অটোরিকশা চলাচলে নীতিমালা বাস্তবায়ন হবে এই মাসেই

আপডেট: জানুয়ারি ৩, ২০২০, ১:১৩ পূর্বাহ্ণ

নিজস্ব প্রতিবেদক


নগরীর যান চলাচলে জনদুর্ভোগ দূর ও সড়কের শৃঙ্খলা ফিরিয়ে আনতে রাজশাহী সিটি করপোরেশন প্রণীত নীতিমালা বছরের প্রথম দিন থেকে বাস্তবায়িত করা শুরু করেছে। তবে নগরীতে এখনো কিছু কিছু নির্ধারিত রঙ ছাড়া অন্য রঙের অটোও চলাচল করছে। তবে মেরুন-পিত্তি অটো রিকশা সম্পূর্ণভাবে বাস্তবায়ন করতে এই মাসের সকল কাজ সম্পন্ন করবে রাজশাহী সিটি করপোরেশন।
রাসিকের সূত্রমতে, বর্তমানে গোটা নগরীতে ১০ হাজার মেরুন-পিত্তি অটোর নিবন্ধন কার্যক্রম চলমান রয়েছে। আর রিকশার নিবন্ধন করবে ৫ হাজার। মোট ১৫ হাজার অটো ও রিকশার নিবন্ধনের কাজ শেষ করবে সিটি কপোরেশন। এর বাইরে আর কোনো নিবন্ধন দেয়া হবে না।
গতকাল বৃহস্পতিবার কথা হয় কয়েকজন অটো ও রিকশা চালকদের সাথে। নগরীর আলুপট্টি মোড়ে রিকশা চালক আকবর আলী জানান, নীতিমালার বিষয়ে তিনি অবগত নন। তিনি জানান, অটোর নিবন্ধন করতে হচ্ছে, মাঝে মাঝে বিভিন্ন মোড়ে ট্রাফিক পুলিশ চালকদের ধরে কাগজপত্র দেখছে। কিন্তু রিকশার বিষয়ে আমি কিছু জানিনা।
রিকশাচালক আবুল হোসেন জানান, রিকশার চলাচলের বিষয়ে আমি তেমন কিছু জানিনা। তবে অটোর সঠিক নিবন্ধন করতে হচ্ছে ও না করলে ট্রাফিক পুলিশ অটো নিয়ে নিবন্ধনের পরে চালাতে দিচ্ছে। নগরীর জিরোপয়েন্টে অটোচালক নজরুল ইসলাম জানান, মেরুন-পিত্তি অটোর বিষয়ে রাজশাহী সিটি কপোরেশনের কর্মকর্তারা তাদের বিষয়টি অবহিত করেছে। এর মাঝে তার অনেক পরিচিত অটোচালক নিয়ম মাফিক অটোতে রং পরিবর্তন করেছে। আর এখনো যারা করেনি তারা হয়তো করে ফেলবে।
অটো চালক রানা জানান, সকাল ৬টা থেকে দুপুর ২টা পর্যন্ত মেরুন রং এবং দুপুর ২:৩০ মি: থেকে রাত ১০:৩০মি: পিত্তি রঙের অটোরিকশা চললে যানজট কমবেÑ তবে এই সময়ের মাঝে ভাড়া পাওয়ার ব্যাপারে সন্দেহ প্রকাশ করেন তিনি। রাজশাহী সিটি কপোরেশনের মতে, গোটা নগরীতে এই মাসেই অটোরিকশা (চালকসহ ৬ আসন) নিবন্ধন কার্ডের জোড় নম্বর মেরুন রঙের ও বিজোড় নম্বর পিত্তি রঙের গাড়ি চলাচলে সঠিকভাবে নিয়মে ফিরবে। সকাল ৬টা থেকে দুপুর ২টা পর্যন্ত মেরুন রং এবং দুপুর ২:৩০ মি: থেকে রাত ১০:৩০মি: পিত্তি রঙের অটোরিকশা চলাচল করবে। আর রাজশাহী মহানগর পুলিশের ট্রাফিক বিভাগ এটি বাস্তবায়নে সার্বিক সহযোগিতা করবে। এই বিষয়ে রাসিকের প্যানেল মেয়র-১ ও ১২ নম্বর ওয়ার্ড কাউন্সিলর সরিফুল ইসলাম বাবু বলেন, সিটি মেয়র এএইচএম খায়রুজ্জামান লিটনের ঐকান্তিক প্রচেষ্টায় নগরীর যান চলাচলে জনদুর্ভোগ দূর ও সড়কের শৃঙ্খলা ফিরিয়ে আনতে অটোরিকশা ও চার্জার রিকশা চলাচল নীতিমালা প্রণয়ন করা সম্ভব হয়েছে। এটি বাস্তবায়িত হলে রাজশাহী পরিচ্ছন্নতা, স্বাস্থ্যসেবা, শিক্ষাসহ বিভিন্ন ক্ষেত্রের ন্যায় নগরীর যান চলাচল নিয়ন্ত্রণের এ বিষয়টিও দেশে প্রশংসার দাবী রাখবে। এ বিষয়ে ট্রাফিক বিভাগসহ সংশ্লিষ্ট সকলের সহযোগিতা থাকবে।
এর আগে রাসিকের এক সভায় জানানো হয়, নতুন বছরের প্রথম দিন থেকেই অটোরিক্সার (চালকসহ ৬ আসন) নিবন্ধন কার্ডের জোড় নম্বর মেরুন রঙের ও বিজোড় নম্বর পিত্তি রঙের গাড়ি চলাচল করবে। গত ১ জানুয়ারি থেকে ১৫ জানুয়ারি সকাল ৬টা থেকে দুপুর ২টা পর্যন্ত মেরুন রং এবং দুপুর ২:৩০মি: থেকে রাত ১০:৩০মি: পর্যন্ত পিত্তি রঙের অটোরিকশা চলাচল করবে। একইভাবে ১৬ জানুয়ারি থেকে ৩১ জানুয়ারি পর্যন্ত সকাল ৬টা থেকে দুপুর ২টা পর্যন্ত পিত্তি রং এবং দুপুর ২:৩০মি: থেকে রাত ১০:৩০মি: পর্যন্ত মেরুন রঙের অটোরিকশা চলাচল করবে। তবে প্রতিদিন রাত ১০:৩০মি: থেকে সকাল ৬টা পর্যন্ত উভয় রঙের অটোরিকশা চলাচল করবে। তবে শুক্রবার ও অন্যান্য সরকারি ছুটির দিনে রং ও সময়ের কোনো বাধ্যবাধকতা থাকবে না। আর চার্জার রিকশা (চালকসহ ৩ আসন বিশিষ্ট) যে কোনো সময় চলাচল করতে পারবে। নিবন্ধিত প্রতিটি অটোরিকশা অথবা চার্জার রিকশার নিবন্ধন কার্ড ও চালক নিবন্ধন কার্ড অবশ্যই রিকশা চালকের নিকট থাকতে হবে। রেজিস্ট্রেশন কার্ড ছাড়া কোনো অটোরিকশা অথবা চার্জার রিকশা চলাচল করতে পারবে না। অবৈধ কার্ড পাওয়া গেলে গাড়িটি জব্দ করা হবে এবং চালক ও মালিকের বিরুদ্ধে প্রচলিত আইনে শাস্তিমূলক ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ