স্ত্রীকে আটকাতে বিমানবন্দরে ফোন করে স্বামী বললেন, ‘আমার স্ত্রী জঙ্গি’!

আপডেট: আগস্ট ১৮, ২০১৯, ১২:৩৫ পূর্বাহ্ণ

সোনার দেশ ডেস্ক


প্রেম? নাকি যেভাবে হোক স্ত্রীকে আটকানোর জেদ? কী কাজ করছিল এই দিল্লিবাসীর মনে, আমরা জানি না। কিন্তু সত্যিই তাঁর সাহস আছে। না হলে বিমানবন্দরে ফোন করে কেউ বলতে পারে, আমার স্ত্রী ফিঁদায়ে জঙ্গী। ওনাকে বিমানে উঠতে দেবেন না, উনি বোমা ফাটিয়ে লোক মারবেন।
গত ৮ আগস্ট, হঠাৎই দিল্লির আন্তর্জাতিক বিমানবন্দর থেকে বিমান ওঠানামা বন্ধ হয়ে যায়। এর পিছনে ছিলেন নাসিরুদ্দিন নামে এক ব্যক্তি, যাঁর বয়স ২৯। তিনি বিমানবন্দরে ফোন করে বলেন, সৌদি আরব ও দুবাই গামী বিমানে তাঁর স্ত্রী রাফিয়া উঠেছেন। তিনি একজন ফিঁদায়ে জঙ্গি। তিনি বিস্ফোরণ ঘটাতে চান। সঙ্গে সঙ্গে হৈ চৈ শুরু হয়ে যায় বিমানবন্দরে। কিন্তু পরে, পুলিশ সেদিনই জানতে পারে, আসলে নাসিরুদ্দিনের অভিযোগ মিথ্যা। তিনি চান না, তাঁর স্ত্রী বিদেশে যান। তাই তাঁকে আটকাতেই তিনি সটান বিমানবন্দরে ফোন করে এই বিপত্তি ঘটিয়েছেন।
এমন ঠাট্টা তো প্রশাসন সহ্য করবে না। যথারীতি নাসিরুদ্দিনকে দিল্লির বওয়ানা এলাকা থেকে গ্রেপ্তার করে পুলিশ। তাঁকে জিজ্ঞাসা করে জানতে পারা যায়, চেন্নাইয়ে একটি ব্যাগের কারখানা আছে তাঁর। সেখানেই তাঁর বর্তমান স্ত্রী রাফিয়া কাজ করতেন। কিন্তু এখন ভাল কাজ পেয়ে রাফিয়া মধ্য এশিয়ার কোনও একটি দেশে চলে যেতে চাইছেন। সেটা সহ্য হয়নি নাসিরুদ্দিনের। সেই জন্যই বিমানবন্দরে ফোন করে এই কা- ঘটিয়েছে সে।
তথ্যসূত্র: আজকাল