সিংড়ায় প্রতিপক্ষের বল্লমের আঘাতে আহত কৃষকের মৃত্যু

আপডেট: জানুয়ারি ৩, ২০১৭, ১২:০৬ পূর্বাহ্ণ

সিংড়া প্রতিনিধি


নাটোরের সিংড়া উপজেলার রাতাল গ্রামে প্রতিপক্ষের বল্লমের আঘাতে আহত কৃষক আবদুর রশিদের (৫৫) মৃত্যু হয়েছে। গতকাল সোমবার ভোর ৪টার দিকে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় তার মৃত্যু হয়। নিহত কৃষক আবদুর রশিদ উপজেলার রাতাল গ্রামের মৃত অমেদ আলীর ছেলে।
এদিকে আবদুর রশিদের মৃত্যুর খবর ছড়িয়ে পড়লে এলাকায় উত্তেজনা বিরাজ করতে থাকে। এক পর্যায়ে দুইপক্ষের ধাওয়া-পাল্টা ধাওয়ার ঘটনা ঘটে। খবর পেয়ে পুলিশ ঘটনাস্থলে গিয়ে পরিস্থিতি শান্ত করেন।
স্থানীয় ও পুলিশ সূত্রে জানা যায়, রাতাল গ্রামের বাজারের পার্শ্বে একটি খাস জমির পজিশন নিয়ে কৃষক আবদুর রশিদের সঙ্গে একই গ্রামের আবদুস সালাম ও ফরিদ হাজীর বিরোধ ছিল। এনিয়ে গত কোরবানি ঈদের আগেরদিন প্রতিপক্ষরা আবদুর রশিদকে মারপিট করলে তিনি মারাত্মক জখম হন। এই ঘটনায় তিনি থানায় মামলা দায়ের করেন। বর্তমানে মামলাটি আদালতে বিচারাধীন রয়েছে। মামলা করার পর থেকে আবদুর রশিদকে প্রতিপক্ষরা মামলা তুলে নিতে বিভিন্ন সময়ে হুমকি-ধামকি দিয়ে আসছিলেন এবং তার এক ভাইকেও মারপিট করা হয়। পূর্ব বিরোধের জের ধরে প্রতিপক্ষরা গত শুক্রবার রাতে নিজ বসতঘরে ঘুমিয়ে থাকা অবস্থায় জানালা দিয়ে আবদুর রশিদকে বল্লম দিয়ে বিদ্ধ করেন। এসময় স্থানীয় লোকজন তাকে উদ্ধার করে প্রথমে বগুড়া মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করেন। সেখান থেকে তাকে রাজশাহী মেডিকেলে নেয়া হলে অবস্থার অবনতি দেখা দেয়। পরে গত রোববার তাকে ঢাকা মেডিকেলে কলেজ হাসপাতালে স্থানান্তর করা হয়। সেখানে চিকিৎসাধীন অবস্থায় গতকাল ভোর ৪টার তার মৃত্যু হয়।
বিষয়টি নিশ্চিত করে সিংড়া থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) নাসির উদ্দিন মন্ডল বলেন, এই ঘটনায় থানায় এখনও কেউ কোন অভিযোগ করেন নি। অভিযোগ পেলে ব্যবস্থা নেয়া হবে। আর এলাকায় উত্তেজনার খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে অতিরিক্ত পুলিশ মোতায়েন করা হয়েছে।