সারদা পুলিশ একাডেমিতে চাকরি দেয়ার কথা বলে টাকা নেয়ার সময় ৩ প্রতারক আটক ভুয়া নিয়োগপত্র ও টাকা উদ্ধার

আপডেট: জুলাই ৯, ২০১৯, ১:০৩ পূর্বাহ্ণ

চারঘাট প্রতিনিধি


রাজশাহীর সারদা পুলিশ একাডেমীতে অফিস সহকারী পদে চাকরি দেয়ার কথা বলে টাকা নেয়ার সময় প্রতারক চক্রের তিন সদস্যকে আটক করেছে চারঘাট মডেল থানা পুলিশ। এসময় উদ্ধার করা হয়েছে একটি ভুয়া নিয়োগপত্রসহ দেড় লাখ টাকা। আটককৃতরা হলেন, কুষ্টিয়া জেলার কুমারখালী এলাকার ফজলুল হকের ছেলে রিপন আহম্মেদ (২৯), একই এলাকার বকুল শেখের ছেলে শাহিন আলী (২০) এবং নওগা জেলার বদলগাছী এলাকার আবুল হোসেনের ছেলে ফিরোজ আহম্মেদ (২৩)। গতকাল সোমবার বিকেল ৫ টার সময় সারদা পুলিশ একাডেমী গেটের সামনে থেকে তাদের আটক করা হয়। মডেল থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) নজরুল ইসলামের বিষয়টি নিশ্চিত করে জানান, রাজশাহী মহানগরীতে বসবাসকারী কুষ্টিয়ার কুমারখালী এলাকার বাসিন্দা ছলিম উদ্দিনের ছেলে বেলাল হোসেনকে বাংলাদেশ পুলিশ একাডেমী সারদায় অফিস সহকারী পদে চাকরি দেয়ার কথা বলে দুই লাখ টাকা চুক্তি করে ওই প্রতারক চক্রটি। চাকরি দেবার আগে গত দশ দিন পূর্বে ৫০ হাজার টাকা নেয় তারা। এরপর গতকাল সোমবার নিয়োগপত্র দিয়ে বাকি দেড় লাখ টাকা নেয়ার সময় বেলালকে সারদা পুলিশ একাডেমীর সামনে ডাকে প্রতারক চক্রটি। এসময় বেলাল সারদা পুলিশ একাডেমীর গেটের সামনে আসলে নিয়োগপত্র দেখে বেলালের সন্দেহ সৃষ্টি হয়। পরে প্রতারকদের সঙ্গে বেলালের তর্কবিতর্ক দেখে স্থানীয়রা থানায় সংবাদ দেয়। পরে পুলিশ ঘটনাস্থলে গিয়ে ভুয়া নিয়োগপত্র ও দেড় লাখ টাকাসহ তিন প্রতারককে আটক করে। এসময় পালিয়ে যায় প্রতারক চক্রের মূল হোতা যশোরের কালাম। এ বিষয়ে ভুক্তভোগী বেলাল হোসেন বাদী হয়ে চারঘাট মডেল থানায় একটি মামলা করেন।
মডেল থানার ওসি নজরুল ইসলাম আরো বলেন, পুলিশ দেখে প্রতারক চক্রের মূল হোতা কালাম পালিয়ে গেলেও তিন সদস্যকে আটক করা হয়েছে।

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ