অপপ্রচার রুখতে হবে || রাজপাড়া থানা আ’লীগের সম্মেলনে লিটন

আপডেট: আগস্ট ১, ২০১৭, ১২:৫৩ অপরাহ্ণ

নিজস্ব প্রতিবেদক


সম্মেলনে বক্তব্য দেন নগর আ’লীগের সভাপতি এএইচএম খায়রুজ্জামান লিটন। এসময় উপস্থিত ছিলেন সাধারণ সম্পাদক ডাবলু সরকারসহ নেতৃবৃন্দ-সোনার দেশ

রাজপাড়া থানা মহিলা আওয়ামী লীগের সম্মেলনে আ’লীগের কেন্দ্রীয় কার্যনির্বাহী কমিটির সদস্য ও নগর সভাপতি এএইচএম খায়রুজ্জামান লিটন বলেছেন, জামায়াতের টাকা আর হেফাজত ইসলামের অপপ্রচার  সম্পর্কে সজাগ হতে হবে। হেফাজতের দেয়া আ’লীগ সম্পর্কে অপব্যাখ্যা রুখতে হবে। রাজশাহীর মানুষকে আসন্ন সিটি মেয়র নির্বাচন সম্পর্কে সচেতন হতে হবে। নগরবাসীর কাছে রাজশাহীর উন্নয়নের বার্তা পৌছাতে হবে। নির্বাচনের সময় আর বেশি নেই। গতকাল সোমবার বিকেলে রামেক হাসপাতালের চৌধুরী কাইছার রহমান অডিটোরিয়ামে আয়োজিত সম্মেলনে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এসব কথা বলেন।  সাবেক মেয়র লিটন বলেন, প্রধানমন্ত্রী নারীবান্ধব সরকার। নারীদের প্রাপ্য সম্মান দিয়েছেন। আ’লীগের উন্নয়নের প্রচারণায় নারীদের গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রাখতে হবে। প্রতিটি বাড়ি বাড়ি গিয়ে নৌকা প্রতীকে ভোট দেয়ার আহ্বান জানাতে হবে। তুলে ধরতে হবে রাজশাহীকে এগিয়ে নেয়ার জন্য উন্নয়নমূখী পরিকল্পনা গ্রহণ করা হয়েছে।
তিনি আরো বলেন, বিএনপি-জামায়াতের সহিংসতা, নির্যাতন ও ষড়যন্ত্র দেশের উন্নয়ন চরমভাবে বিপর্যস্ত করে। রাজশাহীর মা-বোনেরা অতি সহজ সরল মনের অধিকারী। এজন্য গত মেয়র নির্বাচনে রাজশাহীসহ দেশের কয়েকটি সিটিতে হেফাজতের কথায় নৌকা প্রতীকে ভোট দেয় নি। প্রধানমন্ত্রী রাজশাহীর উন্নয়ন দেখে যোগ্যতার ভিত্তিতে আ’লীগ মনোনিত মেয়র প্রার্থী হিসেবে আমি (লিটন) আবারো রাজশাহীতে নির্বাচিত হয়েছি।
সম্মেলনে বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন, মহানগর আ’লীগের সহসভাপতি সমাজসেবী শাহীন আকতার রেনী, মুক্তিযোদ্ধা মীর ইকবাল, সাধারণ সম্পাদক ডাবলু সরকার, সাংগঠনিক সম্পাদক আজিজুল আলম বেন্টু, রাজপাড়া থানা আ’লীগের সভাপতি সৈয়দ হাফিজুর রহমান বাবু, সাধারণ সম্পাদক শেখ আনসারুল হক খিচ্চু।
খায়রুজ্জামান লিটন বলেন, নির্বাচনের প্রচারণার জন্য নগর আ’লীগ ও সহযোগি সংগঠনের নেতাকর্মীদের ঐক্যবদ্ধ হতে হবে। নিজ নিজ এলাকার মধ্যে উন্নয়নের চিত্র তুলে ধরতে হবে। বর্তমানে সিটি করপোরেশনের অবস্থা তুলে ধরতে হবে। গ্রীণ সিটির এ অবস্থার জন্য দায়ী কে ? নগরবাসীকে বোঝাতে হবে মেয়র নির্বাচনে যোগ্য প্রার্থীকে নির্বাচিত করতে আর ভুল করা যাবে না। আমি এবার নির্বাচিত হলে রাজশাহীতে গামেন্টর্স করা হবে। যাতে রাজশাহীর কোন মানুষ বেকার বসে না থাকে।
সম্মেলনের উদ্বোধক ছিলেন, নগর মহিলা আ’লীগের সভাপতি সালমা রেজা। প্রধান বক্তা ছিলেন, নগর মহিলা আ’লীগের সাধারণ সম্পাদক কানিজ ফাতেমা মিতু। সম্মেলন অনুষ্ঠান পরিচালনা করেন, অ্যাডভোকেট শামীমা ইয়াসমিন শিখা। অনুষ্ঠানে রাজশাহী মহানগর মহিলা আ’লীগ, থানা মহিলা আ’লীগ ও বিভিন্ন ওয়ার্ডের মহিলা আ’লীগের নেতাকর্মী উপস্থিত ছিলেন।