৫০ বছরে প্রথম কেউ নাসার চাকরি ছাড়লেন

আপডেট: সেপ্টেম্বর ৬, ২০১৮, ১২:৫৫ পূর্বাহ্ণ

সোনার দেশ ডেস্ক


বিশ্বের সবচেয়ে মর্যাদাপূর্ণ প্রতিষ্ঠানের একটি হচ্ছে, মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের জাতীয় মহাকাশ সংস্থা নাসা। মহাকাশ গবেষণায় সবচেয়ে সফল প্রতিষ্ঠান।
নাসায় নভোচারীর চাকরি পাওয়া চাট্টিখানি কথা নয়। কাক্সিক্ষত চাকরিটি পেতে হলে যোগ্যতার পাশাপাশি ভাগ্যেরও সহায়তা প্রয়োজন। এমন ঘটনাও ঘটে যেখানে ১০ থেকে ১২ জন লোক নিয়োগের জন্য ২০ হাজারেরও বেশি যোগ্য ব্যক্তি আবেদন করেন। এই ২০ হাজার মানুষেরই চাকরি পাওয়ার মতো সব যোগ্যতা থাকার পরও মাত্র ১০ থেকে ১২ জন নির্বাচিত হন।
নির্বাচিত হওয়ার পরেই কিন্তু নাসার চাকরি চূড়ান্ত বলে ধরে নেওয়ার কোনো কারণ নেই। কারণ এরপরও বেশ কিছু ধাপ পার করতে হয়। দুই বছরের কঠোর প্রশিক্ষণ এবং মূল্যায়নে উত্তীর্ণ হতে হয়।
নাসায় চাকরি পেয়ে তা ছাড়ার ঘটনা বিরল। দুর্ভাগ্যবশত ৫০ বছরের মধ্যে এই প্রথম রব কুলিন নামের একজন প্রশিক্ষাণার্থী নভোচারী নাসার চাকরি ছাড়লেন। এর আগে ১৯৬৮ সালে একজন নাসার চাকরি ছেড়েছিলেন।
৩৪ বছর বয়সি রব কুলিন ২০১৭ সালে নাসায় নভোচারী হিসেবে নির্বাচিত হোন। ১৮ হাজার যোগ্য আবেদনকারীর মধ্যে যে ১২ জন নভোচারী হিসেবে নিয়োগ পান, তাদের মধ্যে একজন হচ্ছেন, কুলিন। তিনি এর আগে ইলন মাস্কের মহাকাশযান নির্মাতা প্রতিষ্ঠান স্পেসএক্সে কর্মরত ছিলেন।
সিবিএস নিউজের খবরে বলা হয়েছে, নাসা জানিয়েছে কুলিন তার ব্যক্তিগত কারণের জন্য চাকরি ছেড়েছেন। গোপনীয়তা আইনের কারণে এর বেশি তথ্য জানাতে রাজি হয়নি নাসা।
নভোচারী হওয়ার জন্য নাসার জনসন স্পেস সেন্টারে দুই বছরের প্রশিক্ষণ নিচ্ছিলেন কুলিন। কিন্তু হঠাৎ এই চাকরি ছেড়ে দেওয়ায় এখন খবরের শিরোনামে তিনি। তথ্যসূত্র : সি নেট