রাসিক মেয়র লিটনের নেতৃত্বে রাজশাহীকে দেশের প্রথম স্মার্ট এ্যান্ড ইন্টেলিজেন্ট সিটি গড়ার অঙ্গীকার আইসিটি প্রতিমন্ত্রীর

আপডেট: সেপ্টেম্বর ১২, ২০১৯, ২:০১ পূর্বাহ্ণ

নিজস্ব প্রতিবেদক


নগর ভবনে মতবিনিময়কালে মেয়র খায়রুজ্জামান লিটন রাজশাহী নগরবাসীর কল্যাণে স্মার্ট ও ডিজিটাল সিটি বিনির্মাণে প্রতিমন্ত্রী পলককে ডিও লেটার প্রদান করেন-সোনার দেশ

রাসিক মেয়র এএইচএম খায়রুজ্জামান লিটনের নেতৃত্বে সবার সার্বিক সহযোগিতা ও প্রচেষ্টায় রাজশাহীকে দেশের মধ্যে প্রথম স্মার্ট অ্যান্ড ইন্টেলিজেন্ট সিটি হিসেবে গড়ার অঙ্গীকার ব্যক্ত করেছেন তথ্য ও যোগাযোগ প্রযু্িক্ত প্রতিমন্ত্রী জুনাইদ আহমেদ পলক। গত মঙ্গলবার দুপুরে নগর ভবনে মতবিনিময়কালে মেয়র খায়রুজ্জামান লিটন রাজশাহী নগরবাসীর কল্যাণে স্মার্ট ও ডিজিটাল সিটি বিনির্মাণে প্রতিমন্ত্রী পলককে ডিও লেটার প্রদান করেন। এরপরিপ্রেক্ষিতে প্রতিমন্ত্রী রাজশাহীকে প্রথম স্মার্ট অ্যান্ড ইন্টেলিজেন্ট সিটি গড়তে সার্বিক সহযোগিতা প্রদানের অঙ্গীকার করেন।
ডিও লেটারে রাসিক মেয়র খায়রুজ্জামান লিটন উল্লেখ করেন, ‘দেশের অর্থনৈতিক অগ্রযাত্রার ফলে নগরীর জীবনযাত্রার মানোন্নয়নসহ পরিবেশবান্ধব ও পরিচ্ছন্ন নগরী হিসেবে সুপরিচিত হওয়ায় দেশের বিভিন্ন এলাকা হতে মানুষ এ শহরে উন্নততর জীবনের প্রত্যাশায় প্রতিনিয়ত এসে বসবাস করছে। এ কারণে নগরায়নের প্রসার ঘটছে। রাজশাহী নগরীকে উন্নত পরিবেশবান্ধব এবং স্মার্ট নগরী হিসেবে গড়ে তুলতে সরকার ঘোষিত রূপকল্প-২০২১ বাস্তবায়ন, ২০৩০ সালের মধ্যে টেকসই উন্নয়নের অভীষ্ট অর্জন এবং ডিজিটাল বাংলাদেশ বিনির্মাণে তথ্য প্রযুক্তির বিকল্প নেই। নগরবাসীর কল্যাণে ইতোমধ্যে অপরাধ নিয়ন্ত্রণে নগরীর বেশ কিছু গুরুত্বপূর্ণ স্থানে সিসি টিভি ক্যামেরা স্থাপন করা হয়েছে, প্রিমিসেস লাইসেন্স, অটোরিক্স লাইসেন্স অটোমেশনের মাধ্যমে পরিচালিত হচ্ছে, সিটি কপোরেশন কর্তৃক ব্যবহৃত গাড়ির গতিবিধি পর্যবেক্ষণের জন্য ট্র্যাকার সংযোজন করা হয়েছে। রাজশাহী নগরবাসীর কল্যাণে স্মার্ট ও ডিজিটাল সিটি বিনির্মাণে নিম্নোক্ত বিষয়ে কার্যক্রম গ্রহণ করা অতীব জরুরি।
১. নাগরিকদের বিভিন্ন তথ্য এক স্থানে সন্নিবেশ এবং তথ্য নিরাপত্তা সুনিশ্চিত করা প্রয়োজন।
২. নগরবাসীর নিরাপত্তা সুনিশ্চিতের জন্য Intelligent Security Surveillance along with Monitoring and control center স্থাপন করা প্রয়োজন।
নগরের অপরাধ প্রবণতা নিয়ন্ত্রণ ও অপরাধী চিহ্নিতকরণে গুরুত্বপূর্ণ স্থানে Video Crime Management System    with Face Recognition ক্যামেরা স্থাপন জরুরি প্রয়োজন। গাড়ির গতিবিধি পর্যবেক্ষণের জন্য Bangla Automobile Number Plate Recognition (ANPR) সংযোজন করা। সিটি কর্পোরেশনের নাগরিক সেবা সুনিশ্চিতের জন্য নিজস্ব একটি কল সেন্টার স্থাপন প্রয়োজন।
মতবিনিময়কালে প্রতিমন্ত্রী পলক বলেন, সবার সার্বিক সহযোগিতা ও প্রচেষ্টায় মেয়র খায়রুজ্জামান লিটন মহোদয়ের নেতৃত্বে রাজশাহী দেশের মধ্যে প্রথম স্মার্ট অ্যান্ড ইন্টেলিজেন্স সিটি হবে রাজশাহী। আগামীতে বিশে^র অন্যতম সেরা শহরে হবে রাজশাহী। এক বছরের মধ্যে রাসিকের সকল নাগরিক সেবা অনলাইনে প্রদানের লক্ষ্যে একটি এ্যাপস চালু করা হবে।
সভায় উপস্থিত ছিলেন, রাসিকের প্যানেল মেয়র-১ ও ১২ নম্বর ওয়ার্ড কাউন্সিলর সরিফুল ইসলাম বাবু, প্যানেল মেয়র ২ ও ১ নম্বর ওয়ার্ড কাউন্সিলর রজব আলী, প্যানেল মেয়র-৩ তাহেরা খাতুন মিলি, সাবেক দায়িত্বপ্রাপ্ত মেয়র ও ২১ নম্বর ওয়ার্ড কাউন্সিলর নিযাম উল আযিম প্রমুখ। এছাড়া উপস্থিত ছিলেন, জেলা প্রশাসক হামিদুল হক, রাসিকের প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা শাওগাতুল আলম, সচিব আবু হায়াত রহমতুল্লাহ, প্রধান প্রকৌশলী আশরাফুল হক, প্রধান স্বাস্থ্য কর্মকর্তা ডা. এফএএম আঞ্জুমান আরা বেগম, মাননীয় মেয়র‘র একান্ত সচিব আলমগীর কবিরসহ অন্যান্য কর্মকর্তাবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন।

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ