‘অপশক্তিকে রুখতে বড় ভূমিকা রাখতে হবে ছাত্রলীগকে’ || রুয়েট ছাত্রলীগের সম্মেলনে লিটন

আপডেট: ডিসেম্বর ৮, ২০১৬, ১২:১৯ পূর্বাহ্ণ

রাবি প্রতিবেদক :



‘বঙ্গবন্ধুর স্বপ্ন ছিলো বাংলাদেশের মানুষ দুবেলা দুমুঠো খেয়ে-পড়ে বাঁচবে। জননেত্রী শেখ হাসিনা সেই স্বপ্নই বাস্তবায়ন করে যাচ্ছে। তবে তার পথে বার বার বাধা হয়ে দাড়াচ্ছে মুক্তিযুদ্ধের অপশক্তি। তাদেরকে রুখে দিতে ছাত্রলীগকে বড় ভূমিকা রাখতে হবে।’
রাজশাহী প্রকৌশল ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয় (রুয়েট) শাখা ছাত্রলীগের তৃতীয় সম্মেলনে এসব কথা বলেন নগর আওয়ামী লীগের সভাপতি এএইচএম খায়রুজ্জামান লিটন। গতকাল বুধবার দুপুর ১২টায় রুয়েটের অডিটোরিয়ামে সম্মেলনের উদ্বোধন করেন কেন্দ্রীয় ছাত্রলীগের সভাপতি সাইফুর রহমান সোহাগ।
প্রধান অতিথির বক্তব্যে লিটন আরো বলেন,  ‘অবৈধভাবে ক্ষমতা দখল করার মাধ্যমে রাজনীতিকে নষ্ট করেছিলো জিয়া। তার গড়া দল হয়ে বিএনপি কিভাবে সুস্থ ধারার রাজনীতি আর গণতন্ত্র নিয়ে কথা বলে? যারা নিজেরাই পুড়িয়ে মানুষ মারে। এদের পূর্বসূরিরাই বঙ্গবন্ধুসহ জাতীয় চার নেতাকে হত্যা করেছিলো জাতিকে নেতৃত্ব শূন্য করতে।’
উদ্বোধকের বক্তব্যে ছাত্রলীগের কেন্দ্রীয় সভাপতি সাইফুর রহমান সোহাগ বলেন, ‘ভিশন-২০২১ ও ভিশন-২০৪১ বাস্তবায়নে বড় বাধা হয়ে দাঁড়িয়েছে বিএনপি-জামায়াত। বঙ্গবন্ধুর ‘অসমাপ্ত আত্মজীবনী’ থেকে শিক্ষা নিয়ে আমাদেরকে সামনের দিকে এগিয়ে যেতে হবে। তবে তরুণ প্রজন্মকে ধ্বংস করছে মাদকাসক্তি এবং সন্ত্রাস। মাদকের কারণেই ৭০ থেকে ৮০ শতাংশ সন্ত্রাসী কার্যক্রম সংঘটিত হয়।’ নতুন যাদেরকে দায়িত্ব দেয়া হবে তারা মাদকের বিরুদ্ধে প্রতিবাদ ও প্রতিরোধ গড়ে তুলতে হবে বলেও আশাবাদ ব্যক্ত করেন তিনি।
সম্মেলনে প্রধান বক্তার বক্তব্যে কেন্দ্রীয় ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক এসএম জাকির হোসাইন বলেন, ‘ভিশন ২০২১ ও ২০৪১ বাস্তবায়নে নেতৃত্ব দিতে হবে ছাত্রলীগকে। ২০১৭ সালের মধ্যে নেত্রীকে একটি নিরক্ষরমুক্ত বাংলাদেশ উপহার দিতে হবে। আপনারা মেধাবী ছাত্র। আপনারা সিদ্ধান্ত নিলে সব সম্ভব। বর্তমানে এক দেশ অন্য দেশের সাথে মেধা দিয়ে যুদ্ধ করে। মেধার যুদ্ধে আপনাদেরকে তৈরি হতে হবে।’
তিনি আরো বলেন, ‘ছাত্রলীগে আগে ছাত্র পরে লীগ। আগে পড়াশুনা পরে রাজনীতি। আমরা চাই ছাত্রলীগের নেতৃত্বে মেধাবীরা আসুক। ছাত্রলীগের নেতাদের আকর্ষণীয় হতে হবে। সেটা চেহারা বা পোশাক আশাকে নয়। কাজ, কথা এবং আচরণে।’
রুয়েট শাখা ছাত্রলীগের সভাপতি রাইসুল ইসলাম রোজের সভাপতিত্বে এবং সাধারণ সম্পাদক তৌহিদুর রহমান হিমেলের সঞ্চালনায় সম্মেলনে বিশেষ অতিথি ছিলেন, আওয়ামীলীগের কেন্দ্রীয় কমিটির বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিষয়ক সম্পাদক প্রকৌশলী আব্দুস সবুর, রাজশাহী মহানগর আওয়ামীলীগের সাধারণ সম্পাদক ডাবলু সরকার, কেন্দ্রীয় ছাত্রলীগের সহসভাপতি আনিকা ফারিহা জামান অর্ণা, বরকত হোসেন হাওলাদার, রুয়েট ছাত্রলীগের সাবেক আহ্বায়ক প্রকৌশলী হারুন-অর-রশিদ প্রমুখ। এছাড়াও রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়, রাজশাহী মহানগর ও রাজশাহী জেলা ছাত্রলীগের নেতৃবৃন্দ সম্মেলনে বক্তব্য রাখেন।