সীমিত সম্পদের মধ্যেই রাজশাহীকে সাজিয়ে তুলছি : মেয়র লিটন

আপডেট: ফেব্রুয়ারি ২৮, ২০১৯, ১২:২৬ পূর্বাহ্ণ

নিজস্ব প্রতিবেদক


‘সমবেত অংশগ্রহণের মাধ্যমে নগর উন্নয়ন শীর্ষক’ মতবিনিময় সভায় বক্তব্য দেন সিটি মেয়র এএইচএম খায়রুজ্জামান লিটন সোনার দেশ

সিটি মেয়র এএইচএম খায়রুজ্জামান লিটন বলেছেন, রাজশাহী কৃষি প্রধান অঞ্চল। এ অঞ্চলে শিল্পায়ন তেমনভাবে গড়ে উঠেনি। ইতোমধ্যে সরকার তিনটি শিল্পাঞ্চল অনুমোদন দিয়েছেন। বেসরকারি উদ্যোগে শিল্পাঞ্চল প্রতিষ্ঠার উদ্যোগ নেয়া হচ্ছে। আমরা সীমিত সম্পদের মধ্যেই রাজশাহীকে সাজিয়ে তুলতে কাজ করে যাচ্ছি।
গতকাল বুধবার বিকেল নগরভবনের সিটি হল সভাকক্ষে নগরীর সরকারি-বেসরকারি ব্যাংক, বিমা ও মোবাইল অপারেটরদের সঙ্গে ‘সমবেত অংশগ্রহণের মাধ্যমে নগর উন্নয়ন শীর্ষক’ মতবিনিময় সভায় তিনি এসব কথা বলেন। সভায় মেয়র রাজশাহীর প্রকৃত উদ্যোক্তাদের স্বল্পসুদে ব্যাংক ঋণ প্রদানে ব্যাংক কর্মকর্তাদের অনুরোধ জানান।
সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে মেয়র খায়রুজ্জামান লিটন বলেন, দেশে যোগাযোগ, বিদ্যুৎ, শিক্ষাসহ সর্বক্ষেত্রে দৃশ্যমান অনেক উন্নয়ন হয়েছে। রাজশাহী অনেকক্ষেত্রেই পিছিয়ে আছে। এখন আমাদের সামনের দিকে এগিয়ে যেতে হবে। তিনি আরো বলেন, শহরে যারা কর্মরত আছেন, তাদের এই জনপদের জন্য করার কিছু করণীয় আছে। সেই সামাজিক দায়বদ্ধতা থেকে রাজশাহীর উন্নয়নে সবাইকে এগিয়ে আসতে হবে।
সভায় অংশগ্রহণকারীরা বলেন, আমরাও রাজশাহীর উন্নয়নে অবদান রাখতে চাই। আগামিতে নিজ নিজ প্রতিষ্ঠানের প্রধানদের সঙ্গে আলোচনার মাধ্যমে কিছু করার চেষ্টা করবো। সিএসআর’র মাধ্যমে নগরীর উন্নয়নে সহযোগিতা করবো। রাজশাহীর উন্নয়নে পাশে থাকবো।
সিটি করপোরেশনের প্রধান রাজস্ব কর্মকর্তা শাহানা আখতার জাহানের সভাপতিত্বে সভায় উপস্থিত ছিলেন ১৯ নম্বর ওয়ার্ড কাউন্সিলর তৌহিদুল হক সুমন, প্রধান প্রকেীশলী আশরাফুল হক, নিবার্হী ম্যাজিস্ট্রেট সমর কুমার পালসহ বিভিন্ন ব্যাংক, বিমা ও মোবাইল অপারেটরের রাজশাহী শাখার উর্ধ্বতন কর্মকর্তাবৃন্দ।
সভায় প্রকৃত উদ্যোক্তাদের স্বল্পসুদে ঋণ প্রদান, সিএসআর’র আওতায় ব্যাংকগুলো জোনভিত্তিক রাসিকের বিভিন্ন এলাকা ও গুরুত্বপূর্ণ মোড়ে সৌন্দর্য বর্ধন, সিটি করপোরেশনের কর্মকর্তা-কর্মচারীদের গ্রুপ বিমার আওতায় আনাসহ বিভিন্ন বিষয়ে আলোচনা হয়।

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ