অসাধারণ সেই জুটি নিয়ে সাকিব যা বললেন

আপডেট: আগস্ট ২৮, ২০১৭, ১২:৪২ পূর্বাহ্ণ

সোনার দেশ ডেস্ক


এই জুটির কারণেই ম্যাচের লাগাম বাংলাদেশের হাতে

দুজন এর আগে টেস্টে জুটি বেঁধেছেনই মাত্র চারবার। অথচ একসঙ্গে খেলেছেন ৪৬ টেস্টে। ক্যারিয়ারের ৫০তম টেস্টে খেলতে নামা সাকিব আল হাসান আর তামিম ইকবাল দুজনই গতকাল সিনিয়রদের দায়িত্ব পালনের ছবিটা ভালো করে দেখালেন। ১০ রানে ৩ উইকেট পড়ে যাওয়া বাংলাদেশ উদ্ধার পেয়েছে দুজনের ১৫৫ রানের জুটিতে। বাংলাদেশের পক্ষে এটি চতুর্থ উইকেটে দ্বিতীয় সর্বোচ্চ। কিন্তু পরিস্থিতি বিবেচনায় এই জুটি অন্যতম সেরা হয়ে থাকবে।
গতকাল দিনের খেলা শেষে সংবাদ সম্মেলনে আসা সাকিব এই জুটি সম্পর্কে বলেছেন, ‘অনেকটা চ্যালেঞ্জিং ছিল। আমার কাছে মনে হয়, আমরা দুজন খুব ভালোভাবে পরিস্থিতি বুঝে খেলতে পেরেছি। জুটিটা ম্যাচের জন্য জরুরি ছিল। কন্ডিশনের দিক থেকে বিবেচনা করলে খুব ভালো ছিল।’
কী পরিকল্পনা করছিলেন তখন দুজন? সাকিবের উত্তর, ‘কিছুই না। ওভাবে কথা হয় না তো। শুধু যতক্ষণ সম্ভব ব্যাটিং করতে থাকা। প্রথম সেশন যাওয়ার পর আমরা আরও ভালো ব্যাটিং করছিলাম। কিন্তু দুঃখজনকভাবে দুটি বল লাফিয়ে উঠেছিল। ওই জন্যই আমাদের উইকেট দুটি হারাই। আমার কাছে মনে হয়, আমাদের জন্য কাজটা সহজ ছিল। কারণ, অনেক দিন একসঙ্গে খেলেছি। আমাদের মধ্যে বোঝাপড়ার অভাব আছে, এমনও নয় ব্যাপারটা। দুজনেরই ৫০ টেস্ট হচ্ছে। বোঝাপড়া নিয়ে শঙ্কা থাকার কথা নয়।’
কিন্তু দুজনই তো সেঞ্চুরির সম্ভাবনা জাগিয়ে ফিরে এলেন। এ নিয়ে আক্ষেপ হয় না? সাকিব অকপট, ‘আক্ষেপ থাকবে। করতে পারলে ভালো হতো। যতটা করতে পেরেছি তাতে তৃপ্ত। তবে অবশ্যই আরও কিছু করতে পারলে আরও খুশি হতাম।’
আরও কিছু করার সুযোগ সাকিবের বল হাতেও আছে। সেখানেও ভূমিকা রেখেছেন। এখন টেস্টের দ্বিতীয় দিনে তাঁর চোখ, ‘ম্যাচের নিয়ন্ত্রণ এখন আমাদের হাতে। তবে কালকে একটা নতুন দিন, আমাদের আরও সাতটা উইকেট নিতে হবে। সুতরাং সেটাও আমাদের মাথায় আছে। এ ছাড়া ওদের ভালো কয়েকজন ব্যাটসম্যান আছে। আমাদের মনোযোগ ধরে রাখতে হবে। যেহেতু টেস্ট ম্যাচ। প্রতিটি দিনেই নতুন নতুন পরিস্থিতি আসে। সেগুলো ঠিকভাবে সামলানো জরুরি।’-প্রথম আলো অনলাইন