অনলাইনে ক্লাস রাজশাহী ক্যান্টনমেন্ট পাবলিক স্কুল ও কলেজে

আপডেট: May 14, 2020, 9:30 pm

সংবাদ বিজ্ঞপ্তি


পাঠদানের ধারাবাহিকতা নিশ্চিত করতে রাজশাহী ক্যান্টনমেন্ট পাবলিক স্কুল ও কলেজ অনলাইন ক্লাসকে শ্রেণিকক্ষের বিকল্প হিসেবে ব্যবহার করছে। করোনা পরিস্থিতিতে শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান বন্ধ থাকায় প্রতিষ্ঠানের চলমান শিক্ষা ব্যবস্থা অনলাইন ভিত্তিক করা হয়েছে।
সরকার কর্তৃক সারা দেশে শিক্ষা প্রতিষ্ঠান বন্ধ ঘোষণার পরপরই তারা এই উদ্যোগ গ্রহণ করে যাতে ৩য় থেকে ১০ম শ্রেণির ১৫০০ শিক্ষার্থীর প্রায় শতভাগশিক্ষার্থী অংশ নিয়েছে। সাধারণ ছুটির নেতিবাচক প্রভাব এড়াতে, শিক্ষার্থীদের প্রতিদিনের পড়াশোনা সক্রিয় রাখতে এমন পদক্ষেপ নিয়েছে প্রতিষ্ঠানটি। প্রতিষ্ঠানের পরিচালনা পর্ষদের সভাপতি ব্রিগেডিয়ার জেনারেল শামীম আহমেদ, এসইউপি, এনডিসি, পিএসসি-এর নির্দেশনা ও নিবিড় তত্ত্বাবধানে এবং অধ্যক্ষ লে. কর্নেল মোঃ তাজুল ইসলাম, এইসি-এর নেতৃত্বে সুদক্ষ, অভিজ্ঞ ও নিবেদিতপ্রাণ শিক্ষকবৃন্দের মাধ্যমে অনলাইনে শিক্ষাকার্যক্রম পরিচালিত হচ্ছে। সুনির্দিষ্ট রুটিন অনুযায়ী বিষয়ভিত্তিক শিক্ষকগণ প্রয়োজনীয় শিক্ষাউপকরণ ব্যবহার করে ক্লাস নিচ্ছেন। হোয়াটসঅ্যাপ গ্রুপে শিক্ষার্থীদের স্বতঃস্ফূর্ত অংশগ্রহণ ক্লাসগুলোকে প্রাণবন্ত করে তুলছে। ভিডিও ক্লাস হওয়ায় শিক্ষার্থীরা পরবর্তীতেও ক্লাসের সময়ের বাইরে ক্লাসগুলো দেখতে পারে। নিয়মিত বাড়ির কাজ ই-মেইলের মাধ্যমে জমা নিয়ে প্রয়োজনমত ফিডব্যাক দিচ্ছেন শিক্ষকবৃন্দ। তাছাড়া কোন শিক্ষার্থী যাতে পিছিয়ে না পড়ে এজন্য অনলাইন ক্লাসগুলোতে তাদের উপস্থিতিও নিশ্চিত করা হচ্ছে। ঘরে বসে থাকা এসব শিক্ষার্থীর মানসিক অবস্থা চাঙ্গা রাখতে প্রতিষ্ঠানটির পরিচালনা পর্ষদের সভাপতি নিজেও রুটিন মাফিক বিভিন্ন সেশনে উপস্থিত থেকে শিক্ষার্থী ও অভিভাবকদের সাথে মতবিনিময় করছেন। নিয়মিত রুটিনে শিক্ষক ও শিক্ষার্থী অনলাইন প্লাটফরমে উপস্থিত থাকায় পড়াশোনার ক্ষতি পূরণ হওয়ার পাশাপাশি তাদের মানসিক একঘেয়েমিতা দূর হওয়ায় সন্তুষ্টি প্রকাশ করেছেন অভিভাবকবৃন্দ।
যতদিন পরিস্থিতি স্বাভাবিক না হচ্ছে, ততদিন পর্যন্ত নিয়মিত অনলাইন ক্লাস পরিচালনা করা হবে। পাশাপাশি সরকারের উদ্যোগে সংসদ বাংলা টেলিভিশন-এ প্রচারিত‘আমার ঘরে আমার স্কুল’ কার্যক্রমের সমস্ত ক্লাস শিক্ষার্থীর পাশাপাশি শিক্ষকবৃন্দ কর্তৃক অনুসরণকরত শিক্ষার্থীর বাড়ির কাজ সঠিকভাবে সম্পন্ন করা হচ্ছে। উল্লেখ্য ২০১৩ সালের ৫ সেপ্টেম্বর প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা প্রতিষ্ঠানটির উদ্বোধন করেন। ২০১৪ সাল থেকে একাডেমিক কার্যক্রমশুরু হয়। প্রথম বছরেই পিইসিই পরীক্ষায় অংশগ্রহণ করে শতভাগ শিক্ষার্থী জিপিএ-৫ অর্জন করে। এরই ধারাবাহিকতায় জেএসসি ও এসএসসি পরীক্ষায় প্রায় শতভাগ জিপিএ-৫ অর্জন করে ২০১৮ সালে বাংলাদেশের সমগ্র ক্যান্টনমেন্ট পাবলিক স্কুল ও কলেজের মধ্যে একাডেমিক বিভাগে প্রথম স্থান অর্জন করে দেশের শিক্ষাক্ষেত্রে এক স্বকীয় স্থান দখল করে। বিতর্ক, সাধারণ জ্ঞান, মিউজিক ও কম্পিউটার ক্লাব এর পাশাপাশি গণিত অলিম্পিয়াড ও বিজ্ঞান ক্লাব এর মত কার্যক্রম নিয়মিত অনুশীলনের মাধ্যমেসহপাঠ্যক্রমিক ক্ষেত্রে সুনাম বয়ে আনছে। রাজশাহী ক্যান্টনমেন্ট পাবলিক স্কুল ও কলেজ সময়োপযোগী শিক্ষাকার্যক্রম বাস্তবায়নে সদা তৎপর। সময় উপযোগীয় নানা সিদ্ধান্তে সৃজনশীলতা, ধৈর্য ও মননশীলতারফলশ্রুতিতে প্রতিষ্ঠানটি অল্প সময়েই ইর্ষণীয় সাফল্য বয়ে এনেছে।