সাপাহারে আওয়ামী লীগ নেতার বিরুদ্ধে মার্কেট দখলের অভিযোগ

আপডেট: জানুয়ারি ১১, ২০১৮, ১২:১৯ পূর্বাহ্ণ

নওগাঁ প্রতিনিধি


নওগাঁর সাপাহার উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক সাহাজাহান আলীর বিরুদ্ধে একটি মার্কেট দখলের অভিযোগ উঠেছে। গত সোমবার লোকজন নিয়ে উপজেলা সদরের জিরোপয়েন্ট এলাকায় গিয়াস মার্কেট দখলে নেন ওই আওয়ামী লীগ নেতা।
এ বিষয়ে গত মঙ্গলবার নওগাঁর সাপাহার সহকারী সিনিয়র জজ আদালতে ওই মার্কেটের মালিক মৃত গিয়াস উদ্দিন মণ্ডলের স্ত্রী হাজেরা বেগম বাদী হয়ে মামলা করেন। মামলার আবেদন গ্রহণ করে আদালত মামলার বিবাদীদের আদালতের হাজির হয়ে আগামী এক সপ্তার মধ্যে কারণ দর্শানোর নির্দেশ দেন।
মামলার আরজি সূত্রে জানা যায়, সাপাহার মৌজার বর্তমান জিরোপয়েন্ট এলাকায় অবস্থিত ৪ শতাংশ জমি মৃত গিয়াস উদ্দিন মণ্ডল ১৯৮১ সালে জমির মালিক সফি উদ্দিন মণ্ডলের অংশীদারদের কাছ থেকে কিনে নেন। ১৯৮৪ সালে ক্রয় সূত্রে পাওয়া ওই জমিতে মার্কেট নির্মাণ করেন তিনি। যা ‘গিয়াস মার্কেট’ নামে পরিচিত। গিয়াস উদ্দীন মারা যাওয়ার পর তার ওয়ারিশরা ওই মার্কেট ভাড়া দিয়ে ভোগ দখল করে আসছিলেন। কিন্তু গত সোমবার সাহাজান আলী ও তার ভাই ইসমাইল হোসেনের নেতৃত্বে একদল সন্ত্রাসী মার্কেটের ভাড়াটিয়াদের বের করে দিয়ে মার্কেটে তালা দিয়ে দখলে নেন।
মার্কেটের মালিক গিয়াস উদ্দিনের ছেলে ওসমান গনি বলেন, প্রায় ৩৫ বছর ধরে আমরা ওই জমি ভোগদখল করে আসছি। এতদিন কোনো কথা নেই, কোনো প্রকার আইনি প্রক্রিয়া ছাড়া হঠাৎ করে গায়ের জোরে সাহাজাহান আলী আমাদের মার্কেট দখল করে নিয়েছেন। তাৎক্ষণিকভাবে থানায় অভিযোগ করেও কোনো প্রতিকার পাইনি। বাধ্য হয়ে আদালতের দ্বারস্থ হয়েছি।
অভিযোগের বিষয়ে জানতে চাইলে মুঠোফোনে সাপহার উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক সাহাজাহান আলী বলেন, ‘তারা আমার বিরুদ্ধে মামলা করেছেন। আমার কাগজপত্র থাকলে আদালতেই তার জবাব দেব। এ বিষয়ে আর কিছু বলতে চাই না।’
এ বিষয়ে সাপাহার থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) শামসুল আলম শাহ্ বলেন, ‘এখন পর্যন্ত আদালতের কোনো নির্দেশনা পাইনি। পেলে তদন্ত করে অবশ্যই প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেয়া হবে।’