হলিউডে যৌন হয়রানির শিকার নারীদের মিছিল

আপডেট: নভেম্বর ১৪, ২০১৭, ১২:২৭ পূর্বাহ্ণ

সোনার দেশ ডেস্ক


যৌন হয়রানির শিকার ব্যক্তিদের প্রতি সমর্থন জানিয়ে বেশ বড়সড় মিছিল হয়েছে হলিউডে।
সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ‘হ্যাশট্যাগ মি টু’ প্রচারণায় উদ্বুদ্ধ হয়ে এ মিছিলে যৌন হয়রানির শিকার নারীরা ছাড়াও আরও অনেকে অংশ নিয়েছেন।
মিছিলকারীদের একটি বড় অংশই নারী হলেও সেখানে বেশ কিছু পুরুষকেও দেখা গেছে।
সম্প্রতি হলিউডের বেশ কয়েকজন নায়িকা বলেছেন অস্কারজয়ী প্রযোজক হার্ভি ওয়েনস্টেইনের কাছে কী ধরনের যৌন হয়রানির শিকার হন। এরপর সোশ্যাল মিডিয়ায় ‘মি টু’ হ্যাশ ট্যাগে অনেক নারী-পুরুষ জানিয়েছেন কীভাবে তারা যৌন হয়রানির শিকার হয়েছেন।
হ্যাশ ট্যাগ মি টু – প্রথমে শুরু করেছিলেন সমাজকর্মী তারানা বুর্ক এবং পরে এটি ব্যাপক জনপ্রিয়তা পায় অভিনেত্রী আলিসা মিলানো প্রযোজক হার্ভি ওয়েনস্টেইনের বিরুদ্ধে অভিযোগ প্রকাশের পর।
এর বিশ্বজুড়ে যৌন হয়রানির শিকার হওয়া নারীদের অনেকেই এ প্রচারণায় এগিয়ে আসেন এবং অনেকেই নিজের ঘটে যাওয়া এসব হয়রানির ঘটনা প্রকাশে এগিয়ে আসেন।
আবার ফেসবুকে এ প্রচারণায় অনেকে অংশ নিচ্ছেন নারীর প্রতি যে কোন ধরনের সহিংসতার বিরুদ্ধে নিজের অবস্থান প্রকাশ করতে।
এর এর মাধ্যমেই তারানা বুর্কের হাত ধরে শুরু হওয়া ‘হ্যাশট্যাগ মি টু’ ভাইরাল হয়ে যায় সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে।
তারানা বুর্ক নিজেই হলিউডের এ মিছিলের নেতৃত্ব দেন।
মিছিলটি হলিউড থেকে শুরু হয়ে সিএনএন সদর দপ্তরে গিয়ে শেষ হয়।
ফেসবুকে তিনি ইভেন্টের বিষয়ে লিখেছেন যে, ” এটি প্রত্যেক হার্ভি ওয়েনস্টেইনের জন্য। এধরনের আরও শত শত পুরুষ আছে যারা এ ধরনের কাজই করছে”।
বড় তারকাদের মধ্যে অভিনেতা কেভিন স্পেসি ও কমেডিয়ান লুইস সিকের বিরুদ্ধেও গত কয়েক সপ্তাহে যৌন হয়রানির অভিযোগ উঠেছে। এর মধ্যে লুইস সিকে অভিযোগ স্বীকার করে দু:খও প্রকাশ করেছেন।
ওদিকে হার্ভি ওয়েনস্টেইনের বিরুদ্ধে ধর্ষণের অভিযোগ উঠলেও তিনি তার মুখপাত্রের মাধ্যমে সেটি অস্বীকার করেছেন।
তথ্যসূত্র: বিবিসি বাংলা