অর্থায়নে ঋণ নয়, চাই ক্ষতিপূরণ।। সনাকের মানববন্ধনে বক্তারা

আপডেট: নভেম্বর ২, ২০১৬, ১২:১০ পূর্বাহ্ণ


নিজস্ব প্রতিবেদক
জলবায়ু অর্থায়নে উন্নত দেশের প্রতিশ্রুতির বাস্তবায়ন, সবুজ জলবায়ু তহবিল হতে তহবিল সংগ্রহ এবং তা ব্যবহারে স্বচ্ছতা, জবাবদিহিতা ও নাগরিক অংশগ্রহণ নিশ্চিতের দাবিতে মানববন্ধন অনুষ্ঠিত হয়েছে। গতকাল মঙ্গলবার সকাল সাড়ে ৯টায় আলুপট্টির মোড়ে সচেতন নাগরিক কমিটির (সনাক) উদ্যোগে এ মানববন্ধন অনুষ্ঠিত হয়।
সনাক সভাপতি প্রফেসর মো. আবদুস সালামের সভাপতিত্বে বক্তব্য রাখেন, সিসিবিভিও নির্বাহী প্রধান সরওয়ার-ই- কামাল, ব্লাস্টের কো-অর্ডিনেটর অ্যাডভোকেট আবদুস সামাদ, পরিবর্তনের নির্বাহী প্রধান রাশেদ রিপন। মানববন্ধনে রাজশাহীতে কর্মরত বিভিন্ন উন্নয়ন সংগঠনসমুহ অংশগ্রহণ করেন। অংশগ্রহণকারী প্রতিষ্ঠানসমুহ হচ্ছে, ব্র্যাক, এসিডি, এনজিও ফোরাম, বেলা, বরেন্দ্র উন্নয়ন প্রচেষ্টা, স্ব-উন্নয়ন, কর্মজীবী নারী, সিসিবিভিও, সচেতন, প্রিপ ট্রাস্ট, পরিবর্তন ইত্যাদি।
মানববন্ধনে ধারণাপত্র পাঠ করেন, সনাক-রাজশাহীর ইয়েস গ্রুপের সদস্য মাহির ফারহান খান।
বক্তারা বলেন, জলবায়ু পরিবর্তনের কারণে ক্ষতিগ্রস্ত দেশগুলোকে ঋণ নয় ক্ষতিপূরণ প্রদান করতে হবে।
জলবায়ু পরিবর্তনের প্রভাবে সবচেয়ে ঝুঁকিপূর্ণ দেশগুলোর অন্যতম বাংলাদেশ সহ স্বল্পোন্নত ও ক্ষুদ্র দ্বীপ রাষ্ট্রসমূহে প্রতিনিয়ত ঝড়, বন্যা, জলোচ্ছ্বাস, নদী ভাঙন, খরা ও তীব্র তাপমাত্রার প্রকোপ ক্রমেই বাড়ছে। বিজ্ঞানীরা বলছেন বৈশ্বিক তাপমাত্রা ২-৪ ডিগ্রী সেলসিয়াস বেড়ে গেলে ঝুঁকিপূর্ণ দেশগুলোতে অপূরণীয় (ওৎৎবাবৎংরনষব) ক্ষতি হবে। উপকূলীয় বন্যা, তীর ভাঙন এবং কৃষিতে বিপর্যয়ের প্রভাবে ২০৫০ সাল নাগাদ বাংলাদেশের প্রায় ২.৭ কোটি সহ বিশ্বব্যাপী প্রায় ১৫ কোটি মানুষ পরিবেশ শরণার্থী হওয়ার আশংকা রয়েছে।