শিবগঞ্জে বাল্যবিয়ে দেয়ার চেষ্টার দায়ে বর ও কনের পিতাসহ কাজির কারাদণ্ড || দুই প্রতিবেশির অর্থদণ্ড

আপডেট: অক্টোবর ২০, ২০১৯, ১২:৫৪ পূর্বাহ্ণ

শিবগঞ্জ প্রতিনিধি


চাঁপাইনবাবগঞ্জের শিবগঞ্জে বাল্যবিয়ে দেয়ার চেষ্টার অভিযোগে কাজির ছেলে মতিন, বর ও কনের পিতাসহ তিনজনকে জেল দিয়েছেন ভ্রাম্যমাণ আদালত। এ সময় বিয়েতে সহযোগিতা করার দায়ে বরের ২ প্রতিবেশিকেও অর্থদণ্ড দেয়া হয়।
গত শুক্রবার দিবাগত গভীর রাতে এ রায় প্রদান করেন ভ্রাম্যমাণ আদালতের বিচারক উপজেলা নির্বার্হী অফিসার চৌধুরী রওশন ইসলাম। দণ্ডপ্রাপ্তরা হলো চককীর্ত্তি ইউনিয়নের কাজী আ. মতিনের ছেলে মামুনুর রশিদ, বরের পিতা একই ইউনিয়নের বালুচর গ্রামের মো. শাহিন আলী (৪০),কনের পিতা বিমর্ষী গ্রামের ফজর আলী(৩৭) এবং অর্থদণ্ডপ্রাপ্তরা হলো বরের প্রতিবেশী সাদ্দাম হোসেন(৩১) ও জেন্টু আলী।
আদালত কাজির ছেলেকে ২ বছর, বর ও কনের পিতাদের ১ বছর করে এবং প্রতিবেশী ২ সহযোগিকে ২ হাজার টাকা করে জরিমানা অনাদায়ে ১০ দিনের জেল প্রদান করেন। তবে অভিযানের বিষয়টি টের পেয়ে বর পালিয়ে যায়।
ভ্রাম্যমাণ আদালতের বিচারক চৌধুরী রওশন ইসলাম জানান, শুক্রবার গোপনে বর ও কনের ২ পিতা তাদের বন্ধুত্ব আরো মজবুত করতে চককীর্ত্তি ইউনিয়নের বিমষী গ্রামে কনের বাড়িতে বিয়ের আয়োজন করে। বিষয়টি জানতে পেরে সেখানে অভিযান চালিয়ে বাল্যবিয়ে দেয়ার অপরাধে কাজির ছেলে মামুন, বরের পিতা শাহীন, কনের পিতা ফজর আলী ও একই ইউনিয়নের বালুচর গ্রামের বরের ২ প্রতিবেশি সাদ্দাম ও জেন্টুকে আটক করা হয়। পরে শুক্রবার রাত ১১ টার দিকে ভ্রাম্যমাণ আদালতে অভিযুক্তদের হাজির করা হলে বাল্যবিয়ে দেয়ার বিষয়টি নিশ্চিত হয়ে কাজির ছেলেকে বাল্যবিয়ে পড়ানোর চেষ্টার অভিযোগে ২ বছর, বর ও কনের পিতা এ দুজনকে এক বছর করে কারাদণ্ড এবং বরের ২ প্রতিবেশিকে ২ হাজার টাকা করে জরিমানা করা হয়। শনিবার সকালে দণ্ডপ্রাপ্তদের জেলহাজতে প্রেরণ করা হয়।

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ