সিরাজগঞ্জে যৌতুকের দাবিতে স্ত্রীকে পিটিয়ে হত্যা

আপডেট: সেপ্টেম্বর ১৮, ২০১৭, ১:০৫ পূর্বাহ্ণ

সিরাজগঞ্জ প্রতিনিধি


সিরাজগঞ্জের এনায়েতপুরে যৌতুকের দাবিতে স্ত্রীকে পিটিয়ে শ্বাসরোধে হত্যা করা হয়েছে। নিহত শারমিন আক্তার (২১) থানার সৈয়দপুর গ্রামের গ্যাদন আলীর স্ত্রী। তার শরীরের বিভিন্ন স্থানে আঘাতের চিন্থ রয়েছে। ঘটনার পর থেকেই ঘাতক এই স্বামী পলাতক রয়েছে।
এনায়েতপুর থানা ও নিহতের পারিবারিক সূত্রে জানা গেছে, গত প্রায় সাড়ে ৩ বছর আগে পাশের শাহজাদপুর উপজেলার চর কৈজুরী গ্রামের দরিদ্র কৃষক আবু সাইদের মেয়ে শারমিন আক্তারের সঙ্গে সৈয়দপুর গ্রামের ছবেদ আলীর বখাটে ছেলে গ্যাদন আলীর বিয়ে হয়। এরপর থেকেই জালালপুর ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান হাজী সুলতান মাহমুদের এলাকায় ডান হস্ত হিসেবে পরিচিত গ্যাদন আলী ইয়াবা ব্যবসা ও সেবনের সঙ্গে জড়িয়ে পড়ে। দাপুটে ইউপি চেয়ারম্যানের সহযোগী হওয়ায় তারই ছত্রছায়ায় এলাকায় সন্ত্রাসী হিসেবেও তার পরিচিতি রয়েছে। গত বছর খানেক ধরে স্ত্রীর কাছে গ্যাদন ৫০ হাজার টাকা যৌতুক দাবি করে। দরিদ্র পরিবারের তা দেয়া সম্ভব নয় বলে শারমিন জানালে মাঝেমাঝেই বেদম মারধর করতো। এ নিয়ে অতীতে দুইটি মামলা হলে সামাজিকভাবে মিমাংসা করা হয়। এরই একপর্যায়ে শুক্রবার রাতে শারমিনকে বেদম পিটিয়ে ও পায়ে ছুরি দিয়ে খুচিয়ে গুরুতর আহত করা হলে খাজা ইউনুছ আলী মেডিকেল কলেজে ভর্তি করা হয়। গতকাল রোববার সকালে তিনি চিকিৎসাধীন অবস্থায় মারা যায়। পরে দুপুরে পুলিশ হাসপাতাল থেকে নিহতের লাশ উদ্ধার করে মর্গে পাঠায়। এ ঘটনায় নিহতের বাবা আবু সাইদ বাদী হয়ে থানায় একটি হত্যা মামলা দায়ের করেছেন।
এ বিষয়ে এনায়েতপুর থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) রাশেদুল ইসলাম বিশ্বাস জানান, মারাত্মক নির্যাতন করে ওই গৃহবধূকে সন্ত্রাসী স্বামী হত্যা করেছে। আমরা দ্রুত সময়ের মধ্যে তার স্বামী ও অন্যান্য আসামিদের গ্রেফতার করবো।