৭০ বাল্যবিয়ে দেয়া কাজীকে এক হাজার টাকা জরিমানা

আপডেট: আগস্ট ২৬, ২০১৮, ১২:৩০ পূর্বাহ্ণ

সোনার দেশ ডেস্ক


বাল্যবিয়ে রেজিস্ট্রি করায় কাজীর নিকাহ রেজিস্ট্রি বই জব্দ করে ইউএনও পেলেন চোখ কপালে ওঠার মতো ঘটনা। রেজিস্ট্রি বইয়ে বিয়ে রেজিস্ট্রির তথ্য থাকলেও নেই বর ও কনের বয়স।
এ ঘটনায় ভ্রাম্যমাণ আদালতে কাজীর এক হাজার টাকা জরিমানা করেছেন ইউএনও। রেজিস্ট্রি বইটি জব্দ করা হয়েছে। ঘটনাটি কুড়িগ্রামের নাগেশ্বরী উপজেলার। অভিযুক্ত কাজী রিয়াজুল ইসলাম এর আগেও জেল খেটেছেন।
উপজেলা নিবাহী কর্মকর্তা জানান, শুক্রবার রাত সাড়ে ১১টার দিকে খবর আসে পৌর এলাকার ভাসানীর বাসার এলাকার নুরল ইসলামের ১০ম শ্রেণি পড়ুয়া মেয়ের বাল্যবিয়ে হচ্ছে। রাতে সেখানে গিয়ে দেখা যায় কাজী রিয়াজুল ইসলামের সাব কাজী আমজাদ হোসেন বিয়ে রেজিস্ট্রি করেছেন। এ সময় বিয়ে স্থগিত করে কাজীর নিকাহ রেজিস্ট্রি বই জব্দ করে নিয়ে যান তিনি। পরে শনিবার দুপুরে কাজীকে ডাকা হয় তার কার্যালয়ে।
ইউএনও জানান, রেজিস্ট্রি বইটিতে দেখা যায় প্রায় ৭০টি বিয়ে রেজিস্ট্রি করা হয়েছে ২০১৬ সালে। কিন্তু একটিতেও কনের বয়স লেখা হয়নি। অনেকখানে ঠিকানা লেখা হয়নি। ধারণা করা হচ্ছে বয়স কম থাকায় এসব বিয়ে রেজিস্ট্রির সময় বয়স ওঠানো হয়নি। এঘটনায় পরে ক্ষমা চায় কাজী রিয়াজুল ইসলাম। এ ধরনের কাজ করবেন না বলেও তিনি প্রতিশ্রুতি দেন। পরে ভ্রাম্যমাণ আদালত বসিয়ে এক হাজার টাকা জরিমানা করা হয়।
এ সময় বেরুবাড়ী ইউপি চেয়ারম্যান আব্দুল মোত্তালেব, উপজেলা যুবলীগ সভাপতি জাহিদুল ইসলাম জাহিদ ও পৌর কাউন্সিলর মমিনুর রহমান ভোলা উপস্থিত ছিলেন।
নাগেশ্বরী উপজেলা নির্বাহী অফিসার শঙ্কর কুমার বিশ্বাস বলেন, ভ্রাম্যমাণ আদালতে জরিমানা করা হয়েছে। এরপর এ ধরনের ঘটনা ঘটালে আরও কঠোর ব্যবস্থা নেয়া হবে।
তথ্যসূত্র: জাগোনিউজ