সাংবাদিক হিমুকে হুমকি ধামকি

আপডেট: ফেব্রুয়ারি ২, ২০১৮, ১:০৩ পূর্বাহ্ণ

নিজস্ব প্রতিবেদক


আজ (বৃহস্পতিবা) সকালে ঘুম ভাঙল অপরিচিত দুটি ফোনে। ধরতে পারিনি। তারা দুজনই হয়ত দরজায় নক করল। বলল আমরা র‌্যাব থেকে এসেছি। একজন সার্জেন্ট, আরেকজন কন্সটেবল। আপনাকে আমাদের সাথে যেতে হবে র‌্যাব অফিসে, সিও সাহেব কথা বলবেন। অবাক হইনি। ভয় পেলাম। তারা র‌্যাব থেকেই এসেছে কি না বুঝতে পারছিলাম না। সিও সাহেব এর আগেও কতবার সরাসরিই কথা বলেছেন আমার সাথে। এভাবে তো ডাকেননি। তাছাড়া আজকের স্টারে আমার একটা রিপোর্ট ছেপেছে। আমি তাদের সাথে গেলাম না। তারা চলে গেল। একজন অস¤পূর্ণ বাক্যে বলল, এখন চলে যাচ্ছি…।
গতকাল বৃহস্পতিবার সকালে এই স্ট্যাটাসটি দেন, ইংরেজি দৈনিক ডেইলি স্টারের রাজশাহীর স্টাফ রিপোর্টার আনোয়ার আলী হিমু।
এর দুই ঘণ্টা পর আরেকটি স্ট্যাটাস দেন তিনি। সেখানে লিখেছেন, ‘কিছুক্ষণ আগে আমার বড় মেয়ে দেখল যে একজন লোক বাইনোকুলার দিয়ে আমাদের জানালায় নজর রাখছে। মেয়ে বুঝতে পেরেছে দেখে লোকটি পালিয়ে গেল। এসব কি ?
খোঁজ নিয়ে জানা গেছে, গতকাল বৃহস্পতিবার ডেইলি স্টারে ‘আন্ডার প্রেসার টু ড্রপ কেস’ শিরোনামে একটি প্রতিবেদন প্রকাশ পায়। সেখানে বলা আছে, র‌্যাবের টরচারে নিহত মান্দার কৈবর্তপাড়ার মাজহারুল ইসলামের স্ত্রীকে মামলা তুলে নিতে হুমকি দিচ্ছেন র‌্যাব-৫ এর সিও লে. কর্নেল মাহবুবুল আলম বলে প্রতিবেদনে উল্লেখ করা হয়েছে। এর আগে র‌্যাবের টরচারে নিহত মাজহারুল ইসলাম বলে আরেকটি প্রতিবেদন প্রকাশ পায়।
এসব প্রতিবেদন প্রকাশ পাবার পর থেকেই র‌্যাব থেকে তাকে হুমকি প্রদান করা হচ্ছে। বিশেষ করে বৃহস্পতিবার সকালে র‌্যাব পরিচয়ে দরজায় করাঘাত করা। এর দুই ঘণ্টা পর আবার বাইনোকুলার দিয়ে বাড়ির দিকে নজরদারি রাখা।
আনোয়ার আলী জানান, ঘটনার পর থেকেই আমরা চরম আতঙ্কের মধ্যে দিন কাটাচ্ছি। দিনের বেলাতেও বাড়ির দরজা-জানালা বন্ধ করে ঘরের মধ্যে থাকতে হচ্ছে।