সাবেক যুব ও ক্রীড়া প্রতিমন্ত্রী আহাদ আলীর হামলার ঘটনায় পাল্টাপাল্টি মামলা

আপডেট: জুলাই ১১, ২০১৮, ১২:৪৪ পূর্বাহ্ণ

নাটোর অফিস


নাটোরে সাবেক যুব ও ক্রীড়া প্রতিমন্ত্রী ও জেলা আওয়ামীলীগের সহ সভাপতি আহাদ আলী সরকারের গণসংযোগে সন্ত্রাসী হামলার ঘটনায় নাটোর সদর থানায় পাল্টাপাল্টি অভিযোগ দাখিল করা হলেও পুলিশ এ রিপোর্ট রেখা পর্যন্ত কোন মামলা রেকর্ড করে নি । গত সোমবার রাতে সাবেক যুব ও ক্রীড়া প্রতিমন্ত্রী আহাদ আলী সরকার বাদী হয়ে একটি এজাহার দাখিল করেন। এজাহারে আটক সদর থানা যুবলীগের সহ- সাধারণ সম্পাদক মানিক পাশা ও শহাদৎসহ ৫ জনের নামসহ আরোও ২-৩ জনকে অভিযুক্ত করা হয়েছে। এজাহারে উল্লেখ করা হয় সোমবার বিকেল সাড়ে ৫ টার দিকে সাবেক যুব ও ক্রীড়া প্রতিমন্ত্রী আহাদ আলী সরকার তার সমর্থকদের নিয়ে বাংলাদেশ আওয়ামীলীগের বিজয় সুনিশ্চিত করতে ও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার উন্নয়ন কর্মকা- সাধারণ মানুষের মাঝে প্রচার করার উদ্দেশ্যে গণসংযোগে বের হন। নাটোর সদর থানার ফুলতলা এলাকার বাজিতপাড়া মসজিদের কাছে গণসংযোগ চালানোর সময় মানিকসহ তার সঙ্গীরা তার প্রচার কাজে বাধার সৃষ্টি করে ও তাকে অকথ্য ভাষায় গালিগালাজ করতে থাকে। এ অবস্থায় তিনি সদর থানা ও র‌্যাব-৫ কে বিষয়টি জানান। এরপর তিনি যখন পার্শ্ববর্তী শিবদুর গ্রামের বাজারের মোড়ে গণসংযোগ চালানো শুরু করেন। এ সময় মানিক ও শহাদতের নেতৃত্বে ৬-৭ জন দুর্বৃত্ত একাধিক মোটরসাইকেলযোগে গণসংযোগস্থলে এসে এরোপাথাড়ী ফাঁকা গুলি বর্ষণ করতে থাকে। এতে তিনিসহ তার লোকজন কোনমতে প্রাণে রক্ষা পান। পরে পুলিশ ঘটনাস্থলে এসে ২টি মোটর সাইকেল সহ মানিক ও শহাদতকে আটক করে এবং একটি গুলির খোসা উদ্ধার করে। এজাহারে সাবেক যুব ও ক্রীড়া প্রতিমন্ত্রী আহাদ আলী সরকার মামলার অভিযুক্তদের বিরুদ্ধে আইনানুগ ব্যবস্থা নেওয়ার দাবি জানান। অপরদিকে মানিকের বাবা গোলাম মোস্তফা বাদী হয়ে সোমবার রাতেই অপর একটি অভিযোগ দাখিল করেছেন। অভিযোগে বলা হয় শিবদুর গ্রামে আসার পরই আহাদ আলী সরকারের সমর্থকরা তার ছেলের উপর চড়াও হয়। এ খবর পেয়ে বাড়ি থেকে তিনি ও তার স্ত্রী ঘটনাস্থলে যেয়ে দেখেন, তার ছেলে ছেলে মানিককে ধাক্কাধাক্কি করছে। তাদের হাত থেকে কোনক্রমে নিজেকে বাঁচিয়ে বাড়িতে ঢুকে পড়ে মানিক। তখন আহাদ আলী সরকারের সঙ্গে থাকা নেতাকর্মীরা বাড়িতে ঢোকার চেষ্টা করে। মানিককে রাজনীতি করার শিক্ষা দেয়া হবে জানিয়ে বাড়ির দরজা-জানালা ভাঙচুর করে। বাড়ির মেয়েরা চিৎকার করে এগিয়ে এলে আহাদ আলী সরকারের সমর্থকরা পিছু হটে। এর আধঘন্টা পর বাড়ি থেকে বের হলে মানিককে পুলিশ আটক করে। এঘটনায় আহাদ আলী সরকারসহ অজ্ঞাত ৩০-৪০ জনকে অভিযুক্ত করা হয়।
এ ব্যাপারে সদর থানার অফিসার ইনচার্জ (তদন্ত) শহিদুল ইসলাম জানান, উভয় পক্ষ থেকেই পাল্টাপাল্টি অভিযোগ দাখিল করেছে। এ বিষয়ে তদন্ত করে আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।