বঙ্গবন্ধুর শততম জন্মবার্ষিকী

সংরক্ষিত আসনে এমপি হতে চান বিএনপি নেত্রী শুচি

আপডেট: May 15, 2019, 12:55 am

শিবগঞ্জ প্রতিনিধি


বিএনপির নেত্রী মাসউদা আফরোজ হক শুচি-সোনার দেশ

সংসদের প্রথম অধিবেশনেই সংরক্ষিত আসনের সংসদ সদস্যদের যোগদান নিশ্চিত করতে চায় বিএনপি। এর মধ্যেই সংরক্ষিত নারী আসনে মনোনয়ন নিয়ে তোড়জোড় শুরু করেছে দলটি। সংরক্ষিত আসনে রাজনীতিক, ব্যবসায়ী ও সমাজসেবক হিসেবে খ্যাতি পাওয়া নারী নেত্রী মাসউদা আফরোজ হক শুচি বিএনপির সাংসদ হওয়ার দৌড় ঝাঁপ শুরু করেছেন। শুচি বর্তমানে জেলার নাচোল উপজেলা মহিলা দলের সভাপতি। এছাড়া জেলা মহিলা দলের প্রস্তাবিত কমিটির সভাপতির দায়িত্ব পালন করছেন। তিনি জাতীয়তাবাদের স্বপক্ষের শক্তিকে ঐক্যবদ্ধ ও শক্তিশালী করতে জেলার প্রতিটি অঞ্চলে ছুটে চলেছেন। রাজনীতির সুবাদে বিভিন্ন সময়ে জেলার অনেক অসহায় মানুষের পাশে দাঁড়িয়েছেন। সম্প্রতি জেলার বিভিন্ন প্রান্তে তার পৃষ্ঠপোষকতায় অনেক দরিদ্র ছাত্র-ছাত্রী উচ্চশিক্ষা অর্জন করে চিকিৎসক ও প্রকৌশলী হয়েছেন। গত জাতীয় সংসদ নির্বাচনে চাঁপাইনবাবগঞ্জ-২ আসনে দলীয় প্রার্থী ও জেলা বিএনপির সাধারণ সম্পাদক আমিনুল হককে বিজয়ী করতে দিনরাত ছুটে বেড়িয়েছেন। তিনি সংসদে গিয়ে বিএনপি চেয়ারপার্সন বেগম খালেদা জিয়ার মুক্তির জন্য আওয়াজ তুলতে চান। তবে বিএনপি থেকে একাধিক প্রার্থীর মনোনয়ন চাওয়ার বিষয়টি ইতিবাচক উল্লেখ করে তিনি বলেন, যারা মনোনয়ন চাইচ্ছেন তারা অবশ্যই যোগ্য বলে আমি মনে করি। এতোগুলো যোগ্যতা সম্পন্ন মানুষ একসঙ্গে কাজ করলে আগামীতে অপশক্তির বিরুদ্ধে মোকাবেলা করা সম্ভব হবে বলে মন্তব্য করেন তিনি। অনেকেই ইতোমধ্যে দলীয় মনোনয়ন সংগ্রহ করেছেন। এখন শুধু অপেক্ষা দল কাকে মনোনয়ন দেবেন। তবে যোগ্যতার বিচার বিশ্লেষণ করে চাঁপাইনবাবগঞ্জে সংরক্ষিত মহিলা সংসদ নির্বাচিত করবেন এমনটি প্রত্যাশা প্রতিদ্বন্দ্বীদের। বিদ্যমান আইন অনুযায়ী প্রতি ৬ আসনে একজন সংরক্ষিত মহিলা এমপি নির্বাচিত করার বিধান। দলীয় সূত্রে জানা যায়, সংরক্ষিত মহিলা আসনে যোগ্য প্রার্থীরাই এগিয়ে থাকবে। যারা দলের ও দূর্দিনে ত্যাগ স্বীকার করেছেন, বিভিন্ন কাজে অবদান রেখেছেন, দলের ও দলের সহযোগী সংগঠনে নিষ্ঠার সঙ্গে দায়িত্ব পালন করেছেন এমন নেত্রীরা বিএনপির মনোনয়ন পাবেন। নারী নেত্রী শুচি বলেন, রাজনীতিতে আসতে বাবার বৃহৎ রাজনৈতিক কর্মকা- আমাকে অনুপ্রেরণা যুগিয়েছে। বাবার হাত ধরেই রাজনীতি শুরু হলেও শুচির আনুষ্ঠানিক রাজনীতি পথচলা শুরু হয় উচ্চ মাধ্যমিকে অধ্যায়নের সময়। ওই সময় তিনি জেলা ছাত্রদলের সহ-সম্পাদিকা হিসেবে নির্বাচিত হন। তিনি চাঁপাইনবাবগঞ্জের প্রান্তিক জনগণের সামগ্রিক উন্নয়ন, নির্যাতিত নিপীড়িত মানুষের অধিকার প্রতিষ্ঠা, কৃষি ও শিল্প সম্প্রসারণে কাজ করে দেখিয়েছেন বিএনপির প্রতিষ্ঠাতা জিয়ার প্রতি তার ভালবাসা ও দর্শন। বিএনপির একজন সক্রিয় কর্মী হিসেবে বলেন, একমাত্র রাজনীতির মাধ্যমেই সবচেয়ে বেশি মানুষকে সেবা দেওয়া সম্ভব। দলের জন্য, মানুষের জন্য কাজ করছি এবং নির্যাতিত নেতাকর্মীদের কাছে সব সময়ই এগিয়ে গেছি, তাদের পাশে দাঁড়িয়েছি। পিছু পা হয়নি কখনো। সদ্য সমাপ্ত একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনের প্রচারণায় বিশেষ ভূমিকা রেখেছিলেন মাসউদা আফরোজ হক শুচি।

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ