সংবাদ প্রকাশের পর বন্ধ হলো শিবগঞ্জের হাটবাজার ও জনসমাগম

আপডেট: March 28, 2020, 2:54 pm

শিবগঞ্জ প্রতিনিধি


শিবগঞ্জে করোনা প্রতিরোধে সচেতনতামূলক প্রচারণা চালায় উপজেলা জেলা প্রশাসন- সোনার দেশ

শিবগঞ্জে কমছে না জনাসমাগম শিরোনামে দৈনিক ইত্তেফাক ও দৈনিক সোনার দেশ সহ বিভিন্ন সংবাদ মাধ্যমে সংবাদ প্রকাশের পর প্রশাসনের টনক নড়েছে। সচেততনা বৃদ্ধিতে অভিযান আরো বেগমান হয়েছে। কমতে শুরু করেছে জনসমাগম। শূন্য হতে শুরু করেছে উপজেলার বিভিন্ন হাট বাজার।
সরজমিনে দেখা গেছে শুক্রবার ও শনিবার দিনব্যাপী উপজেলায় করোনা ভাইরাস প্রতিরোধে শিবগঞ্জ উপজেলা মনিটরিং টিমের আহ্বায়ক উপজেলা প্রাণী সম্পদ কর্মকর্তা ডা. রণজিত চন্দ্র সিংহ, উপজেলা প্রকল্প বাস্তবায়ন অফিসার আরিফুর ইসলাম ও উপজেলা সমাজ সেবা কর্মকর্তা কাঞ্জন কুমার দাস সকাল থেকে সন্ধ্যা পর্যন্ত উপজেলার মনাকষা, দূর্লভপুর, বিনোদপুর, শ্যামপুর, মোবারকপুর, দাইপুখুরিয়া, ছত্রাজিতপুর, নয়ালাভাঙ্গা, চককীর্তি, ধাইনগর, শাহাবাজপুর, ঘোড়াপাখিয়া, পাকা, উজিরপুর ও শিবগঞ্জ পৌরসভার বিভিন্ন হাটবাজারে গিয়ে গ্রাম পুলিশের সহায়তায় একমাত্র ওষুধ ও কাঁচা পণ্যের দোকান ছাড়া সবগুলো দোকান বন্ধ করে দেন। সাধারণ মানুষকে ঘরে ফিরে যাওয়ার পরামর্শ দেন। এমনকি গ্রামের মধ্যের দোকনাপাট বন্ধ করে দেন। বন্ধ করা হয় গ্রামের মেেধ্য ক্যারামসহ বিভিন্ন ধরনের খেলাধূলা। সাধারণ মানুষকে বুঝানো হয় করোনা ভাইরাসের ভয়াবহতা সম্পর্কে। তাদের এ অভিযানে গ্রামের মানুষের মধ্যে অনেকটা সচেতনতার সৃষ্টি হয়েছে । শুধু তাই নয় মনিটরিং টিম প্রতিটি ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান, মেম্বার ও গ্রাম পুলিশদের নির্দেশনা দিয়েছেন যে প্রতিদিনই সকালে থেকে দিনব্যাপী প্রতিটি ইউনিয়নের সচিবের বা চেয়ারম্যানের নেতৃত্বে একটি টিম নিজ ইউনিয়নের প্রতিটি হাটবাজার ও দোকান বন্ধ ও জনাসমাগম না করার জন্য সচেতনতা সৃষ্টিতে কাজ করবে ।
সে মোতাবেক আজ শনিবার সকাল থেকে মনাকষা ইউপি সচিব আবদুর রকিব ও গ্রাম পুলিশ জাহাঙ্গীরের নেতৃত্বে মনাকষা বাজারসহ বিভিন্নএলাকায় অভিযান চলছে। অন্যান্য ইউনিয়নের চেয়ারম্যান, সচিব, মেম্বার ও গ্রামপুলিশরা একইভাবে কাজ করছে।
সরজমিনে দেখা গেছে, বর্তমানে বাজারগুলো জনশূন্য রয়েছে। হাসপাতালে ও কাঁচাবাজারে মানুষ নির্দিষ্ট দূরত্ব বজায় রেখে চলাফেরা করছে। উপজেলার বিনোদপুর, শ্যামপুর, দূর্লভপুর, মোবাররকপুর, দাইপুখুরিয়া, কানসাট, চককীর্তিসহ বিভিন্ন ইউনিয়নে ইউপি চেয়ারম্যান-সচিব ও গ্রাম পুলিশদের তৎপরতা দিনব্যাপী চলছে।
এব্যাপারে উপজেলা প্রকল্প বাস্তবায়ন অফিসার আরিফুলইসলাম জানান, করোনা ভাইরাসের ভয়াবহতা সম্পর্কে আতঙ্ক সৃষ্টি না করে বরং সচেতনতার উদ্দেশ্যে তিন সদস্য বিশিষ্ট মনিটরিং টিম কাজ করে যাচ্ছি। এক্ষেত্রে আমরা অনেকট সফল হয়েছি।
অন্যদিকে উপজেলা সমাজ সেবা কর্মকর্তা কাঞ্চন কুমার দাস জানান, গতকাল শুক্রবার উপজেলার ৭-৮টি ইউনিয়নের দূর্গম এলাকাসহ সব এলাকাতে অভিযান চালিয়ে সচেতনতামূলক পরামর্শ দেয়া হয়েছে এবং শত শত দোকান বন্ধ করা হয়েছে। আজ শনিবারও আমরা একইভাবে অভিযান চলছে। পরিস্থিতির উন্নতি না হওয়া পর্যন্ত আমাদের সচেতনতা অভিযান চলবে।