অক্ষয়কুমার মৈত্রয়’র প্রয়াণ দিবসে সেমিনার অনুষ্ঠিত II ১ মার্চ নাট্যোৎসব, সম্মাননা পাবে ‘উত্তরবঙ্গ বিশ্ববিদ্যালয় অক্ষয়কুমার মৈত্রেয় মিউজিয়াম’

আপডেট: ফেব্রুয়ারি ১০, ২০২৪, ৬:২৯ অপরাহ্ণ


নিজস্ব প্রতিবেদক:

নগরীতে অক্ষয়কুমার মৈত্রেয় : রাজশাহীর নাট্য-আন্দোলন ও সাংস্কৃতিক জাগরণের পথিকৃৎ সেমিনার অনুষ্ঠিত হয়েছে। শনিবার (১০ ফেব্রুয়ারি) বিকেল চারটায় নগরীর শাহ্ মখদুম কলেজ মিলনায়তনের রাজশাহী থিয়েটারের আয়োজনে এই সেমিনার অনুষ্ঠিত হয়। অক্ষয়কুমার মৈত্রেয়’র ৯৪ তম প্রয়াণ বার্ষিকীর এই অনুষ্ঠানে বিষয়ভিত্তিক প্রবন্ধ উপস্থাপন করেন, রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের উপ- রেজিস্ট্রার মো. সফিকুল ইসলাম। অনুষ্ঠানে সভাপতিত্ব করেন, রাজশাহী থিয়েটারের সভাপতি নিতাই কুমার সরকার।

জানা গেছে, অক্ষয়কুমার মৈত্রেয় নাট্যোৎসব-২০২৪ অনুষ্ঠিত হবে আগামি ১ থেকে ৫ মার্চ পর্যন্ত। এই অক্ষয়কুমার মৈত্রেয় নাট্যোৎসবটি রাজশাহী জেলা শিল্পকলা একাডেমিতে অনুষ্ঠত হবে। এবছর অক্ষয়কুমার মৈত্রেয় সম্মাননার জন্য মনোনীত হয়েছে- ভারতের পশ্চিমবঙ্গের দার্জিলিং এর ‘উত্তরবঙ্গ বিশ্ববিদ্যালয় অক্ষয়কুমার মৈত্রেয় মিউজিয়াম’। তাদের অনুষ্ঠানিকভাবে জানানো হয়েছে। তারা অনুষ্ঠানে অংশ নেবে বলে জানানো হয়েছে।
সেমিনারে বক্তারা বলেন, অক্ষয়কুমার মৈত্রেয়-এর এই রাজশাহীতে অনেক অবদান রয়েছে। এই অক্ষয়কুমার মৈত্রেয়কে নতুন প্রজন্মের কাছে পরিচিত করতে হবে। মাধ্যমিক ও কলেজ পর্যায়ের পাঠ্যবইতে অক্ষয়কুমার মৈত্রেয়কে রাখতে হবে।

অক্ষয়কুমার মৈত্রয় ভারতবর্ষের অন্যতম গুনি মানুষ ছিলেন। রাজশাহীতে সিল্ক শিক্ষা স্কুল, শিক্ষা ও সংস্কৃতিতে অনেক অবদান ছিল অক্ষয়কুমার মৈত্রেয়’র। অক্ষয়কুমার মৈত্রেয়’র নামে রাজশাহীতে কোনো সড়ক, প্রতিষ্ঠানের নাম নেই। কোনো স্থাপনাও নেই। অক্ষয়কুমার মৈত্রয়কে নিয়ে অনেক গবেষণার প্রয়োজন। তাকে নিয়ে গবেষণার অনেক কিছু আছে। তাই অক্ষয়কুমার মৈত্রেয়’র নামে একটি গবেষণা পরিষদ গঠন করতে হবে।
বক্তরা আরো বলেন, আমাদের সাম্প্রদায়িক চিন্তা চেতনা থেকে বেরিয়ে এসে অক্ষয়কুমার মৈত্রেয়র অবদানগুলো মূলায়ন করতে হবে।

এসময় উপস্থিত থেকে বক্তব্য দেন, দৈনিক সোনার দেশ পত্রিকার সম্পাদক আকবারুল হাসান মিল্লাত, রাজশাহী হেরিটেজের সভাপতি মাহবুব সিদ্দিকী, রা.ই.প এর আবুল বাসার বাদল, লেখক আনারুল হক প্রমুখ।
উপস্থিত ছিলেন, রাজশাহী থিয়েটারের প্রতিষ্ঠাতা সভাপতি তাজুল ইসলাম, লেখক ও গবেষক সাব্বির আহমেদ, একাত্তরের ঘাতক দালাল নির্মূল রাজশাহী নগর কমিটির সভাপতি আব্দুল লতিফ চঞ্চল, লেখক- সাংবাদিক মোহাম্মদ জুলফিকার, চলচ্চিত্র নির্মাতা আহসান কবীর লিটন প্রমুখ। অনুষ্ঠানে সঞ্চালনা করেন, রাজশাহী থিয়েটারের সাবেক সভাপতি কামারুল্লাহ সরকার

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ