১৫ বছর পর ইন্দ্রপুরীতে ফিরে রুদ্রনীলের জিয়া নস্ট্যাল

আপডেট: মে ১৬, ২০১৮, ১২:৪১ পূর্বাহ্ণ

সোনার দেশ ডেস্ক


ইন্দ্রপুরীতে ১৫ বছর আগে পা রাখা ছেলেটার আজ পায়ের তলায় মাটি শক্ত। ছবি: ফেসবুকের সৌজন্যে।
থিয়েটার করত ছেলেটা। নন্দন চত্বরে তখন ছিল নিয়মিত আড্ডা। সেখান থেকেই হঠাৎ টেলিভিশনে অভিনয়ের ডাক। ১৫ বছর আগে ইন্দ্রপুরী স্টুডিওতে প্রথম সিরিয়ালের শুটিংয়ে যাওয়া। ১৫ বছর পর ফের ইন্দ্রপুরীতে তিনি। এ বার ছবির শুটিং। মাঝের এতগুলো বছরে বৃত্তটা অনেকটাই পূর্ণ। ইন্দ্রপুরীতে ফিরে নস্ট্যালজিক হয়ে পড়লেন তিনি। অর্থাৎ অভিনেতা রুদ্রনীল ঘোষ।
মঙ্গলবার বেশ সকালেই ইন্দ্রপুরীতে পৌঁছেছিলেন রুদ্রনীল। ‘মাস’ ছবির শুটিং রয়েছে। সকালবেলায় তখনও স্টুডিও জুড়ে আলসেমি। মেকআপ রুম, শুটিং সেট তখনও অভিনেতাদের অপেক্ষায়। ঠিক সে সময়েই স্টুডিও কোণ, গলিপথ, উঠোন ঘুরে রুদ্র পৌঁছলেন সেই ঘরটার সামনে। যেখানে প্রথম তাঁকে বলা হয়েছিস ‘এই নাও তোমার স্ক্রিপ্ট’। যেখান থেকেই প্রথম ১৫০ টাকা পারিশ্রমিক পেয়েছিলেন অভিনেতা।
‘‘সকালের দিকটা ফাঁকা থাকে। তাই আমি ঘুরে দেখছিলাম। ছুঁয়ে দেখছিলাম সেই সময়টাকে। দূরদর্শনের রূপকথা নামে একটা সিরিয়াল হত। খুব হিট ছিল। সেটার শুটিংয়ে ১৫ বছর আগে এখানে এসেছিলাম। এই কয়েক বছরে বিভিন্ন কাজে আসতে হয়েছে। তবে শুটিং করিনি।’’
রুদ্রনীল শেয়ার করলেন, ১৫ বছর আগে দেবব্রত দত্তর পরিচালনায় ‘রূপকথা’-তে ছোট পার্ট আছে বলে ডাকা হয়েছিল তাঁকে। পাঁচ-ছ’জনের সঙ্গে তাঁকে লকআপের সিন করতে দেওয়া হয়। রুদ্র বললেন, ‘‘আমি থিয়েটার করতাম। ইন্ডাস্ট্রির গ্ল্যামার নিয়ে কোনও মাথাব্যথা ছিল না। সে সময় যে সব সিনেমা হত সেগুলো মনে দাগ কাটতো না। বরং টেলিভিশনে অনেক কোয়ালিটি কাজ হত।’’
টেলিভিশনে অভিনয় করতে ইন্দ্রপুরীতে ১৫ বছর আগে পা রাখা ছেলেটার আজ পায়ের তলায় মাটি শক্ত। তবুও অতীত তিনি ভোলেননি। তাই ইন্দ্রপুরীতে দাঁড়িয়ে টাইমমেশিনে চড়ে কয়েকটা বছর পিছিয়ে গেলেন রুদ্রনীল। ছুঁয়ে দেখলেন পুরনো সময়। তথ্যসূত্র: আনন্দবাজার পত্রিকা