সকাল-বিকেলে ফ্লাইট চালু করতে বিমান প্রতিমন্ত্রীকে রাসিক মেয়রের ডিও প্রদান

আপডেট: সেপ্টেম্বর ২৭, ২০১৯, ১:৪২ পূর্বাহ্ণ

নিজস্ব প্রতিবেদক


ঢাকায় বিমান ও পর্যটন প্রতিমন্ত্রী শাহবুব আলীকে ডিও লেটার দেন সিটি মেয়র এএইচএম খায়রুজ্জামান লিটন-সোনার দেশ

কর্মজীবী মানুষদের কথা বিবেচনা করে অফিস সময়ের সাথে সামঞ্জস্য রেখে প্রতিদিন সকাল ও বিকেলে ফ্লাইট করতে বেসামরিক বিমান পরিবহন পর্যটন মন্ত্রণালয়ের প্রতিমন্ত্রী মাহবুব আলীকে ডিও লেটার প্রদান করেছেন রাজশাহী সিটি করপোরেশনের মেয়র এএইচএম খায়রুজ্জামান লিটন। গতকাল বৃহস্পতিবার দুপুরে বিমান প্রতিমন্ত্রীর কার্যালয়ে তাঁর সাথে বৈঠককালে তাকে ডিও দেন মেয়র। ডিও লেটারে রাসিক মেয়র খায়রুজ্জামান লিটন উল্লেখ করেন, ‘মাননীয় প্রধানমন্ত্রী ঘোষিত রূপকল্প ২০২০-২০২১ এর সফল বাস্তবায়ন, ২০৩০ সালের মধ্যে টেকসই উন্নয়নের (এসডিজি) অভীষ্ট অর্জন এবং ২০৪১ সালের মধ্যে একটি উন্নত, সমৃদ্ধ ও আত্মমর্যাদাশীল দেশ বিনির্মাণে যোগাযোগ ব্যবস্থার উন্নয়নের বিকল্প নেই। রাজশাহী বাংলাদেশের উত্তরাঞ্চলের একটি ব্যস্ততম বিভাগীয় শহর। পদ্মা নদীর পাড়ে অবস্থিত একটি প্রাচীন ও ঐতিহ্যবাহী জনপদ। এই জনপদকে এগিয়ে নেয়ার জন্য সড়ক ও রেল যোগাযোগের পাশাপাশি আকাশ পথে যোগাযোগ বৃদ্ধি করা আশু প্রয়োজন। দেশের অভূতপূর্ব অর্থনৈতিক অগ্রযাত্রার কারণে রাজশাহী মহানগরীর কর্মব্যস্ততা বৃদ্ধি পেয়েছে। প্রতি সপ্তাহেই অনেক মানুষ রাজশাহী-ঢাকা-রাজশাহী যাতায়াত করে থাকেন। রাজধানী ঢাকার সাথে রাজশাহীর যোগাযোগের জন্য বাস, ট্রেন ও বিমান তিনটি মাধ্যমই বিদ্যমান। ট্রেন ও বাস যোগাযোগে সময় বেশি ব্যয় হওয়ায় মানুষ আকাশ পথে যোগাযোগের উপর গুরুত্ব দিয়েছে। মেয়র আরো উল্লেখ করেন, বর্তমানে রাজশাহী-ঢাকা-রাজশাহী রুটে বাংলাদেশ বিমান, নভোএয়ার ও ইউএস বাংলা এয়ারলাইন্স সার্ভিস চালু রয়েছে। তবে এর কোনোটারই সকাল ৮:৩০/৯:০০ ঘটিকায় এবং বিকেল ৫:৩০/৬:৩০ ঘটিকায় যাতায়াতের ফ্লাইট চলমান নেই। রাজশাহীর কর্মজীবী মানুষ অফিস চলাকালীন যাতে ঢাকাতে গিয়ে অফিস শেষ করে ওইদিনই আবার রাজশাহীতে ফিরে আসতে পারে; আবার ঢাকা থেকে রাজশাহী এসে অফিস করে পনুরায় ঢাকাতে ফিরে যেতে পারেন- এরকম প্রতিদিন দুইটি ফ্লাইট সকাল ও বিকালে (অফিস সময়ের সাথে সামঞ্জস্য রেখে) চালু করা একান্ত প্রয়োজন। এমতাবস্থায় প্রতি কর্মদিবসে অফিস সময়ের সাথে সামঞ্জস্য রেখে সকাল ও বিকেলে ঢাকা এবং রাজশাহীর মধ্যে যুগপৎ বিমান যোগাযোগ বৃদ্ধির প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণের জন্য সবিনয় অনুরোধ করা হলো।
এদিকে ডিও প্রদানের পর উল্লিখিত বিষয়ে বিমান প্রতিমন্ত্রীর সাথে মেয়রের আলাপ-আলোচনা হয়। এর পরিপ্রেক্ষিতে প্রতিমন্ত্রী মাহবুব আলী এ ব্যাপারে দ্রুত প্রয়োজনীয় পদক্ষেপ গ্রহণে বেসামরিক বিমান পরিবহন পর্যটন মন্ত্রণালয়ের সচিব মো. মহিবুল হককে নির্দেশ প্রদান করেন।
এ সময় সচিব মহিবুল হক রাজশাহীর হয়রত শাহ মখদুম বিমান বন্দরে নতুন দ্বিতল টার্মিনাল ভবন নির্মাণ এবং রানওয়ে সম্প্রসারণ কাজের অগ্রগতি বিষয়ে মেয়রকে অবহিত করেন।

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ