সরকারি ব্যয়ের ১৫ শতাংশ শিক্ষাখাতে বরাদ্দের সুপারিশ করেছে ইউনেস্কো

আপডেট: মে ১৭, ২০১৮, ১২:২৮ পূর্বাহ্ণ

সোনার দেশ ডেস্ক


জাতিসংঘের শিক্ষা, বিজ্ঞান ও সংস্কৃতি সংস্থা (ইউনেস্কো) বিশ্বের সরকারগুলোকে অন্তত জিডিপি’র ৪ শতাংশ অথবা মোট সরকারি ব্যয়ের ১৫ শতাংশ শিক্ষাখাতে ব্যয়ের আহ্বান জানিয়েছেন।
‘আমাদের অঙ্গীকার পূরণে শিক্ষায় জবাবদিহিতা’ এই প্রতিপাদ্য নিয়ে ইউনেস্কোর ‘গ্লোবাল এডুকেশন মনিটরিং রিপোর্ট ২০১৭-১৮’ শীর্ষক বার্ষিক প্রতিবেদনে একথা বলা হয়।
আগামী মাসের প্রথম দিকে বাংলাদেশের জাতীয় বাজেট ঘোষণার প্রাক্কালে গতকাল বুধবার রাজধানীতে এক অনুষ্ঠানে এই রিপোর্ট প্রকাশ করা হয়।
ইউনেস্কো ঢাকা এবং বাংলাদেশ ন্যাশনাল কমিশনার ফর ইউনেস্কোর (বিএনসিইউ) যৌথ উদ্যোগে আজ বাংলাদেশ ব্যুরো অব এডুকেশনাল ইনফরমেশন অ্যান্ড স্টাটিসস্টিকস (ব্যানবেইস) সম্মেলন কক্ষে এ অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়।
শিক্ষামন্ত্রী নুরুল ইসলা নাহিদ অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে বক্তব্য রাখেন। এতে সভাপতিত্ব করেন মাধ্যমিক ও উচ্চ শিক্ষা বিভাগের সচিব মো. সোহরাব হোসেন।
টেকসই উন্নয়ন লক্ষ্যসমূহ (এসডিজি)-৪ বাস্তবায়নের অঙ্গীকার পূরণে বাংলাদেশসহ বিশ্বের দেশগুলোর জন্য কিছু প্রধান সুপারিশ তুলে ধরেছে ইউনেস্কো।
সুপারিশগুলোর মধ্যে রয়েছে কার্যকর সুযোগ-সুবিধার সৃষ্টি এবং আস্থা তৈরির জন্য প্রতিনিধি সম্পৃক্তকরণ, বার্ষিক শিক্ষা মনিটরিং রিপোর্ট প্রকাশ, শিক্ষাখাতে কার্যকর উন্নয়ন পরিকল্পনা গ্রহণ এবং স্বচ্ছ বাজেট প্রণয়ন, দক্ষ পরিচালনা ও মনিটরিং ব্যবস্থা গ্রহণ।
অনুষ্ঠানে নুরুল ইসলাম নাহিদ বলেন, ‘শিক্ষাখাতে আমাদের বিপুল সাফল্য আছে। তবে শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে মানসম্মত শিক্ষক নিশ্চিত করা এখন একটি বিরাট চ্যালেঞ্জ।’
তিনি বলেন, এক সময় নারী শিক্ষা নিষিদ্ধ ছিল তবে বর্তমানে মেয়েরা স্কুলে যাচ্ছে এবং তারা ছেলেদের চেয়ে এগিয়ে রয়েছে।
শিক্ষাখাতের সমালোচকদের উদ্দেশ্যে তিনি বলেন, সংশোধনের জন্য আমাদের যথাযথ পরামর্শ দিন। আমরা তা গ্রহণ করবো।
তথ্যসূত্র: বাসস