সেপ্টেম্বরে রফতানি আয় ৩১৪ কোটি ডলার

আপডেট: অক্টোবর ১৫, ২০১৮, ১২:৪৪ পূর্বাহ্ণ

সোনার দেশ ডেস্ক


চলতি ২০১৮-১৯ অর্থবছরের প্রথম তিন মাসে (জুলাই-সেপ্টেম্বর) ৯৯৪ কোটি ডলারের পণ্য রফতানি হয়েছে। এই আয় গত অর্থবছরের একই সময়ের চেয়ে ১৪ দশমিক ৭৫ শতাংশ বেশি। শুধু সেপ্টেম্বর মাসে ৩১৪ কোটি ডলারের পণ্য রফতানি হয়েছে। রফতানি উন্নয়ন ব্যুরোর (ইপিবি) হালনাগাদ প্রতিবেদনে এই তথ্য তুলে ধরা হয়েছে।
জুলাই থেকে সেপ্টেম্বর এই তিন মাসে রফতানি আয়ের লক্ষ্য ধরা হয়েছিল ৯৩৩ কোটি ডলার। গত বছরের একই সময়ে আয় হয়েছিল ৮৬৬ কোটি ২৭ লাখ ডলার। প্রতিবেদনে দেখা যায়, সেপ্টেম্বর মাসে ৩১৪ কোটি ডলারের পণ্য রফতানি হয়েছে। এটি গত বছরের সেপ্টেম্বরের চেয়ে ৫৪ দশমিক ৬৪ শতাংশ বেশি। এই প্রবৃদ্ধি অতীতের যেকোনও সময়ের চেয়ে বেশি। গত বছরের সেপ্টেম্বরে রফতানি হয়েছিল ২০৩ কোটি ডলার।
ইপিবির তথ্য অনুযায়ী, জুলাই থেকে সেপ্টেম্বর পর্যন্ত মোট রফতানি আয়ের ৮২ দশমিক ৪০ শতাংশই এসেছে তৈরি পোশাক থেকে। চলতি অর্থবছরের প্রথম তিন মাসে ৮১৯ কোটি ডলারের পোশাক রফতানি হয়েছে। এই আয় গত অর্থবছরের একই সময়ের চেয়ে ১৪ দশমিক ৬৬ শতাংশ বেশি। গত ২০১৭-১৮ অর্থবছরের প্রথম তিন মাসে ৭১৪ কোটি ডলারের পোশাক রফতানি হয়েছিল। অর্থবছরের প্রথম মাস জুলাইয়ে প্রবৃদ্ধি হয়েছিল ২০ শতাংশের মতো। কিন্তু দ্বিতীয় মাস আগস্টে গত বছরের আগস্টের চেয়ে আয় কমে যায় ১২ শতাংশ। প্রতিবেদনে উল্লেখ করা হয়েছে, স্পেশালাইজড টেক্সটাইল রফতানি বেড়েছে ৫৫ শতাংশ। ওষুধ রফতানি বেড়েছে ২৫ শতাংশ।
ইপিবির তথ্য বলা হয়েছে, রফতানি আয় বাড়লেও জুলাই-সেপ্টেম্বর সময়ে পাট ও পাটজাত পণ্য রফতানি কমেছে ৮ দশমিক ১৫ শতাংশ। হিমায়িত মাছ রফতানি কমেছে ১৮ দশমিক ১৭ শতাংশ। চামড়া ও চামড়াজাত পণ্য রফতানি কমেছে ১৭ দশমিক ৪৬ শতাংশ।
প্রসঙ্গত, ২০১৮-১৯ অর্থবছরে পণ্য রফতানি করে ৩৯ বিলিয়ন (তিন হাজার ৯০০ কোটি) ডলার আয়ের লক্ষ্যমাত্রা নির্ধারণ করেছে সরকার।