অঙ্কুরেই শেষ শিক্ষক লেলিনের স্বপ্ন

আপডেট: জুন ২৫, ২০২২, ১:২৯ পূর্বাহ্ণ

জিল্লুর রহমান, মান্দা:


সদা হাস্যোজ্জ্বল সাদামাটা স্বভাবের ছেলে লেলিন সরকার (২৭)। এনটিআরসির মাধ্যমে এবছরের ৩০ জানুয়ারি নওগাঁর নিয়ামতপুর উপজেলার রামকুড়া আশরাফুল উলুম দাখিল মাদ্রাসায় সহকারী শিক্ষক হিসেবে চাকরিতে যোগাদান করেন। সম্প্রতি তিনি এমপিওর তালিকাভূক্ত হন।
চাকরি জীবনের প্রথম বেতন দিয়ে বৃহস্পতিবার দুপুরে ভুরিভোজ করিয়েছেন প্রতিষ্ঠানের শিক্ষক-কর্মচারীদের। শুক্রবার সকালে মর্মান্তিক সড়ক দুর্ঘটনায় নিভে গেছে তাঁর জীবন প্রদীপ।

এ কথাগুলো বলছিলেন আর কান্নায় ভেঙে পড়ছিলেন তাঁর প্রতিষ্ঠানের সহকারী শিক্ষক আশরাফুল ইসলাম। তিনি বলেন, প্রাথমিক বিদ্যালয়ে সহকারী শিক্ষক নিয়োগ পরীক্ষায় উত্তীর্ণ হয়েছেন লেলিন। বিসিএস পরীক্ষাতেও অংশ নেন তিনি। তাঁর স্বপ্ন ছিলো ক্যাডার হওয়ার। অঙ্কুরেই শেষ হয়ে গেল লেলিনের ক্যাডার হওয়ার সেই স্বপ্ন।

নিহত লেলিন সরকার গাইবান্ধা জেলার সুন্দরগঞ্জ উপজেলার দুলাল গ্রামের মোস্তাফিজুর রহমানের ছেলে। চারভাই ও দুইবোনের মধ্যে লেলিন ছিল সবার ছোট। মধ্যবিত্ত পরিবারের ছোট সন্তান হওয়ায় আদর একটু বেশিই পেয়েছেন। মা মারা গেছেন প্রায় ১০ বছর আগে। বড়ভাই রেজু মিয়া প্যারালাইজডে আক্রান্ত, মেঝভাই এরশাদ আলী বেকার, সেজভাই আনারুল ইসলাম ঢাকায় থাকেন। লেলিন চাকরি পাওয়ায় মধ্যবিত্ত পরিবারটি অন্ধকারের মধ্যে একটু আলো দেখছিলো।

নিহত লেলিনের সহকর্মী শিক্ষক গোলাম আগা খান বলেন, নওগাঁর নামাজগড় মাদ্রাসায় ৬ দিনের প্রশিক্ষণ ছিল বাংলার শিক্ষক লেলিন সরকারের। ওই প্রশিক্ষণে অংশ নেওয়ার জন্য শুক্রবার সকালে সিএনজি অটোরিকশায় নিয়ামতপুর উপজেলা সদর থেকে আরও পাঁচজন শিক্ষকসহ তিনি নওগাঁর উদ্দেশ্যে রওনা দেন।

শিক্ষক গোলাম আগা খান আরও বলেন, পথে নওগাঁ-রাজশাহী মহাসড়কের বাবলাতলি এলাকায় ট্রাকের চাপায় মারা যান তিনি। দুর্ঘটনায় তাঁর সঙ্গে থাকা শিক্ষক দেলোয়ার হোসেন (৪৮), শিক্ষক মকবুল হোসেন (৫৮) শিক্ষক জান্নাতুন নেছা (৩৫) ও সিএনজি অটোরিকশার চালক সেলিম রেজা (৪২) নিহত হন। দুর্ঘটনায় নুরজাহান বেগম (৩০) নামে আরেক শিক্ষক আহত হন। হতাহতরা নিয়ামতপুর উপজেলার বিভিন্ন শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে সহকারী শিক্ষক পদে চাকরি করেন।

ঘটনার প্রত্যক্ষদর্শী বলিহার মোড়ের চা দোকানি আব্দুর রহিম বলেন, বলিহারের দিক থেকে মাটি নিয়ে একটি ট্রাক্টর মহাসড়কে উঠছিল। ওই ট্রাক্টরকে সাইড দিতে গিয়ে সিএনজি অটোরিকশাটি মহাসড়কে উল্টে যায়। এ সময় বগুড়া থেকে ছেড়ে আসা পোল্ট্রি ফিড বোঝাই একটি ট্রাক (ঢাকা মেট্রো ট ১৬-৫৬১৮) তাঁদের চাপা দিয়ে রাস্তার পাশে গভীর খাদে পড়ে যায়।