অশ্লীল ভিডিও চ্যাটের অভিযোগে কলকাতা থেকে বাংলাদেশি ক‚টনীতিককে ঢাকায় ফেরানো হল

আপডেট: জানুয়ারি ৩০, ২০২২, ১:০৯ অপরাহ্ণ


সোনার দেশ ডেস্ক :


এক নারীর সঙ্গে অশ্লীল ভিডিও চ্যাট করার অভিযোগে বাংলাদেশের এক ক‚টনীতিককে ঢাকায় ফিরিয়ে আনা হয়েছে।
ওই ক‚টনীতিক কলকাতায় বাংলাদেশের ডেপুটি হাই কমিশনে কর্মরত ছিলেন।

তবে ওই ক‚টনীতিক যে নারীর সঙ্গে চ্যাট করছিলেন, তিনি আসলে কে, তা নিয়ে এখনও কিছুটা ধোঁয়াশা রয়ে গেছে।
এই অভিযোগ তদন্ত করা হচ্ছে বলে কর্মকর্তারা জানিয়েছেন।

কলকাতায় বাংলাদেশের উপ রাষ্ট্রদূত তৌফিক হাসান বিবিসি বাংলাকে জানিয়েছেন, “কিছুদিন আগে একটি ফেসবুক আইডি থেকে আমাদের অফিশিয়াল ফেসবুক অ্যাকাউন্টে মেসেঞ্জারের মাধ্যমে একটি ভিডিও পাঠানো হয়।

ওই ভিডিওটি দেখেই আমরা জানতে পারি যে ডেপুটি হাই কমিশনে নিযুক্ত একজন ক‚টনীতিক এক নারীর সঙ্গে অশ্লীল চ্যাট করেছেন।”

“বিষয়টা খুবই স্পর্শকাতর এবং একটি পত্রিকায় ঘটনাটা আসার ২৪ ঘণ্টার মধ্যেই ওই অফিসারকে ঢাকায় ফেরত পাঠানো হয়েছে,” জানিয়েছেন মি. হাসান।

কূটনীতিককে ঢাকায় ফেরত যেতে বাংলাদেশের পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের আদেশ।
ওই অফিসারকে ঢাকায় ফেরত পাঠানোর ব্যাপারে বাংলাদেশের পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয় থেকে যে বদলির নির্দেশ এসেছে, তার কপিও বিবিসি পেয়েছে। সেই নির্দেশে অবশ্য বদলির কোনও কারণ লেখা নেই।

শুধু বলা হয়েছে ওই ক‚টনীতিককে কলকাতার দায়িত্বভার ত্যাগ করে অবিলম্বে ঢাকায় সদর দপ্তরে প্রত্যাবর্তন করতে হবে।

ওই কূটনীতিক ইতোমধ্যেই ঢাকায় ফিরে গেছেন বলে জানা গেছে।
হাই কমিশনের কর্মকর্তারা বলছেন, ওই কূটনীতিক বাংলাদেশে ফিরে যাওয়ার পরে তদন্তের সম্মুখীন হয়েছেন।

এটাও জানা যাচ্ছে যে বিষয়টির ব্যাপারে বাংলাদেশের প্রশাসনের শীর্ষ পর্যায় থেকেও কলকাতা উপ দূতাবাসের কাছে জানতে চাওয়া হয়েছে।
প্রশ্ন তোলা হয়েছে যে এরকম একটা ঘটনা কেন ডেপুটি হাই কমিশনের অন্য কর্মকর্তাদের নজরে আগে এলো না।

ওই নারীর পরিচয় নিয়ে কিছুটা অস্পষ্টতা রয়েছে। যে ফেসবুক আইডি থেকে ভিডিওটি ডেপুটি হাই কমিশনে পাঠানো হয়েছিল, সেই আইডি কার নামে, সেটা বিবিসি জানতে পেরেছে, কিন্তু সেই পরিচয় প্রকাশ করা হচ্ছে না।

তিনি ভারতীয় নাগরিক কি না, সেটাও নিশ্চিত করা সম্ভব হয় নি।
তথ্যসূত্র: বিবিসি বাংলা