হকির ৩২ বছরের মেলবন্ধন

আপডেট: ডিসেম্বর ৮, ২০১৭, ১২:২৮ পূর্বাহ্ণ

সোনার দেশ ডেস্ক


অনুষ্ঠানে অনেকবার করতালি পড়লো। তবে সবচেয়ে জোরে ও বেশি সময়ের জন্য পড়লো দুই বার। একবার শাহাবুদ্দিন চাকলাদার যখন ফুল তুলে দিলেন রাসেল মাহমুদ জিমির হাতে এবং আরেক বার একটি হকি স্টিক তুলে দেয়ার সময়। ৩২ বছর আগে ঢাকায় অনুষ্ঠিত এশিয়া কাপের অধিনায়ক আর ১১ অক্টোবর সেই শহরেই শুরু হতে যাওয়া দশম এশিয়া কাপে বাংলাদেশের দুই অধিনায়ক চাকলাদার ও জিমি। দুই প্রজন্মের দুই অধিনায়ককে এক সঙ্গে পেয়ে ফটো সাংবাদিক আর টেলিভিশন ক্যামেরাম্যানরাও তৃপ্তি মিটিয়েছেন স্মরণীয় মুহুর্তটাকে ধারণ করে।
চাকলাদার ও জিমির দুটি মুহুর্ত উল্লেখ প্রতিকী। বাংলাদেশ ক্রীড়ালেখক সমিতির উদ্যোগে আসলে শনিবার মেলবন্ধন হয়েছে হকির ৩২ বছরের। ১৯৮৫ সালের এশিয়া কাপের খেলোয়াড়দের সংবর্ধনা এবং ২০১৭ সালের খেলোয়াড়দের শুভেচ্ছা জানাতেই তাদের এক মঞ্চে দাঁড় করিয়েছিল দেশের ক্রীড়া সাংবাদিকদের সবচেয়ে বড় ও প্রাচীন সংগঠনটি।
৩২ বছর আগের ও এখনকার দলের জন্য অনুষ্ঠান আয়োজন হলেও বাংলাদেশ অলিম্পিক অ্যাসোসিয়েশনের (বিওএ) অডিটরিয়ামটি পরিণত হয়েছিল হকির অতীত-বর্তমান তারকাদের মিলনমেলায়। আবদুস সাদেক, শামসুল বারী, প্রতাপ শঙ্কর হাজরা, ৮৫ সালের দলের সদস্য জামিল পারভেজ লুলু, খাজা ড্যানিয়েল, আবদুল্লাহ পিরু, কামরুল ইসলাম কিসমত, আলমগীর চুন্নু, ওসমান গনি, বর্তমানের গোটা দলটিই শোভাবর্ধন করেছে অনুষ্ঠানের। ছিলেন বিভিন্ন সময় জাতীয় হকি দলের অনেক সদস্য, সংগঠক, আম্পায়ার।
বাংলাদেশ হকি ফেডারেশনের সাধারণ সম্পাদক আবদুস সাদেক, সাবেক অধিনায়ক শাহাবুদ্দিন চাকলাদার, বর্তমান অধিনায়ক রাসেল মাহমুদ জিমি, কোচ মাহবুব হারুন, ক্রীড়ালেখক ও কবি সানাউল হক খান এবং ক্রীড়া সাংবাদিক দিলু খন্দকার তাদের স্মৃতিতে তুলে এনেছেন হকির সেকাল-একাল।
এশিয়া কাপের ৮ দেশের মধ্যে সবার পেছনে থেকেই টুর্নামেন্ট শুরু করবে বাংলাদেশ। লাল-সবুজ জার্সিধারীদের কাছ থেকে তাই আহামরি কোনো ফলাফল আশা করেননি কেউ। বাস্তবতা মেনেই জিমিদের কাছে সবার চাওয়া ছিল ‘লড়াই’। ফলাফল যাই হোক, দর্শক যেন দেখে বাংলাদেশ এশিয়ার শক্তিধর দলগুলোর সঙ্গে লড়াই করছে। তাতেই হকির প্রতি আবার টান ফিরবে মানুষের।
অগ্রজদের উপদেশ-অনুপ্রেরণার পর বর্তমান দলের অধিনায়ক সবাইকে আশ্বস্ত করেছেন তারা খেলার আগেই হেরে বসবেন না। ‘খেলায় হারজিত থাকবেই, আমরা ভালো পারফরমেন্স করতে চাই। যাতে আজ যেমন ৩২ বছর আগের দলকে সম্মান জানানো হলো ৩২ বা ২০ বছর পর আমরাও যেন এমন সম্মান পাই’-বলেছেন লাল-সবুজ জার্সিধারীদের অধিনায়ক রাসেল মাহমুদ জিমি।
বাংলাদেশ ক্রীড়ালেখক সমিতির সভাপতি মোস্তফা মামুন শুভেচ্ছা বক্তব্য রাখেন। অনুষ্ঠান সঞ্চালন করেন সংগঠনের সাধারণ সম্পাদক রেজওয়ান উজ জামান রাজীব।