সাবেক সাংসদ শঙ্কর গোবিন্দ চৌধুরীর প্রয়াণ দিবস পালিত

আপডেট: সেপ্টেম্বর ১৪, ২০১৭, ১২:২৫ পূর্বাহ্ণ

নাটোর অফিস


বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের ঘনিষ্ট সহচর এবং আওয়ামী লীগের সাবেক সাংসদ ব্রিটিশবিরোধী আন্দোলনের সক্রিয় কর্মী প্রয়াত শঙ্কর গোবিন্দ চৌধুরীর ২২তম প্রয়াণ দিবস পালিত হয়েছে। গতকাল বুধবার সকাল ৮টায় নিজ বাস ভবনে শঙ্কর গোবিন্দ চৌধুরির প্রতিকৃতিতে পুষ্পমাল্য অর্পণের মধ্যে দিয়ে দিবসের কর্মসূচি শুরু হয়। পরে ছাতনী মহাশ্মশানে তার সমাধিতে পুষ্পমাল্য অর্পন করেন শঙ্কর গোবিন্দ চৌধুরির মেয়ে এবং নাটোর পৌরসভার মেয়র উমা চৌধুরি জলি। এছাড়া জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি সাংসদ অধ্যাপক আবদুুল কুদ্দুসসহ নেতৃবৃন্দ জেলা আওয়ামী লীগের পক্ষ থেকে পুষ্পমাল্য অর্পন করেন। এসময় আলোচনা সভা, নিরবতা পালন এবং বিশেষ প্রার্থনা অনুষ্ঠিত হয়। এছাড়া পৌর পূজা উদযাপন পরিষদ, মুক্তিযোদ্ধা সংসদ সন্তান কমান্ডসহ নানা সংগঠনের নেতা কর্মীরা প্রয়াত এই নেতাকে শ্রদ্ধা জানান।
অপরদিকে, জেলা পুজা উদযাপন পরিষদের আয়োজনে দুপুরে রাজবাড়ির আনন্দময়ী কালীবাড়ি মন্দিরে স্বরণ সভা এবং বিশেষ প্রার্থনার আয়োজন করা হয়। জেলা পুজা উদযাপন পরিষদের সভাপতি চিত্তরঞ্জন সাহার সভাপতিত্বে স্বরণ সভায় বক্তব্য দেন, নাটোর জেলা পরিষরে চেয়ারম্যান অ্যাডভোকেট সাজেদুর রহমান খান, সাবেক ক্রীড়া প্রতিমন্ত্রী আহাদ আলী সরকার, সদর উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান শরিফুল ইসলাম রমজান, জেলা পূজা উদযাপন পরিষদের সাধারণ সম্পাদক নগেন্দ্র চন্দ রায়, জেলা হিন্দু বৌদ্ধ খ্রিস্টান ঐক্য পরিষদের সাধারণ সম্পাদক অ্যাডভোকেট সুশান্ত কুমার ঘোষসহ অন্যান্যেরা।
নাটোরের অবিসংবাদিত নেতা শঙ্কর গোবিন্দ চৌধুরী ১৯২৬ সালের ৪ মার্চ নাটোরের এক সভ্রান্ত জমিদার পরিবারে জন্মগ্রহণ করেন। তার পিতা জ্ঞানদা গোবিন্দ চৌধুরী ছিলেন নাটোর ভাবনীর জমিদার। ব্রিটিশ বিরোধী আন্দোলনের মাধ্যমে শঙ্কর গোবিন্দ চৌধুরীর রাজনৈতিক জীবন শুরু। এরপর ১৯৫৪ সালে আওয়ামী লীগে যোগ দেন। ছেষট্টির ছয়দফা ও একাত্তরের মুক্তিযুদ্ধে সক্রিয়ভাবে অংশ গ্রহণের মাধ্যমে নিজেকে দেশপ্রেমে আরও শাণিত করেন। নাটোর সদর আসন থেকে একাধিকবার সংসদ সদস্য নির্বাচিত হওয়া ছাড়াও বঙ্গবন্ধু তাকে ১৯৭৫ সালে নাটরের গর্ভনর নিয়োগ করেন। এছাড়া তিনি দীর্ঘদিন নাটোর জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি ছিলেন।