সবচেয়ে আবেদনময়ী পুরুষ ইদ্রিস এলবা

আপডেট: নভেম্বর ৮, ২০১৮, ১২:১৪ পূর্বাহ্ণ

সোনার দেশ ডেস্ক


ব্রিটিশ অভিনেতা, প্রযোজক ও সুরকার হিসেবে ইদ্রিস এলবা সুনাম কুড়িয়েছেন বহুবার। বিবিসি টেলিভিশন ডিটেকটিভ সিরিজ লুথারে মূল চরিত্রে তার অনবদ্য অভিনয়ের জন্য পেয়েছেন গোল্ডেন গ্লোব অ্যাওয়ার্ড। এছাড়া থর চলচ্চিত্রে নর্স গড চরিত্রে তার অভিনয় বাহবা কুড়িয়েছে। নিজের কর্মগুণে বহুবার শিরোনামে উঠে এসেছে তার নাম। তবে এবার ব্রিটিশ এ অভিনেতা শিরোনাম হয়েছেন সম্পূর্ণ ভিন্ন কারণে। পিপল ম্যাগাজিনে ৪৬ বছর বয়সী এ অভিনেতাকে অভিহিত করা হয়েছে জীবিত অবস্থায় সবচেয়ে আবেদনময়ী পুরুষ হিসেবে।
গেল সোমবার পিপল ম্যাগাজিনের এবারের সংখ্যার প্রচ্ছদে শোভা পেয়েছে ব্রিটিশ এ অভিনেতার ছবি। সেসঙ্গে জুড়ে দেয়া হয়েছে ‘সেক্সিয়েস্ট ম্যান অ্যালাইভ’ লাইনটি। লন্ডনে জন্মগ্রহণ করা এ অভিনেতার নাকি নিজেরই বিশ্বাস হয়নি পিপল ম্যাগাজিনের দেয়া এমন তকমা।
ইদ্রিস এলবা বলেন, যখন প্রথম জানতে পেরেছি, আমার মনে হয়েছে, আসলেই এমনটা হয়েছে। আমি আয়নার দিকে তাকিয়ে নিজেকে খানিকটা ভালোভাবে দেখলাম। দেখে মনে হলো আসলেই আজ আমাকে কিঞ্চিৎ আবেদনময়ী বলেই মনে হচ্ছে। সত্যিকার অর্থে এটা বেশ ভালো অনুভূতি। আমার জন্য বেশ ভালো রকম চমক ছিল এটি।
চলতি বছর পিপল ম্যাগাজিন কর্তৃক একই তকমা নিজের করে নেয়া তারকার দলে রয়েছেন ব্লেক শেলটন, ক্রিস হেমসওয়ার্থ, অ্যাডাম লেভাইন, জর্জ ক্লুনি, চ্যানিং টটাম। ১৯৮৫ সালে পিপল ম্যাগাজিন এ বিভাগ চালু করার পর শ্বেতাঙ্গ নন এবং আফ্রিকান আমেরিকান হিসেবে শুধু দুজন তারকা সেক্সিয়েস্ট ম্যান অ্যালাইভ তকমা পান। তারা হচ্ছেন ডেনজেল ওয়াশিংটন ও ডোয়াইন দ্য রক জনসন।
গেল আগস্টে হলিউডজুড়ে একটা কথা বেশ শোনা যাচ্ছিল, পরবর্তী জেমস বন্ড সিরিজে মূল চরিত্রে প্রথম কৃষ্ণাঙ্গ হিসেবে দেখা যাবে এলবাকে। তবে এসব গুজব উড়িয়ে দিয়ে এলবা জানান, এমন কিছুই হতে যাচ্ছে না।
উল্লেখ্য, ইদ্রিস এলবার বেড়ে ওঠা লন্ডনে। সেখানেই বয়েজ স্কুলে পড়াশোনা করেছেন তিনি। ছেলেবেলায় স্কুলে একজন অ্যাথলিট হিসেবেই পরিচিত ছিলেন বর্তমান সময়ের আলোচিত এ অভিনেতা। ফুটবল, বাস্কেটবল, ক্রিকেট, হকি, রাগবি সব খেলাতেই পারদর্শিতা রয়েছে তার। এমনকি ছেলেবেলায় ভেবেছিলেন বড় হয়ে খেলোয়াড়ই হবেন। এছাড়া ৬ ফুট ৩ ইঞ্চি উচ্চতার এ অভিনেতা খেলোয়াড় কিংবা অভিনেতা না হলে হতে পারতেন জনপ্রিয় একজন ডিজে।
সূত্র: এন্টারটেইনমেন্ট উইকলি