‘রিমোট মেডিকেল স্ক্রাইব’ ডিগ্রি দিল অগমেডিক্স

আপডেট: নভেম্বর ৯, ২০১৭, ১২:১৫ পূর্বাহ্ণ

সোনার দেশ ডেস্ক


যুক্তরাষ্ট্রভিত্তিক গুগল গ্লাস স্টার্টআপ ও স্বাস্থ্যসেবা কোম্পানি অগমেডিক্স বাংলাদেশে প্রথম ‘রিমোট মেডিকেল স্ক্রাইব’ ব্যাচের ২১ জন শিক্ষার্থীকে ডিগ্রি প্রদান করেছে। রোববার রাতে রাজধানীর ঢাকা ক্লাবে আয়োজিত এই অনুষ্ঠানের সহযোগিতায় ছিল তথ্যপ্রযুক্তি মন্ত্রণালয়ের এলআইসিটি এবং ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের এমসিএম বিভাগ।
অনুষ্ঠান প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি প্রতিমন্ত্রী জুনাইদ আহমদে পলক। বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন স্কয়ার ফার্মাসিউটিক্যালস লিমিটেডের ব্যবস্থাপনা পরিচালক তপন চৌধুরী।
অনুষ্ঠানে জুনাইদ আহমদে পলক বলেন, ডিজিটাল বাংলাদেশকে বিশ্বে প্রতিনিধিত্ব করছে অগমডেক্স। আইসিটি ডিভিশন ১০০ স্ক্রাইব তৈরি করেছে। এর মধ্যে অগমডেক্স ২০ জনকে নিয়োগ দিয়েছে। ২০১৮ সালে অগমডেক্স আরো ৫০০ স্ক্রাইব নিয়োগ দেবে।
প্রতিমন্ত্রী বলেন, ডিজিটাল বাংলাদেশের ২০২১ সালের মধ্যে আইসিটিতে পাঁচ বিলিয়ন রপ্তানি লক্ষ্যমাত্রা ধরা হয়েছে। এই খাতে আমরা ২০ লাখ তরুণকে কর্মসংস্থানের সুযোগ করে দেবো। দেশের বিদ্যমান হাইটেক পার্কগুলোতে অগমেডিক্সকে জায়গা বরাদ্দ নেয়ার আহবান জানিয়ে তিনি বলেন, অগমেডিক্স হলো বাংলাদেশের ফ্লাগশিপ।
অনুষ্ঠানে প্রতিষ্ঠানের সাফল্যগাঁথা ও ভবিষ্যৎ পরিকল্পনা তুলে ধরেন অগমেডিক্সের প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা ও সহ-প্রতিষ্ঠাতা ইয়ান শাকিল। এছাড়াও অগমেডিক্স বাংলাদশেরে কান্ট্রি ডিরেক্টর রাশেদ মুজিব নোমান সবার সঙ্গে বাংলাদেশের দৃষ্টিকোণ থেকে কোম্পানির মিশন, ভিশন ও ভবিষ্যৎ পরিকল্পনা আর স্ক্রাইব পেশার সম্ভাবনা সর্ম্পকে আলোচনা করেন।
অনুষ্ঠানে জানানো হয়, খুব শিগগির স্বাস্থ্যসেবায় স্ক্রাইব পেশার বিপ্লব ঘটতে চলেছে। বাংলাদেশে এই পেশার ব্যাপক সম্ভাবনার দ্বার উন্মেচিত হতে চলেছে। শুধু তাই নয়, অগমেডিক্স দেশের অনেক তরুণ-তরুণীকে পৃথিবীর অনেক সেরা চিকিৎসকের সঙ্গে কাজ করার সুযোগ তৈরি করে দিচ্ছে, যা ভবিষ্যতে তাদের ক্যারিয়ারে অপর সম্ভাবনা বয়ে আনবে। আমাদের স্থানীয় স্বাস্থ্যখাতেও এই জ্ঞান কাজে লাগানো যাবে। অগমেডিক্সকে আরো সংহত করার মাধ্যমে তারাও অগমেডিক্সে নিজেদের আরো ভালো অবস্থান তৈরি করতে পারবেন।
আমেরিকান স্বাস্থ্যসেবার এই জ্ঞান তারা বিভিন্ন অবস্থানে ব্যবহার করতে পারবেন। স্ক্রাইবরা সপ্তাহে ৪-৫ দিন কাজ করেন, আর এখানে অফিসের কাজ বাসায় নিয়ে যাবার কোনো ব্যাপার নেই। তাদের ভালো পারিশ্রমিক, হেলথ্ ইন্স্যুরেন্স, ফেস্টিভ্যাল বোনাস, খাবার ও যাতায়াত সুবিধা দেয়া হয়। একজন স্ক্রাইব ভবিষ্যতে সিনিয়র স্ক্রাইব, স্ক্রাইব ট্রেইনার, টিমলিডার, কোয়ালিটি স্পেশালিস্ট, ম্যানেজার থেকে শুরু করে আরো অনেক উচ্চ পদে যেতে পারেন।
২০১৩ সালের শুরুর দিকে অগমেডিক্সআর অ্যান্ড ইঞ্জিনিয়ারিং ডিপার্টমেন্টের কাজের মাধ্যমে বাংলাদেশ যাত্রা শুরু করে। এরপর থেকেই উল্লেখযোগ্য হারে এদেশে কার্যক্রম বৃদ্ধি পেতে থাকে। ২০১৬ সালে অগমেডিক্স ভবনকে ‘সফটওয়্যার টেকনোলজি পার্ক’ হিসেবে ঘোষণা করা হয়। ২০১৭ সালে এই ভবনে তাদের স্ক্রাইব কার্যক্রম শুরু হয়। একই বছর অগমেডিক্স জিতে নেয় বেসিস আইসিটি অ্যাওয়ার্ড ২০১৭ প্রথম রানারআপ (স্বাস্থ্য ও সুস্থতা বিভাগে)। ২০১৮ সাল নাগাদ স্ক্রাইব সংখ্যা ৫০০ তে উন্নীত হবে।
অগমেডিক্সের ভবিষ্যত পরিকল্পনার মধ্যে রয়েছে বাংলাদেশে হাজারো চাকরির সুযোগ তৈরি করা যায় অধিকাংশই হতে যাচ্ছে স্ক্রাইব পেশায়। আরো প্রচুর দক্ষ স্ক্রাইব তৈরির লক্ষ্য নিয়ে স্কয়ার গ্রুপের আওতাধীন এসআই-২ লিমিটেড ২০১৬ সালে অগমেডিক্সের সঙ্গে কাজ শুরু করে। অগমেডিক্সের সঙ্গে কিছুদিন পূর্বেই আরো যোগ হয়েছে এসিই ও সিলেক্ট মার্কেটিং নামক দুটি প্রতিষ্ঠান যারা আরো স্ক্রাইব তৈরিতে সাহায্য করবে।
প্রসঙ্গত, অগমেডিক্স স্বয়ংক্রিয় উপায়ে তথ্য লিপিবদ্ধ করার এক অনন্য পদ্ধতি। যা শুধু একটি সফটওয়্যার নয় বরং বিশেষভাবে প্রশিক্ষিত কিছু তরুণদের কাজের মাধ্যমে সম্পন্ন করা হয়। এর যাত্রা শুরু হয় ২০১২ সালে সানফ্রান্সিসকো শহরে, ইয়ান শাকিরে পরিকল্পনায়। এই স্বয়ংক্রিয় পদ্ধতিটি চিকিৎসকদের নিজ হাতে কম্পিউটারে তথ্য নথিভুক্তির হাত থেকে রক্ষা করে যার ফলে চিকিৎসকদের পূর্ণ মনোযোগ রোগীর ওপর দেয়া সম্ভব হয়ে ওঠে, নিশ্চিত হয় সঠিক সেবা। এখন একজন সেবাদাতা অ্যালফাবেট (গুগল) এর আবিষ্কৃত গুগলগ্লাস পড়ে রোগী দেখায় মনোযোগ দেন, ঠিক একই মুহূর্তে ইন্টারনেটের মাধ্যমে অন্য জায়গা থেকে একজন দক্ষ স্ক্রাইব, রোগীর সমস্ত তথ্য অত্যন্ত দ্রুততার সঙ্গে মান নিয়ন্ত্রণের মাধ্যমে নথিভুক্ত করে ফেলেন।
এমন উদ্ভাবনী কাজের জন্য ২০১৬ সালে স্বনামধন্য প্রতিষ্ঠান এফএএসটির বিবেচনায় আইডবএম ওয়াস্টন এবং জন হপকিংসের মতো প্রতিষ্ঠানকে পেছনে ফেলে অগমেডিক্স সবচেয়ে উদ্ভাবনী স্বাস্থ্যসেবা প্রতিষ্ঠান হিসেবে স্বীকৃতি পায়। বর্তমানে অগমেডিক্স আমেরিকার প্রায় এক হাজার চিকিৎসককে সেবাপ্রদান করছে। যেসব স্বনামধন্য স্বাস্থসেবা সংস্থা অগমেডিক্সের সেবা গ্রহণ করছে তার ভেতর রয়েছে সাটার হেলথ, ডিগনিটি হেলথ, সিএইচআই, ট্রাই হেলথ, ক্রিস্টিয়ানা কেয়ার এবং ইর্স্টান মেইন। রাইজিংবিডি