স্বাস্থ্যঝুঁকিমুক্ত এবং পরিচ্ছন্ন নগরী গড়তে সবার সহযোগিতা চান মেয়র লিটন

আপডেট: মার্চ ৩, ২০১৯, ১২:১৯ পূর্বাহ্ণ

নিজস্ব প্রতিবেদক


নগর ভবনে মেডিকেল বর্জ্য ব্যবস্থাপনায় মতবিনিময় সভায় সিটি মেয়র এএইচএম খায়রুজ্জামান লিটনসহ অন্যরা সোনার দেশ

সিটি মেয়র এএইচএম খায়রুজ্জামান লিটন বলেছেন, মেডিকেল বর্জ্য মানুষের স্বাস্থ্যের জন্যে ঝুঁকিপূর্ণ। স্বাস্থ্যঝুঁকি কমাতে রাজশাহী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালসহ অন্যান্য হাসপাতাল ও ক্লিনিকের আউট হাউজ মেডিকেল বর্জ্য পরিবেশসম্মত উপায়ে সংগ্রহ করে পরিশোধনের উদ্যোগ নেয়া হয়েছে। স্বাস্থ্যঝুঁকিমুক্ত, পরিচ্ছন্ন ও বসবসাযোগ্য নগরী গড়তে সবার সহযোগিতা কামনা করছি। প্রত্যেককে নিজ নিজ জায়গা থেকে সচেতন হতে হবে।
গতকাল শনিবার দুপুরে নগরভবনের সিটিহল সভাকক্ষে মেডিকেল বর্জ্য (আউট হাউজ) ব্যবস্থাপনা বিষয়ক মতবিনিময় সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এসব কথা বলেন।
মেয়র লিটন আরো বলেন, মেডিকেল বর্জ্য অপসারণে ইতোমধ্যে প্রিজম বাংলাদেশের সঙ্গে এমওইউ স্বাক্ষরিত হয়েছে। চুক্তি অনুযায়ী প্রিজম বাংলাদেশ পরিবেশসম্মত উপায়ে সংগ্রহ করে তা পরিশোধন করবে।
এ সময় মেয়র আরো বলেন, রাজশাহী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালকে পরিচ্ছন্ন করতে তিনদিনের বিশেষ পরিচ্ছন্নতা অভিযান চালানো হয়েছে। অভিযানে তিনদিনে তিনশ ট্রাক বর্জ্য অপসারণ করা হয়েছে। ফলে এখন পরিচ্ছন্ন পরিবেশ ফিরে পেয়েছে মেডিকেল কলেজ ও হাসপাতাল। এই পরিবেশ কর্তৃপক্ষকেই ধরে রাখার আহ্বান জানান তিনি।
বর্জ্য ব্যবস্থাপনা স্থায়ী কমিটির সভাপতি প্যানেল মেয়র-১ ও ১২ নম্বর ওয়ার্ড কাউন্সিলর সরিফুল ইসলাম বাবুর সভাপতিত্বে মতবিনিময় সভায় বিশেষ অতিথির বক্তব্য দেন, রাজশাহী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের পরিচালক ব্রিগেডিয়ার জেনারেল জামিলুর রহমান, পরিচালক (স্বাস্থ্য) রাজশাহী বিভাগের ভারপ্রাপ্ত পরিচালক ডা. গোপেন্দ্র নাথ আচার্য ও রাজশাহী প্রাইভেট ক্লিনিক ও ডায়াগনস্টিক এ্যাসোসিয়েশনের সভাপতি ডা. এসএমএ মান্নান। এ সময় আরো বক্তব্য দেন, রাজশাহী বিশ^বিদ্যালয় চিকিৎসা কেন্দ্রের প্রধান চিকিৎসক ডা. তবিবুর রহমান শেখ, খ্রিস্টান মিশন হাসপাতালের পরিচালক ডা. ডেবিট খান, রাজশাহী জেনারেল হাসপাতালের পরিচালক সাব্বির হোসেন, বক্ষব্যাধি হাসপাতালের ডা. আমির হোসেন প্রমুখ।
এ সময় সিটি করপোরেশনের সাত নং ওয়ার্ড কাউন্সিলর মতিউর রহমান মতি, ১৩ নম্বর ওয়ার্ড কাউন্সিলর আব্দুল মোমিন, ১৯ নম্বর ওয়ার্ড তৌহিদুল হক সুমন ও অন্যান্য সংরক্ষিত আসনের কাউন্সিলরবৃন্দ, সচিব রেজাউল করিমসহ নগরীর বিভিন্ন সরকারি হাসপাতাল, বেসরকারি ক্লিনিক ও ডায়াগনস্টিক সেন্টারের প্রতিনিধিবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন।

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ