিত হয়। রাজশাহী সিটি করপোরেশনের এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে এ তথ্য জানানো হয়।

 

সভায় মেয়র বলেন, বৈশি^ক মহামারী করোনায় আজ বিশ^ বিপর্যস্ত। আমাদের দেশেও এ ভাইরাসের প্রকােপ গত মার্চে দেখা দেয়। ঠিক তখন থেকেই করোনা প্রতিরোধে রাজশাহী সিটি কর্পোরেশন নানা উদ্যোগ গ্রহণ করেছে। স্থানীয় সরকারের প্রতিষ্ঠান হিসেবে রাজশাহী সিটি কর্পোরেশনকে নানা দায়িত্ব পালন করতে হচ্ছে। নাগরিকদের স্বাস্থ্য সুরক্ষায় অনেকগুলি পদক্ষেপ গ্রহণ করেছে সিটি কর্পোরেশন। ওয়ার্ড ভিত্তিক নমুনা সংগ্রহ টিম বৃদ্ধি,টিমের সদস্যদের প্রয়োজনীয় প্রশিক্ষণ, আরো একটি পিসিআর ল্যাব স্থাপনের পরিকল্পনা রয়েছে। হেলথ সেন্টারগুলোতে নমুনা সংগ্রহের কেন্দ্র করা হবে। করোনা ভাইরাসের প্রাদুর্ভাব বৃদ্ধির এক্ষণে রাজশাহী সিটি কর্পোরেশনের স্বাস্থ্য বিভাগকে আরো দায়িত্বশীল হতে হবে। করোনা রোগীদের সহযোগিতায় স্বেচ্ছাসেবক ও যুব রেডক্রিসেন্ট সদস্যদের সম্পৃক্ত করা হবে।

 

তিনি আরো বলেন, সম্প্রসারিত টিকাদান কর্মসূচি (ইপিআই) রাজশাহী সিটি কর্পোরেশন ৯ বার প্রথম স্থান অর্জন করেছে। এছাড়া স্বাস্থ্যসেবার আরো অর্জন আছে। সেই অর্জন ধরে রাখতে চাই।
মেয়র আরো বলেন, স্বাস্থ্যকর্মীরা নাগরিক স্বাস্থ্যসেবায় নানান কাজ করে থাকেন। এরই পাশাপাশি করোনা পরিস্থিতি মোকাবেলায় আক্রান্ত ব্যক্তির স্যাম্পল কালেকশন, করোনা পরিবর্তি খোঁজখবর রাখা, ত্রাণ সামগ্রী পৌঁছে দেয়া, মৃত্যুবরণকারী ব্যক্তিদের দাফন কাজ সম্পন্ন করণে সহযোগিতা প্রদান করার বিষয়ে সকলকে আন্তরিকভাবে দায়িত্ব পালন করতে হবে।

 

 

মতবিনিময় সভায় অনন্যদের মাঝে বক্তব্য দেন রাসিকের প্যানেল মেয়র-১ ও ১২নম্বর ওয়ার্ড কাউন্সিলর সরিফুল ইসলাম বাবু, স্বাস্থ্য স্থায়ী কমিটির সভাপতি ৬নম্বর ওয়ার্ড কাউন্সিলর নুরুজ্জামান টুকু, ২নম্বর ওয়ার্ড কাউন্সিলর নজরুল ইসলাম, প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা ড. এবিএম শরীফ উদ্দিন, ভারপ্রাপ্ত প্রধান প্রকৌশলী খন্দকার খায়রুল বাশার, প্রধান পরিচ্ছন্ন কর্মকর্তা শেখ মো. মামুন ডলার।
সভায় আরো উপস্থিত ছিলেন ৩০নম্বর ওয়ার্ড কাউন্সিলর শহিদুল ইসলাম পিন্টু, সংরক্ষিত আসনের কাউন্সিলর শিরিন আরা খাতুন, উম্মে সালমা, সচিব আবু হায়াত মো. রহমতুল্লাহ, নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট সমর কুমার পাল, বাজেট কাম হিসাব রক্ষণ কর্মকর্তা মো. শফিকুল ইসলাম খান প্রমুখ।

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ