২৭ বছর পর কোমা থেকে ফেরা

আপডেট: এপ্রিল ২৪, ২০১৯, ১২:৫৪ পূর্বাহ্ণ

সোনার দেশ ডেস্ক


ইতালির একটি হাসপাতালে কোমার এই রোগীর ছবি রয়টার্সের তোলা ২০১৪ সালের ১৬ ডিসেম্বর সংগৃহীত

সড়ক দুর্ঘটনায় গুরুতর আহত হয়ে কোমায় চলে যাওয়া সংযুক্ত আরব আমিরাতের এক নারী ২৭ বছর পর সংজ্ঞা ফিরে পেয়ে দ্রুত সেরে উঠছেন। তার এই উন্নতিকে ‘অলৌকিক’ হিসেবে বর্ণনা করেছে বিবিসি।
১৯৯১ সালে ওই দুর্ঘটনার সময় মুনীরা আব্দুল্লাহর বয়স ছিল ৩২ বছর। স্কুল থেকে ছেলেকে নিয়ে ফেরার পথে গাড়িতে বাসের ধাক্কায় মাথায় আঘাত পেয়েছিলেন তিনি।
সে সময় চার বছরের শিশু ওমর ওয়েবাইরও মায়ের সঙ্গে গাড়ির পেছনে সিটে ছিলেন। দুর্ঘটনার মুহূর্তে মা তাকে বাহুতে আঁকড়ে ধরায় অক্ষত ছিলেন তিনি।
গাড়িটি চালাচ্ছিলেন মুনীরার দেবর। মাথায় গুরুতর আঘাতে কোমায় চলে যাওয়া এই নারী গত বছর একটি জার্মান হাসপাতালে চেতনা ফিরে পান।
এখন ত্রিশোর্ধ্ব যুবক ওমরই সংযুক্ত আরব আমিরাতভিত্তিক পত্রিকা দ্য ন্যাশনালকে দেওয়া সাক্ষাৎকারে ওই দুর্ঘটনা এবং মায়ের উন্নতির কথা জানান।
সোমবার ওমর পত্রিকাটিকে বলেন, “আমি কখনো তাকে ছাড়িনি। কারণ আমার সব সময় মনে হত, এক সময় উনি জেগে উঠবেন।
“তার কথা প্রকাশ করলাম এই কারণে যে, আমি মানুষকে বলতে চাই- প্রিয়জনকে নিয়ে আশা হারাবেন না। এ রকম অবস্থায় গেলেস ভাববেন না তারা মারা গেছে।”
ওই ঘটনা স্মরণ করে তিনি বলেন, “আমার মা আমাকে নিয়ে পেছনের সিটে বসেছিলেন। যখন তিনি দেখলেন দুর্ঘটনা ঘটছে তখন আমাকে রক্ষায় বুকের মধ্যে টেনে নিয়েছিলেন তিনি।”
দুর্ঘটনায় তেমন কিছুই হয়নি ওমরের, মাথায় সামান্য আঁচড় লেগেছিল। অন্যদিকে মাথায় জখম নিয়ে কয়েক ঘণ্টা পড়ে ছিলেন তার মা।

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ