বঙ্গবন্ধুর শততম জন্মবার্ষিকী

সিরাজগঞ্জে সেরা ১৫ খামারিকে পুরস্কৃত করলো প্রাণ ডেইরী

আপডেট: January 9, 2020, 12:37 am

সিরাজগঞ্জ প্রতিনিধি


প্রকৃত খামার ব্যবস্থাপনার মাধ্যমে নিরাপদ দুধ উৎপাদনে খামারিদের উৎসাহ দেওয়ার লক্ষ্যে নিজস্ব চুক্তিভিত্তিক চাষিদেরকে পুরস্কৃত করেছে প্রাণ ডেইরী লিমিটেড।
সঠিক ব্যবস্থাপনার মাধ্যমে খামার পরিচালনা, দীর্ঘ সময় ধরে প্রাণ ডেইরীকে দুধ প্রদান ও প্রাণ ডেইরীর সহযোগিতায় ক্ষুদ্র খামার থেকে বৃহৎ খামার গড়ে তোলাসহ পাঁচটি বিষয়ের উপর ভিত্তি করে প্রাণ ডেইরীর চুক্তিভিত্তিক খামারিদের মধ্যে ১৫ জনকে বাছাই করা হয়। গতকাল বুধবার সিরাজগঞ্জের শাহজাদপুরে প্রাণ ডেইরী কমপ্লেক্সে কৃষকদের হাতে পুরস্কার তুলে দেন মৎস্য ও প্রাণিসম্পদ প্রতিমন্ত্রী আশরাফ আলী খান খসরু।
প্রাণ-আরএফএল গ্রুপের চেয়ারম্যান ও প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা আহসান খান চৌধুরীর সভাপতিত্বে অন্যান্যদের মধ্যে বক্তব্য দেন শাহজাদপুরের উপজেলা চেয়ারম্যান প্রফেসর আজাদ রহমান, শাহজাদপুরের উপজেলা নির্বাহী অফিসার শাহ মো. শামসুজ্জোহা, শাহজাদপুর পৌরসভার মেয়র আবদুর রাজ্জাক, প্রাণিসম্পদ অধিদফতরের রাজশাহী বিভাগের উপপরিচালক ডা. আবু সৈয়দ মো. নাসির উদ্দিন খান, সিরাজগঞ্জ জেলা প্রাণিসম্পদ কর্মকর্তা আখতারুজ্জামান ভূঁইয়া ও প্রাণ ডেইরীর নির্বাহী পরিচালক মো. মনিরুজ্জামান।
সেরা খামারী হিসেবে পুরস্কৃত করা হয়-মো. মাহতাব আলী, ইসলাম আলী, মো. আবদুর রশিদ, মো. রেজাউল করিম, মো. রুবেল হোসেন, মো. শামসুল, মো. আকবর আলী, মো. মনিরুল ইসলাম আলাল, মনোরঞ্জন রায়, মোছা. মিনা আক্তার, মো. হান্নান প্রামানিক, মধুসূদন ঘোষ, মো. টুটুল প্রামানিক, মো. উকিল হোসেন, মো. মতিন সরকারকে।
পাবনার চাটমোহর, নাটোরের গুরুদাসপুর, সিরাজগঞ্জের শাহজাদপুর ও বাঘাবাড়ি ও রংপুরে প্রাণের ডেইরীর মোট পাঁচটি হাব রয়েছে। এসব হাবের অধীন ১০১টি দুগ্ধ সংগ্রহ ও শীতলীকরণ কেন্দ্র রয়েছে। দুগ্ধ সংগ্রহ ও শীতলীকরণ কেন্দ্রে খামারিরা সরাসরি দুধ সরবরাহ করে। প্রাণ ডেইরীর বর্তমানে ১২ হাজার চুক্তিভিত্তিক চাষি রয়েছে যারা গরু পালন করে। এসকল চাষির অধীনে ৫০ হাজার গরু রয়েছে। দুগ্ধখামার করে এসব খামারিরা নিজেদের ভাগ্য ফিরিয়ে এনেছেন।