অপার সম্ভাবনার পর্যটন স্পট আজাইপুর বিলটির উন্নয়ন থেমে গেল!

আপডেট: আগস্ট ১১, ২০২২, ১:৩২ অপরাহ্ণ


চাঁপাইনবাবগঞ্জ প্রতিনিধি :


একসময় দূর থেকে দেখে মনে হতো বিল না নদী। কিন্তু আসলে এটা চাঁপাইনবাবগঞ্জ পৌরসভার আজাইপুর-শংকরবাটি বিল। তবে, এ বিলটি একসময় কুচুরিপানা আর জঙ্গলে ভরে গেলে তৎকালীন জেলা প্রশাসক মঞ্জুরুল হাফিজের নজরে আসে।

তাঁর ঐকান্তিক প্রচেষ্টায় সেটি সংস্কার করা হয়। পুরো জায়গাটি প্রশাসনের নিয়ন্ত্রণে নিয়ে সেখানে দৃষ্টিনন্দন পর্যটন স্পট গড়ে তোলার পরিকল্পনা গ্রহণ করা হয়। কিন্তু তিনি বদলি হওয়ার পর আর কোনো উদ্যোগ নেই সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষের।

জানা গেছে, জেলা শহরের প্রাণকেন্দ্র শান্তিমোড় থেকে মাত্র ৩০০ গজ দক্ষিণে আজাইপুর বিলটির অবস্থান। একসময় চাঁপাইনবাবগঞ্জ জেলা শহরের বৃহৎ এ বিলটি কচুরিপানা আর জঙ্গলে ভরা ছিল। জেলা প্রশাসক হিসেবে মো. মঞ্জুরুল হাফিজ এ জেলায় যোগদানের পর বিলটি সরেজমিন ঘুরে দেখেন। অপার সম্ভাবনাময় এ বিলকে ‘পর্যটন স্পট’ হিসেবে গড়ে তোলার উদ্যোগ নেয় জেলা প্রশাসন।

এরপর পর্যটন স্পট গড়ার লক্ষ্যে প্রাথমিক পর্যায়ে ১৮ লাখ টাকা ব্যয়ে আবর্জনা ও কচুরিপানা পরিষ্কারের উদ্যোগে নেয়া হয়। পরবর্তীতে জেলা প্রশাসন বিলটির উত্তর-পশ্চিম কর্নারে ‘মুক্তিযোদ্ধা কমপ্লেক্স ভবন’ নির্মাণ, কেন্দ্রীয় শহিদ মিনার নির্মাণ, দক্ষিণ পাড়ে জাতীয় স্মৃতিসৌধের আদলে একটি স্মৃতিসৌধ, মুক্তিযুদ্ধ জাদুঘর, বিলের চার পাশে প্রশস্ত হাটার রাস্তা ও শিশুপার্ক, জেলার ঐতিহ্যবাহী রেশম,

কাঁসাশিল্প, নকশিকাঁথাসহ আমভিত্তিক ডিসপ্লে সেন্টার গড়ে তোলার পরিকল্পনা গ্রহণ করে। এছাড়া, আজাইপুর বিলটিতে বিনোদন কেন্দ্র স্থাপনে শিশুদের জন্য ওয়াটার কিংডম, ওয়াটার স্লাডসহ বিভিন্ন রকম রাইডস স্থাপনের পরিকল্পনা গ্রহন করা হয়। এসব প্রকল্প অনুমোদনের জন্য সংশ্লিষ্ট দপ্তরে প্রেরণ করা হলে তা অনুমোদিত হয়।

পরবর্তীতে পানি উন্নয়ন বোর্ড বিলটি খননের কাজ শুরু করে। কিন্তু সেখানে আবার কচুরীপানায় ভরে গেছে। পৌর নাগরিক শাহ আলম জানান, বিলটিকে ঘিরে জেলার ইতিহাস ও ঐতিহ্যের সমন্বয়ে একটি মানসম্মত পর্যটন স্পট গড়ে তোলা হলে কালের সাক্ষী হয়ে থাকবে

। সেটিকে দৃশ্যমান করে গড়ে তোলার কাজ দ্রæত শুরু করার দাবী করেন পৌরবাসী। বিলের পাড়টি যেন অবৈধ দখলদারদের কবলে না পড়ে আর ময়লা-আবর্জনার স্তুপে যেন পরিণত না হয় সেদিকে সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষকে নজর দিতে হবে ।