২০০৮ সালে ভোট পড়েছিল আরও বেশি: প্রধানমন্ত্রী

আপডেট: জানুয়ারি ১১, ২০১৯, ১:২৮ পূর্বাহ্ণ

সোনার দেশ ডেস্ক


নির্বাচন নিয়ে সমালোচনার জবাবে এবারের চেয়ে ২০০৮ সালের নির্বাচনে আরও বেশি ভোট পড়ার কথা স্মরণ করিয়ে দিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।
বঙ্গবন্ধুর স্বদেশ প্রত্যাবর্তন দিবসে বৃহস্পতিবার এক আলোচনা সভায় বক্তব্যে নির্বাচনে বিএনপির পরাজয়ের জন্য ‘মনোনয়ন বাণিজ্যসহ’ নানা কারণ বলেন আওয়ামী লীগ সভানেত্রী।
আন্দোলন করে যারা ব্যর্থ হয় তারা নির্বাচনে জয়লাভ করতে পারে না বলেও মন্তব্য করেন তিনি।
শেখ হাসিনা বলেন, “২০০৮ এর নির্বাচনে জনগণ আমাদের ম্যান্ডেট দিয়েছিল। ব্যাপক হারে ভোট পড়ে। আপনারা যদি ২০১৮ এর নির্বাচন আর ২০০৮ এর নির্বাচন তুলনা করেন, ২০০৮ এ কিন্তু ভোট পড়েছিল আরো অনেক বেশি। প্রায় ৮৬ ভাগ ভোট পড়েছিল। কোনো কোনো কেন্দ্রে প্রায় ৯০ ভাগের উপরে ভোট পড়েছিল।”
২০০৮ সালের ২৯ ডিসেম্বরের ওই নির্বাচনে আওয়ামী লীগ ২৩০ আসনে জয়ী হয়, জাতীয় পার্টি ও অন্যান্য জোট শরিকসহ তাদের আসন দাঁড়ায় ২৬২টি। ওই নির্বাচনে মোট ভোটারের ৮৭ শতাংশের বেশি ভোট পড়ে, ৭৪টি আসনে ৯০ শতাংশের উপরে ভোট পড়ে।
এরপর ২০১৪ সালে বিএনপির বর্জনের মধ্যে অনুষ্ঠিত দশম সংসদ নির্বাচনে অর্ধেকের বেশি আসনে ভোট হয়নি, বিনা প্রতিদ্বন্দ্বিতায় নির্বাচিত হন একক প্রার্থীরা। গত ৩০ ডিসেম্বর অনুষ্ঠিত একাদশ সংসদ নির্বাচনে ২৫৭ আসনে জয় পেয়েছেন আওয়ামী লীগের প্রার্থীরা, জোটসঙ্গীদের নিয়ে তাদের আসন সংখ্যা ২৮৮টি।
২০০৮ সালের নির্বাচনে ৩০ আসনে জয়ী বিএনপি এবার জোটসঙ্গীদের মিলিয়ে মাত্র আটটি আসনে জয় পেয়েছে। ব্যাপক অনিয়ম, কারচুপির অভিযোগ তুলে নির্বাচনের ফল প্রত্যাখ্যান করেছে তারা।
সমালোচকদের উদ্দেশে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বলেন, “অনেকেই লিখছে, অনেকেই অনেক কথা বলছে। কিন্তু তারা যদি এই তুলনাটা দেখেন, তাহলে দেখবেন যে ২০০৮ এর নির্বাচনে ভোট পড়েছিল অনেক বেশি। এবং জনগণ আওয়ামী লীগকে ভোট দেয়। নৌকা মার্কায় ভোট পেয়ে আমরা দেশ সেবার কাজে নিয়োজিত হই।”
তথ্যসূত্র: বিডিনিউজ