স্টারলিংয়ের হ্যাটট্রিকে গোল উৎসবে শুরু ম্যানসিটির

আপডেট: আগস্ট ১১, ২০১৯, ১২:৪১ পূর্বাহ্ণ

সোনার দেশ ডেস্ক


লিভারপুল ৪-১ গোলে নরউইচ সিটিকে উড়িয়ে প্রিমিয়ার লিগ শুরু করেছিল। রানার্স আপদের মতোই গোল উৎসব করে হ্যাটট্রিক শিরোপার মিশনে নামলো ম্যানচেস্টার সিটি। রহিম স্টারলিংয়ের হ্যাটট্রিকে শনিবার ৫-০ গোলে চ্যাম্পিয়নরা জিতেছে ওয়েস্ট হ্যামের মাঠে।
প্রিমিয়ার লিগের ইতিহাসে প্রথমবার ভিডিও অ্যাসিস্ট্যান্ট রেফারির (ভিএআর) ব্যবহার হলো। আর প্রথম দিনেই আলোচনায় চলে এলো এটি। লিগে প্রথম ভিএআর হতাশ করেছে ম্যানসিটিকে। গ্যাব্রিয়েল জেসুসের গোল বাতিল হয়েছে এই প্রযুক্তির ব্যবহারে। অবশ্য লাভও হয়েছে। সের্হিয়ো আগুয়েরোর প্রথম পেনাল্টি সেভের পর ভিএআরে দ্বিতীয়বার শট নেওয়ার সুযোগ পান তিনি। আর্জেন্টাইন ফরোয়ার্ড দ্বিতীয় সুযোগে ব্যর্থ হননি।
ওয়েস্ট হ্যামের মাঠে ম্যানসিটি প্রথমার্ধে গোল করে একটি। ২৫ মিনিটে কাইল ওয়াকারের বানিয়ে দেওয়া বলে কাছের পোস্ট থেকে লক্ষ্যভেদ করেন জেসুস। কেভিন ডি ব্রুইনের ৩৮ মিনিটে নেওয়া শট ঠেকিয়ে ব্যবধান দ্বিগুণ করতে দেননি স্বাগতিক গোলরক্ষক লুকাস ফ্যাবিয়ানস্কি।
দ্বিতীয়ার্ধের ষষ্ঠ মিনিটে ২-০ করে ম্যানসিটি। ডি ব্রুইনের পাস থেকে ৫১ মিনিটে লক্ষ্যভেদ করেন স্টারলিং। দুই মিনিট পর ম্যানসিটি তৃতীয় গোল উদযাপনে মেতেছিল। দাভিদ সিলভা ও স্টারলিংয়ের সহায়তায় জেসুস লক্ষ্যভেদ করেছিলেন, কিন্তু রেফারি মাইক ডিন ভিএআর দেখে অফসাইডের কারণে গোলটি বাতিল করে দেন।
৭৫ মিনিটে রিয়াদ মাহরেজের শট থেকে ফ্যাবিয়ানস্কির মাথার ওপর দিয়ে বল তুলে জালে জড়ান স্টারলিং। আবারও ভিএআর যাচাই করতে হয় রেফারিকে। অবশ্য গোলটি বহাল থাকে। খেলা শেষ হওয়ার ৭ মিনিট আগে পেনাল্টি পায় সিটিজেনরা। হ্যাটট্রিকের সুযোগ পেয়েও আগুয়েরোকে পেনাল্টি শট নিতে দেন স্টারলিং। অবশ্য আর্জেন্টাইন ফরোয়ার্ডকে ঠেকিয়ে দেন ওয়েস্ট হ্যাম গোলরক্ষক। কিন্তু ভিএআর দেখে আবার শট নিতে বলেন রেফারি, এবার আর ব্যর্থ হননি আগুয়েরো। ইনজুরি সময়ের প্রথম মিনিটে মাহরেজের বাড়িয়ে দেওয়া বলে চমৎকার শটে নিজের হ্যাটট্রিক পূরণ করেন স্টারলিং। এই জয়ে লিভারপুলকে টপকে শীর্ষে উঠেছে ম্যানসিটি। দুই দলেরই পয়েন্ট ২, তবে গোল ব্যবধানে এগিয়ে সিটিজেনরা। গোল ডটকম