সিরাজগঞ্জে দুই ছাত্র যৌন হয়রানীর শিকার

আপডেট: মার্চ ৩০, ২০১৯, ১২:৪০ পূর্বাহ্ণ

সিরাজগঞ্জ প্রতিনিধি


সিরাজগঞ্জের কামারখন্দ উপজেলার কুটিরচর সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ে ৩য় শ্রেণির দুই শিশু ছাত্রকে যৌন হয়রানীর (বলাৎকার) করার অভিযোগ উঠেছে স্কুলের সহকারী শিক্ষক সাইফুল ইসলামের বিরুদ্ধে। ঘটনা জানাজানি হওয়ার পর গাঢাকা দিয়েছেন শিক্ষক সাইফুল ইসলাম। যৌন হয়রানীর শিকার দুই স্কুল ছাত্রের পরিবার ও এলাকাবাসী শিক্ষকের শাস্তি দাবি করেছেন।
দুই স্কুল ছাত্রের পরিবার অভিযোগ করে বলেন, গত তিন মাস যাবত সহকারী শিক্ষক সাইফুল ইসলাম ৩য় শ্রেণির দুই ছাত্রকে কৌশলে ডেকে নিয়ে জোরপূর্বক যৌন হয়রানী করে আসছে। এ ঘটনা কাউকে না বলার জন্য বিভিন্ন ভাবে ভয়ভীতি দেখানো হয়েছে। ঘটনাটি জানালে তাদের মেরে ফেলার হুমকি দেওয়া হয়েছে। ছাত্ররা ছোট হওয়ায় ভয়ে অভিভাবকের কাছে ঘটনাটি প্রকাশ করার সাহস পায়নি।
গত ২১ জানুয়ারি স্কুলের ছাত্ররা পাবনায় স্কাউট ক্যাম্পে যায়। সেখানে এক ছাত্র যৌন নির্যাতনের শিকার অসুস্থ হয়ে পড়লে তাকে স্থানীয় একটি হাসপাতালে চিকিৎসা দেয়া হয়েছে। অপর এক ছাত্রকে যৌন হয়রানী করতে না দেয়ায় বিদ্যুতের তার দিয়ে আঘাত করে তাকে রক্তাক্ত জখম করা হয়েছে।
গত দুই দিন ধরে ঘটনাটি জানাজানি হলে এলাকাজুড়ে ব্যাপক ক্ষোভের সৃষ্টি হয়। এর পর থেকে ওই শিক্ষক পলাতক রয়েছেন। স্কুলের অভিভাবকরা সহকারী শিক্ষক সাইফুল ইসলামের অপসারন ও শাস্তি দাবি করেছেন। অভিযুক্ত শিক্ষক স্কুল পরিচালনা কমিটির সভাপতি আবদুর রহমানের চাচাতো ভাই। তিনি ঘটনাটি ধামাচাপা দেয়ার চেষ্টা করছেন।
এ বিষয়ে কামারখন্দ থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) হাবিবুল ইসলাম জানান, স্থানীয় সূত্রে ঘটনাটি জানার পর পুলিশ পাঠানো হয়েছিল। কিন্তু দুই ছাত্রের পরিবার মামলা দায়ের করবেন কি না তা তারা সিদ্ধান্ত নিতে পারেননি বলে আমাদের জানিয়েছেন। এব্যাপারে মামলা দায়ের করা হলে ব্যবস্থা নেয়া হবে।

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ