অফিসে ৩০ মিনিট ঘুমাতে পারবেন কর্মীরা

আপডেট: মে ৭, ২০২২, ৭:০৮ অপরাহ্ণ

সোনার দেশ ডেস্ক:


কর্মীরা প্রতিদিন ৩০ মিনিট করে ঘুমাতে পারবেন। সম্প্রতি এমন ঘোষণা দিয়েছে ভারতের ব্যাঙ্গালুরুর একটি কোম্পানি। বিশেষজ্ঞরা বলেন, কাজের মাঝে কিছু সময়ের ঘুম বা ছোট্ট একটা বিরতি শরীর ও মনকে পুনরুজ্জীবিত করে।

কে চাইবে না কাজের মাঝে ছোট্ট একটা বিরতি? কর্মীদের সুবিধার কথা চিন্তা করে তাই বেঙ্গালুরুভিত্তিক স্টার্টআপ ওয়েকফিট আনুষ্ঠানিকভাবে তাদের কর্মীদের জন্য ৩০ মিনিট ঘুমানোর অনুমতি দিয়েছে।

গত বৃহস্পতিবার ওয়েকফিট সলিউশন টুইটারে একটি পোস্ট শেয়ার করেছে। সেখানে দুটি ছবি প্রকাশ করা হয়েছে। কর্মীদের কিছুটা বিরতি বা অল্প কিছু সময়ের জন্য বিশ্রাম এবং তারা কোন সময়ে এই সুবিধা পাবে সে বিষয়ে বিস্তারিত তথ্য সেখানে জানানো হয়।

ওয়েকফিটের সহ-প্রতিষ্ঠাতা চৈতন্য রামালিঙ্গেগৌড়া তার সহকর্মীদের কাছে এ বিষয়ে মেইল পাঠিয়েছেন। সেখানে জানানো হয়েছে, এখন থেকে দুপুর ২টা থেকে ২টা ৩০ মিনিটের মধ্যে কর্মীরা ঘুমানোর সময় পাবেন।

তিনি বলেন, আমরা ছয় বছরের বেশি সময় ধরে যেসব ব্যবসা করছি তা ঘুমের সঙ্গে জড়িত। কিন্তু আমরা বিশ্রামের একটি গুরুত্বপূর্ণ দিক অর্থাৎ দুপুরে কিছু সময় ঘুমানোর প্রতি সুবিচার করতে পারিনি। আমরা সব সময় স্বল্প সময়ের ঘুমকে গুরুত্ব সহকারে নিয়েছি।

তিনি আরও বলেন, নাসার এক গবেষণায় দেখা গেছে, ২৬ মিনিটের ঘুম আপনার কর্মক্ষমতা ৩৩ শতাংশ বাড়াতে সক্ষম। এছাড়া ঘুম কিভাবে আমাদের পুনরুজ্জীবিত করে সে বিষয়টি উঠে এসেছে হার্ভার্ডের গবেষণায়।

কোম্পানির পক্ষ থেকে এক টুইট বার্তায় ঘোষণা করা হয়েছে যে, প্রতিদিন সব কর্মীর ৩০ মিনিট ঘুমানোর অধিকার রয়েছে। আর এই সময়ের মধ্যে তাদের কোনো কাজের নির্দেশ দেওয়া হবে না।

ওই কোম্পানির পক্ষ থেকে জানানো হয়েছে যে, কর্মীদের ঘুমের জন্য উপযুক্ত পরিবেশ তৈরি করতেও কাজ করছে তারা।
অনেকেই এই প্রতিষ্ঠানের এমন উদ্যোগকে স্বাগত জানিয়েছেন। স্বল্প সময়ের এই ঘুম ক্যাট ন্যাপ নামেও পরিচিত। কাজের মধ্যে অল্প সময়ের জন্য এই বিশ্রামের সময় পেলে তা খুব দ্রুত শরীর ও মনকে সতেজ করে তোলে।
তথ্যসূত্র: জাগোনিউজ

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ