১৫ এপ্রিল থেকে অবৈধ স্থাপনা উচ্ছেদে রাসিকের অভিযান

আপডেট: এপ্রিল ১৪, ২০১৯, ১২:৪৭ পূর্বাহ্ণ

নিজস্ব প্রতিবেদক


অবৈধ স্থাপনা উচ্ছেদের মতবিনিময় সভায় বক্তব্য দেন সিটি মেয়র এএইচএম খায়রুজ্জামান লিটন-সোনার দেশ

জনদুর্ভোগ দূর করতে ফুটপাত ও রাস্তাপাশে অবৈধ স্থাপনা ও দোকান উচ্ছেদ অভিযানে নামছে রাজশাহী সিটি কর্পোরেশন (রাসিক)। আগামী ১৫ এপ্রিল থেকে শুরু করে এই অভিযান চলবে ২৫ এপ্রিল পর্যন্ত। গত ৯ এপ্রিল রাজশাহী সিটি কর্পোরেশনের বিশেষ সভায় এই সিদ্ধান্ত নেয়া হয়।
সকাল থেকে বিকেল চারটা পর্যন্ত ফুটপাত বা রাস্তার ধারে দোকান বসাতে পারবে না ব্যবসায়ীরা। ফুটপাত ও রাস্তার পাশের ব্যবসায়ীরা বিকেল চারটা থেকে রাত ১০টা পর্যন্ত ব্যবসা করতে পারবে। তবে কোনো ব্যবসায়ী ফুটপাত বা রাস্তায় স্থায়ীভাবে ব্যবসার মালামাল বা সরঞ্জাম রাখতে পারবে না। রাত ১০টায় দোকান সরিয়ে নিয়ে যেতে হবে। সিটি কর্পোরেশনের নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট সমরকুমার পাল এই অভিযান পরিচালনা করবেন।
আগামী ১৫ এপ্রিল মহানগরীর মাস্টারপাড়া কালিমন্দির থেকে শুরু হয়ে পদ্মাপাড় হয়ে হয়রত শাহ মখদুম (রহ.) মাজার পর্যন্ত, ১৬ এপ্রিল টিকাপাড়া হতে অর্কিড ছাত্রাবাস, কল্পনা হল হতে ঢাকা বাস টার্মিনাল পর্যন্ত, ১৭ এপ্রিল ঝাউতলা মোড় হতে লক্ষ্মীপুর কাঁচাবাজার হয়ে লক্ষ্মীপুর মোড় হয়ে ঘোষপাড়া মোড় পর্যন্ত, ১৮ এপ্রিল আলুপট্টি থেকে সাহেববাজার হয়ে ফায়ার সার্ভিস পর্যন্ত, ১৯ এপ্রিল শহিদ কামারুজ্জামান চত্বর থেকে আমচত্বর পর্যন্ত, রাজশাহী জেলা মুক্তিযুদ্ধ স্মৃতি স্টেডিয়াম সংলগ্ন ১৯ নম্বর ওয়ার্ড রোড পর্যন্ত, ২০ এপ্রিল বন্ধগেট থেকে সিটি হাট পর্যন্ত, ২১ এপ্রিল কাশিয়াডাঙ্গা হতে কাঠালবাড়িয়া হয়ে আইটি ভিলেজ হয়ে কোর্ট চত্বর পর্যন্ত, ২২ এপ্রিল শহিদ কামারুজ্জামান চত্বর হতে স্মৃতি অম্লান (ভদ্রা মোড় ) হয়ে চৌদ্দপাই পর্যন্ত, ২৩ এপ্রিল ফায়ার সার্ভিস মোড় থেকে সিএন্ডবি মোড় হয়ে কোর্ট চত্বর পর্যন্ত, ২৪ এপ্রিল বহরমপুর রেলক্রসিং হতে বাইপাস মোড় হয়ে কাশিয়াডাঙ্গা পর্যন্ত, ২৫ এপ্রিল ভেড়িপাড়া থেকে টি-বাঁধ হয়ে সার্কিট হাউজ হয়ে দরগা গেট পর্যন্ত উচ্ছেদ অভিযান পরিচালিত হবে।
উল্লেখ্য, ফুটপাত ও রাস্তা দখল করে দোকান বসানোয় প্রতিদিন চলাচলকারী লক্ষাধিক পথচারী নানান দুর্ভোগে পড়েন। এই দুর্ভোগ দূর করতে উচ্ছেদ অভিযানে নামছে রাজশাহী সিটি কর্পোরেশন। তবে ব্যবসায়ীদের কথা চিন্তা করে তাদের ব্যবসার জন্য নির্দিষ্ট সময়সীমা বেধে দেয়া হয়েছে। বিশেষভাবে লক্ষণীয়, রাস্তার পাশে যাদের দোকান আছে, তারা তাদের মালামাল ফুটপাতে প্রদর্শন করেন। এর বিরুদ্ধেও ব্যবস্থা নেয়া হবে।

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ