৬ জেলায় সড়ক দুর্ঘটনায় ১১ জন নিহত

আপডেট: আগস্ট ১৭, ২০১৯, ১২:৩৭ পূর্বাহ্ণ

সোনার দেশ ডেস্ক


সাপ্তহিক ছুটির দিন শুক্রবারেও ৬ জেলায় সড়ক দুর্ঘটনায় ১১ জনের মৃত্যু হয়েছে। ময়মনসিংহে প্রাইভেট কার দুর্ঘটনায় একই পরিবারের ৫জন নিহত হয়েছে। এছাড়াও টাঙ্গাইলে ২ জন এবং রাজবাড়ি, সাতক্ষীরা, কুষ্টিয়া ও নেত্রকোণায় ১ জন করে ৪ জন নিহত হয়েছেন।
বৃহস্পতিবার ১১ জেলায় সড়ক দুর্ঘটনায় ২৬ জন নিহত হয়।
ময়মনসিংহে একই পরিবারের ৫ জন নিহত
ময়মনসিংহে বাসকে পাশ কাটাতে গিয়ে নিয়ন্ত্রণ হারিয়ে প্রাইভেটকার গাছে ধাক্কা খেয়ে এক পরিবারের পাঁচজন নিহত হয়েছেন; এ ঘটনায় আহত হয়েছেন আরও একজন।
জেলার গৌরীপুর থানার ওসি কমারুল ইসলাম মিয়া জানান, উপজেলার রামগোপালপুর এলাকার ময়মনসিংহ-কিশোরগঞ্জ মহাসড়কে শুক্রবার সকাল সাড়ে ১০টার দিকে এ দুর্ঘটনা ঘটে।
নিহতরা হলেন নেত্রকোণার দুর্গাপুর উপজেলার মো. রফিকুজ্জামান (৪৫), তার স্ত্রী শাহিনা আক্তার (৪০), শ্যালক আশরাফুজ্জআমান (৩৮), ছেলে নাদিম হোসেন (২৫) ও মেয়ে রনক জাহান (১৩)।
আহতকে ময়মনসিংহ মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে।
ওসি বলেন, দুর্গাপুর থেকে ময়মনসিংহ হয়ে প্রাইভেট কারটি নরসিংদী যাওয়ার পথে ময়মনসিংহ থেকে কিশোরগঞ্জগামী একটি বাসকে পাশ কাটাতে যায়। এ সময় প্রাইভেটকারটি নিয়ন্ত্রণ হারিয়ে বাসের সঙ্গে ধাক্কা খেয়ে সড়কের পাশে গাছের সঙ্গেও ধাক্কা খায়।
“এতে ঘটনাস্থলেই প্রাইভেটকারের যাত্রী শাহীনা নিহত ও পাঁচজন আহত হন।”
আহতদের উদ্ধার করে ময়মনসিংহ মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নেয়া হলে সেখানে চিকিৎসকেরা তিনজনকে মৃত ঘোষণা করেন। পরে সেখানে আরও একজন মারা যান। আহত অন্যজনকে চিবিৎসা দেওয়া হচ্ছে।
টাঙ্গাইলে পৃথক সড়ক দুর্ঘটনায় নিহত ২
টাঙ্গাইলে পৃথক সড়ক দুর্ঘটনায় দু’জন নিহত হয়েছেন। শুক্রবার (১৬ আগস্ট) দুপুরে জেলার ভূঞাপুর-তারাকান্দি সড়ক ও সকালে নাগরপুর উপজেলার নাগরপুর-সলিমাবাদ সড়কে দুর্ঘটনাগুলো ঘটে।
নিহত দু’জন হলেন- জামালপুরের সরিষাবাড়ির পিংনা গ্রামের আব্দুল মান্নান (৬২) ও নাগরপুর উপজেলার বেকড়া ইউনিয়নের পাছপাড়া গ্রামের কুদ্দুস মিয়া (৭০)।
স্থানীয়রা জানান, ঈদের ছুটি শেষে মেয়ে ও মেয়ের জামাইকে নিয়ে ঢাকায় কর্মস্থলে যাওয়ার জন্য পিংনা থেকে সিএনজিচালিত অটোরিকশায় করে ভূঞাপুরের দিকে যাচ্ছিলেন মান্নান। পথে অটোরিকশাটি ভূঞাপুর-তারাকান্দি সড়কে পৌঁছালে বিপরীত থেকে আসা তারাকান্দিগামী একটি মাইক্রোবাসের সঙ্গে সংঘর্ষ হয়। এতে অটোরিকশার চালকসহ চারজন গুরুতর আহত হন। তাদের উদ্ধার করে ভূঞাপুর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে গেলে দায়িত্বরত চিকিৎসক মান্নানকে মৃত ঘোষণা করেন।
অপরদিকে নিহত কুদ্দুসের বড় ভাই বাদশা মিয়া জানান, সকালে বেকড়া ভোরের বাজার থেকে বাড়ি ফিরছিল কুদ্দুস। পথে নাগরপুর-সলিমাবাদ সড়কে পৌঁছালে বিপরীত দিক থেকে আসা একটি অটোরিকশা তাকে ধাক্কা দেয়। এতে গুরুতর আহত হয় সে। তাৎক্ষণিকভাবে স্থানীয়রা তাকে উদ্ধার নাগরপুর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে গেলে দায়িত্বরত চিকিৎসক মৃত ঘোষণা করেন।
রাজবাড়িতে স্কুলছাত্র নিহত
রাজবাড়ীর কালুখালীতে পিকনিকের বাস খাদে পড়ে শামীম হোসেন (১৪) নামে এক শিক্ষার্থী নিহত হয়েছে। এ ঘটনায় কমপক্ষে ২০ জন আহত হয়েছে। আহতদের উদ্ধার করে পাংশা উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করা হয়েছে।
বৃহস্পতিবার (১৫ আগস্ট) রাত ৩টার দিকে কালুখালীর দূর্গাপুর বাসস্ট্যান্ড এলাকায় এ দুর্ঘটনা ঘটে। পিকনিকের বাসটি পটুয়াখালী থেকে মেহেরপুরে যাচ্ছিল।
নিহত শামীমের বাড়ি মেহেরপুরের গাংনী উপজেলার খাসমহল গ্রামে। তার বাবার নাম শফিউল ইসলাম। সে তেঁতুলবাড়িয়া ইসলামিয়া মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের দশম শ্রেণির ছাত্র।
সাতক্ষীরায় ইঞ্জিন ভ্যান উল্টে পানিতে পড়ে শিশুর মৃত্যু
সাতক্ষীরার শ্যামনগরে ইঞ্জিন ভ্যান উল্টে পানিতে পড়ে রুবাইয়া (১৭ মাস) নামে একটি শিশুর মৃত্যু হয়েছে।
শুক্রবার (১৬ আগস্ট) দুপুরে উপজেলার খানপুর ইটভাটা সংলগ্ন রাস্তায় এ দুর্ঘটনা ঘটে। রুবাইয়া শ্রীরামপুর গ্রামের রবিউল ইসলাম গাজীর মেয়ে।
কুষ্টিয়ার মিরপুরে বাস খাদে পড়ে নারী নিহত, আহত ১৫
কুষ্টিয়ার মিরপুর উপজেলার আমবাড়িয়া ইউনিয়নের বালুচর মোড় এলাকায় যাত্রীবাহী একটি বাস নিয়ন্ত্রণ হারিয়ে খাদে পড়ে হোসনেয়ারা বেগম (৪৫) নামে এক নারী নিহত হয়েছেন। এতে আহত হয়েছেন অন্তত ১৫ জন যাত্রী।
শুক্রবার (১৬ আগস্ট) দুপুরের দিকে কুষ্টিয়া-চুয়াডাঙ্গা আঞ্চলিক মহাসড়কে এ দুর্ঘটনা ঘটে। হোসনেয়ারা একই উপজেলার কুশা ইউনিয়নের হাউসপুর গ্রামের রিয়াজুল ইসলামের স্ত্রী।
নেত্রকোণায় বাসচাপায় বাইক আরোহী নিহত
নেত্রকোণার পূর্বধলা উপজেলায় বাসচাপায় এক মোটর সাইকেল আরোহী নিহত হয়েছেন।
উপজেলার পূর্বধলা অতকাপাড়ায় শ্যামগঞ্জ-বিরিশিরি সড়কে শুক্রবার সকালে এ দুর্ঘটনা ঘটে বলে পূর্বধলা থানার ওসি তাওহীদুর রহমান জানান।
নিহত রতন খাঁ (৩৫) পূর্বধলা উপজেলার ছনধরা গ্রামের সিরাজ খাঁর ছেলে।
আহতরা রমজান খাঁকে (৪০ ময়মনসিংহ মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে। তিনি রতনের চাচাচো ভাই।
তথ্যসূত্র: বিডিনিউজ, বাংলানিউজ