লেবুর খোসা ফেলা মানা!

আপডেট: জুলাই ১৬, ২০১৭, ১২:৩৭ পূর্বাহ্ণ

সোনার দেশ ডেস্ক


খাবারে স্বাদ বাড়ানোর পাশাপাশি সৈন্দর্যতা এবং দেহের সচতলা বাড়াতে লেবুর কেনও বিকল্প হয় না বললেই চলে। শুধু লেবু নয়, লেবুর খোসাও কম যায় না। একাধিক গবেষণায় একথা প্রমাণিত হয়ে গেছে যে লেবুতে যে পরিমাণ ভিটামিন থাকে তার থেকে প্রায় ৫-১০ গুণ বেশি থাকে লেবুর খোসায়। সেই সঙ্গে থাকে প্রচুর পরিমাণে ক্যালসিয়াম,পটাশিয়াম, ভিটামিন সি এবং ফাইবার। এই সবকটি উপদানই নানা ভাবে শরীরে কাজে লেগে থাকে। এখানেই শেষ নয়। লেবুর খোসায় আরো কিছু উপকারিতা রযেছে।
১. ক্যান্সার রোগকে দূরে রাখে: লেবুর খোসায় উপস্থিত স্যালভেস্ট্রল কিউ ৪০ এবং লিমোনেন্স নামে দুটি উপাদান ক্যান্সার সেলের ধ্বংসে বিশেষ ভূমিকা পালন করে থাকে। ফলে নিয়মিত লেবুর খোসা খেলে শরীরে ক্যান্সার সেলের জন্ম নেওয়া কোনও সম্ভাবনাই থাকে না।
২. হাড় শক্ত হয়: প্রচুর মাত্রায় ভিটামিন সি এবং ক্যালসিয়াম থাকার কারণে লেবুর খোসা খাওয়া শুরু করলে ধীরে ধীরে হাড়ের স্বাস্থ্যের উন্নতি ঘটতে শুরু করে।
৩. মুখ গহ্বরের রোগের প্রকোপ কমবে: ভিটামিন সি-এর ঘাটতি হলে মুখ গহ্বর সংক্রান্ত একাধিক রোগের প্রকোপ বৃদ্ধি পায়। তাই তো নিয়মিত লেবুর খোসা খাওয়ার পরামর্শ দেন বিশেষজ্ঞরা।
৪. ওজন কমায়: পেকটিন নামে একটি উপাদান প্রচুর মাত্রায় থাকায় লেবুর খোসা নিয়মিত খেলে ওজন কমার প্রক্রিয়া ত্বরান্বিত হয়।
৫. হজমের উন্নতি ঘটায়: ফাইবার সমৃদ্ধি যে কোন খাবার হজম ক্ষমতার উন্নতিতে বিশেষ ভূমিকা পালন করে থাকে। আর এই উপাদানটি প্রচুর পরিমাণে রয়েছে লেবুর খেসায়।