অবশেষে গ্রেপ্তার রাজস্থানের ধর্ষক ‘ফলাহারি’ বাবা

আপডেট: সেপ্টেম্বর ২৪, ২০১৭, ১২:৩০ পূর্বাহ্ণ

সোনার দেশ ডেস্ক


হাসপাতালে মুখ লুকিয়েও শেষরক্ষা হল না। অবশেষে পুলিশের জালে রাজস্থানের ধর্ষক ফলাহারি বাবা। ২১ বছরের এক তরুণীকে ধর্ষণের অভিযোগে তাকে গ্রেপ্তার করা হল।
রাম রহিম কাণ্ডে উত্তাল সারা দেশ। ঠিক সে সময়ই খোঁজ মিলল রাজস্থানের এই বাবার। জানা যায়, নিজেরই ভক্তের কন্যাকে ধর্ষণ করেছে এই স্বঘোষিত ধর্মগুরু। আলোয়ারে বাবার আশ্রম। চাকরি পাওয়ার সেখানেই বাবার সঙ্গে দেখা করতে গিয়েছিলেন তরুণী। আশ্রমের জন্য অনুদান দেয়ারও কথা ছিল তাঁর। অভিযোগ, তাঁকে দীর্ঘক্ষণ বসিয়ে রাখা হয়। তারপর আলাদা করে ডেকে নিয়ে শারীরিকভাবে নিগ্রহ করা হয়। ধর্ষণও করা হয়। বাড়ি ফিরেই বাবার কুকীর্তি ফাঁস করেন ওই তরুণী। তাঁর অভিযোগের ভিত্তিতেই পুলিশ হানা দেয় বাবার আশ্রমে। কিন্তু অসুস্থতার অছিলায় মাথা বাঁচানোর চেষ্টা করে বাবা। উচ্চ রক্তচাপের কারণে হাসপাতালে ভরতি ছিল বাবা। আলোয়ারের পুলিশ সুপার তার স্বাস্থ্য পরীক্ষার নির্দেশ দেন। আর তাতেই ভণ্ডামি ধরা পড়ে। সুগার থেকে প্রেসার সবই স্বাভাবিক আছে তার। এরপরই ফলাহারি বাবাকে গ্রেপ্তার করতে দেরি করেনি পুলিশ।
সত্তর বছরের এই স্বঘোষিত ধর্মগুরুর নাম কৌশলেন্দ্র প্রপন্নাচার্য। তবে ফলহারি বাবা নামেই খ্যাতি বেশি। ফল খেয়েই জীবনধারণ বলে এরকম নাম বাবার। স্থানীয় প্রভাশালী রাজনৈতিক নেতাদের সঙ্গেও তার ছবি আছে। অভিযোগকারিণী তরুণীর বাবা ফলাহারি বাবার শিষ্য। তরুণীর বাড়িতেও বেশ কয়েকবার পা রেখেছে বাবা। সেই হিসেবেই প্রথম চাকরির পয়সা বাবার আশ্রমে দান করতে গিয়েছিলেন ওই তরুণী। সেখানেই তাঁকে ধর্ষণ করা হয়। এমনকী কাউকে জানালে ফল ভালো হবে না বলেও হুমকি দেওয়া হয়। যদিও সাহস করে নীরবতা ভাঙেন ওই তরুণী। আর তাই শেষমেশ পুলিশের জালে উঠল আরও এক ধর্ষক বাবা।
তথ্যসূত্র: সংবাদ প্রতিদিন, কলকাতা