‘সিনেমা হল বন্ধ হলে, শুরু হবে আন্দোলন’

আপডেট: মার্চ ১৪, ২০১৯, ১২:২১ পূর্বাহ্ণ

সোনার দেশ ডেস্ক


ভারতীয় হিন্দি চলচ্চিত্র আমদানি ও প্রদর্শনের প্রতিবাদে কয়েক বছর আগে কাফনের কাপড় পরে আন্দোলন করেছিল চলচ্চিত্র পরিবার। আগামী ১২ এপ্রিল থেকে সিনেমা হল বন্ধ করা হলে, দেশে হিন্দি ছবি আমদানি করা হলে আবারও আন্দোলনে নামে চলচ্চিত্র পরিবার। জাগো নিউজকে বিষয়টি নিশ্চিত করেন চলচ্চিত্র শিল্পী সমিতির সাধারণ সম্পাদক জায়েদ খান।
তিনি বলেন, ‘উনারা আগেও সিনেমা হল বন্ধের হুমকি দিয়েছেন। যদি দেশীয় সংস্কৃতি বাদ দিয়ে, বঙ্গবন্ধুর আইনকে পাস কাটিয়ে হিন্দি ছবি এনে দেশকে ধ্বংস করতে চায়; আমরা পুরো চলচ্চিত্র পরিবার ও শিল্পীদের পক্ষ থেকে এর জোর প্রতিবাদ জানাবো। আমরা আশা করবো সব সিনেমা হল মালিকরা তাদের এ সিদ্ধান্ত মেনে নেবে না।’
জায়েদ খান আরও বলেন, ‘দু-একজন লোকের স্বার্থ উদ্ধারের জন্য তাদের অসাধু বুদ্ধিতে এসব হচ্ছে। ১২ এপ্রিল থেকে যদি হল বন্ধ করে দেয় আমরা পদক্ষেপ নেব। প্রয়োজন হলে আবারও আন্দোলন করবো, মাঠে নামবো। তারপরও বঙ্গবন্ধুর এফডিসিকে আমরা ধ্বংস হতে দেব না।’
গতকাল(১২ মার্চ) দেশে বিদেশি ছবি প্রবেশের সহজ নীতিমালা ও দেশীয় ছবি নির্মাণ বাড়ানোর দাবি জানিয়েছে বাংলাদেশ চলচ্চিত্র প্রদর্শক সমিতি। এ বিষয়ে সরকার যদি আনুষ্ঠানিক উদ্যোগ না নেয় তাহলে ১২ এপ্রিল থেকে দেশের সব প্রেক্ষাগৃহ বন্ধের ঘোষণা দিয়েছে এই সংগঠনটি। আজ দুপুরে ঢাকা রিপোর্টার্স ইউনিটেতে আয়োজিত এক সংবাদ সম্মেলনে এ ঘোষণা দেন সমিতির নেতারা।
প্রদর্শক সমিতির পক্ষ থেকে হল বন্ধের ঘোষণা আসার পর থেকে তাকে এ সিদ্ধান্তের প্রতিবাদ জানিয়েছেন চিত্রনায়ক ফারুক ও রিয়াজসহ অনেকেই।