রেকর্ড সূচকে গড় লেনদেন হাজার কোটি টাকা

আপডেট: সেপ্টেম্বর ১১, ২০১৭, ১২:৫৯ পূর্বাহ্ণ

সোনার দেশ ডেস্ক


বিনিয়োগকারীদের সক্রিয়তায় লেনদেনের মন্দা কাটিয়ে সর্বোচ্চ সূচকের রেকর্ড গড়েছে দেশের প্রধান পুঁজিবাজার ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জ (ডিএসই)। এরই ধারাবাহিকতায় সপ্তাহের ব্যবধানে ডিএসই’র প্রধান মূল্য সূচক ১০৮.৫৫ পয়েন্ট বেড়ে ৬১১৪.৯৯ পয়েন্টে স্থিতি পেয়েছে।
অন্যদিকে লেনদেনের উত্থানে ডিএসই’র গড় লেনদেন ১ হাজার ৫৭ কোটি টাকা অতিক্রম করেছে। ডিএসই’র সাপ্তাহিক বাজার পর্যালোচনায় এ তথ্য জানা গেছে।
বাজার পর্যালোচনায় দেখা যায়, ঈদুল আজহা পরবর্তী রোববারে ঈদের ছুটি থাকায় সদ্য সমাপ্ত সপ্তাহে লেনদেন হয়েছে ৪ কার্যদিবস। তাই ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জের (ডিএসই) সার্বিক লেনদেন আগের সপ্তাহের তুলনায় ৬.৯১ শতাংশ কমেছে। আগের সপ্তাহে ডিএসইতে ৫ কার্যদিবস লেনদেন হয়েছিল।
সদ্য সমাপ্ত সপ্তাহে (৪ থেকে ৭ সেপ্টেম্বর) ডিএসইতে লেনদেন হয়েছে ৪ হাজার ২৩০ কোটি ৯৮ লাখ ৮৮ হাজার ৬৮৯ টাকা। এর আগের সপ্তাহে ডিএসইতে লেনদেন হয়েছিল ৪ হাজার ৫৪৪ কোটি ৯৭ লাখ ৭৪ হাজার ৮৪৬ টাকা।
সপ্তাহের ব্যবধানে ডিএসইতে দৈনিক গড় লেনদেন হয়েছে ১ হাজার ৫৭ কোটি ৭৪ লাখ টাকা। যা আগের সপ্তাহে ছিল ৯০৮ কোটি ৯৯ লাখ টাকা। অর্থাৎ সপ্তাহের ব্যবধানে ডিএসই’র গড় লেনদেন বেড়েছে ১৬.৩৬ টাকা।
এ সময় ডিএসইতে ১৩৭ কোটি ৯৪ লাখ ৪৭ হাজার ৫৭টি শেয়ার লেনদেন হয়েছে। যা আগের সপ্তাহের তুলনায় ০.৬৪ শতাংশ। যদিও শেয়ার হাওলা আগের সপ্তাহের তুলনায় ১৩.২৩ শতাংশ কমে ৬ লাখ ৭২৭ বারে নেমে এসেছে।
সপ্তাহজুড়ে ডিএসইতে লেনদেন হওয়া ৩৩৫টি কোম্পানি ও ফান্ডের মধ্যে ১৭৮টির দর বেড়েছে, কমেছে ১৩৬টির, অপরিবর্তিত ছিল ২০টির ও একটি প্রতিষ্ঠানের কোনো লেনদেন হয় নি।
সপ্তাহের শুরুতে ডিএসইএক্স সূচক ৬০০৬.৪৩ পয়েন্টে অবস্থান করছিল। কিন্তু সপ্তাহের ব্যবধানে বাজারের সার্বিক মূল্য সূচক ১০৮.৫৫ পয়েন্ট বেড়ে ৬১১৪.৯৯ পয়েন্টে স্থিতি পায়। এ সময় ডিএসইএস সূচক বেড়েছে ২৫.৭৭ পয়েন্ট ও ডিএস-৩০ সূচক বেড়েছে ৩৯.৭৮ পয়েন্ট।
সপ্তাহের ব্যবধানে ডিএসইতে টার্নওভার তালিকায় শীর্ষে উঠে এসেছে আর্থিক খাতের কোম্পানি লংকাবাংলা ফাইন্যান্স। গত সপ্তাহে কোম্পানিটির ১৬৯ কোটি ৬৫ লাখ ৯০ হাজার টাকার শেয়ার লেনদেন হয়েছে। টার্নওভার তালিকায় দ্বিতীয় অবস্থানে ছিল ন্যাশনাল ব্যাংক, কোম্পানিটির ১১৮ কোটি ৫১ লাখ টাকার শেয়ার লেনদেন হয়েছে। ১১২ কোটি ৬৯ লাখ টাকার শেয়ার লেনদেনের মধ্যে দিয়ে টার্নওভার তালিকায় তৃতীয় অবস্থানে ছিল ফরচুন সুজ।
টার্নওভার তালিকায় থাকা অন্যান্য কোম্পানিগুলো হলোÍআইএফআইসি ব্যাংক, প্রিমিয়ার ব্যাংক, সিটি ব্যাংক, এক্সিম ব্যাংক, বিবিএস ক্যাবলস, সিএনএ টেক্সটাইল ও স্কয়ার ফার্মা।-পরিবর্তনডটকম