৩ লাখ বিদেশি কাজ করছে বাংলাদেশে

আপডেট: জুলাই ১০, ২০১৭, ১২:১৯ পূর্বাহ্ণ

সোনার দেশ ডেস্ক


দক্ষ জনবলের অভাবে বাংলাদেশের বিভিন্ন প্রতিষ্ঠানে কাজ করছে তিন লাখ বিদেশি দক্ষ জনশক্তি। শনিবার আইডিইবি ভবনে ইনস্টিটিউশন অব ডিপ্লোমা ইঞ্জিনিয়ার্স (আইডিইবি) আয়োজিত এক সংবাদ সম্মেলনে এ তথ্য জানানো হয়েছে।
‘ভবিষ্যৎ কর্মবিশ্বের জন্য দক্ষতা আর বৈশ্বিক প্রতিযোগিতার জন্য টিভিইটি’ শীর্ষক আন্তর্জাতিক সম্মেলনের তথ্য-উপাত্ত তুলে ধরতে এ সংবাদ সম্মেলনের আয়োজন করা হয়।
সংবাদ সম্মেলনে আইডিইবির সভাপতি এ কে এম এ হামিদ বলেন, আগামী ২৭ থেকে ২৯ জুলাই ঢাকায় এ সম্মেলন অনুষ্ঠিত হবে। ২৭ জুলাই সকাল ১০টায় রাজধানীর ওসমানী স্মৃতি মিলনায়তনে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা এ সম্মেলনের উদ্বোধন করবেন। সম্মেলনে দক্ষিণ এশিয়ার ১৬টি সদস্য রাষ্ট্রের প্রতিনিধি ছাড়াও জার্মানি, অস্ট্রেলিয়া, নরওয়ে, সিঙ্গাপুরসহ বিভিন্ন দেশের জনশক্তিবিষয়ক বিশেষজ্ঞরা অংশ নেবেন।
সম্মেলনের প্রয়োজনীয়তা তুলে ধরে আইডিবি সভাপতি বলেন, সম্মেলনে বিভিন্ন বিষয়ের ওপর ৩০টি পেপার উপস্থাপিত হবে এবং এর ওপর আলোচনা হবে। ২৯ জুলাই ঢাকা ঘোষণা স্বাক্ষরের মধ্য দিয়ে এ সম্মেলন শেষ হবে।
এ কে এম এ হামিদ বলেন, বিজ্ঞান ও প্রযুক্তির দ্রুত এবং অব্যাহত উন্নয়ন-অগ্রগতির ফলে বিশ্বব্যাপী সামগ্রিক দক্ষতার ক্ষেত্রে ৪০ ভাগ ঘাটতি সৃষ্টি হচ্ছে। বাংলাদেশের সর্বক্ষেত্রে এই ঘাটতি আরো ভয়াবহ। ফলে জাতীয় উন্নয়ন-উৎপাদনে কাঙ্ক্ষিত লক্ষ্য ও গতি ব্যাহত হবে।
এক প্রশ্নের জবাবে আইডিইবি সভাপতি বলেন, দক্ষতার অভাবে বাংলাদেশি নাগরিকরা বিদেশে গিয়ে ভারত, ফিলিপাইন, নেপাল ও ভুটানের শ্রমিকদের চেয়ে তিন ভাগের এক ভাগ বেতনও পাচ্ছে না। আমাদের দেশের অভ্যন্তরীণ চাহিদা মেটানোর জন্যও বিদেশ থেকে দক্ষ লোক আনতে হচ্ছে। বর্তমানে বাংলাদেশে প্রায় তিন লাখ বিদেশি নাগরিক কাজ করছে।
দক্ষতা তৈরিতে টেকনিক্যাল অ্যান্ড ভোকেশনাল এডুকেশন অ্যান্ড ট্রেনিং (টিভিইটি) মুখ্য ভূমিকা রাখবে। এ কারণেই এটিকে এবার আন্তর্জাতিক এ সম্মেলনের বিষয় হিসেবে নির্ধারণ করা হয়েছে বলে জানান এ কে এম এ হামিদ। রাইজিংবিডি